Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১২ জুন, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১১ জুন, ২০১৯ ২৩:০৬

অস্ট্রেলিয়ার প্রতিপক্ষ পাকিস্তান

ক্রীড়া প্রতিবেদক

অস্ট্রেলিয়ার প্রতিপক্ষ পাকিস্তান

১৯৯৯ সালের বিশ্বকাপ ফাইনাল। ২০০৯ সালে টি-২০ বিশ্বকাপ এবং সর্বশেষ ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। আইসিসির সবগুলো বিগ ইভেন্টের আয়োজক ইংল্যান্ড এবং সবগুলোর ফাইনাল খেলেছে পাকিস্তান। এরমধ্যে ৯৯ সালের বিশ্বকাপের ফাইনালে পর্যুদস্তু হয় অষ্ট্রেলিয়ার কাছে। ৯৯ সালে টি-২০ শ্রীলঙ্কাকে দুমড়ে-মুচড়ে চ্যাম্পিয়ন হয়। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির শিরোপা জিতে চির প্রতিদ্বন্দ্বী ভারতকে নাকাল করে। অথচ তিনটি আসরেই পাকিস্তানের শুরুটা ছিল বাজেভাবে। এবারও ১৯৯২ সালের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের শুরুটা যাচ্ছেতাই। সরফরাজ আহমেদ, মোহাম্মদ হাফিজ, মোহাম্মদ আমিরের পাকিস্তান আজ টনটনে মুখোমুখি হচ্ছে স্টিভ স্মিথ, অ্যারন ফিঞ্চ, ওসমান খাজার অস্ট্রেলিয়ার।

ফুটবলে যেমন ব্রাজিল। ক্রিকেটে তেমন অস্ট্রেলিয়া। বিশ্বকাপ ক্রিকেট মানেই শিরোপা প্রত্যাশীর তালিকায় সবার ওপরের নাম অস্ট্রেলিয়া। আগের ১১ আসরের পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন। এবারও ফেবারিট। যদিও রিকি পন্টিং, মাইকেল ক্লার্ক, গ্লেন ম্যাকগ্রাথের মতো ততোটা ধারালো নয় ফিঞ্চ, স্মিথ, ওয়ার্নারদের দলটি। তারপরও স্মিথ, ফিঞ্চরা এবারও শিরোপা প্রত্যাশী। প্রথম দুই ম্যাচে সহজ জয়ের পর তৃতীয় ম্যাচে লড়াই করে হেরে যায় বিরাট কোহলির ভারতের কাছে। আশার কথা, অস্টেলিয়ার দুই ব্যাটিং স্তম্ভ স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার রান করছেন নিয়মিত। অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক স্মিথ টানা দুই ম্যাচে হাফসেঞ্চুরি করেছেন। রান করছেন ওয়ার্নারও। ওসমান খাজা ধারাবাহিক, কুল্টার নাইন লেট অর্ডারে রান করছেন। বোলিংয়ে মিচেল স্টার্ক, অ্যাডাম জাম্পা, মার্ক স্টয়নিসরা ভালো করছেন। যদিও ভারতের কাছে হেরে যায় ৩৬ রানে। ভারতের ৩৫২ রানের জবাবে অসিদের স্কোর থেমে যায় ৩১৬ রানে। অসি বোলাররা পেড়ে উঠেননি কোহলি, শিখর ধাওয়ান, রোহিত শর্মাদের আগ্রাসী বাটিংয়ের সঙ্গে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে পাকিস্তান খেলেছে শিশুসুলভ। ক্যারিবীয় বোলারদের গতি, বাউন্স ও সুইংয়ে নাকাল হয়ে মাত্র ১০৫ রানে গুটিয়ে যায়। হার মানে ৭ উইকেটে। দ্বিতীয় ম্যাচে বিশ^কাপের অন্যতম ফেবারিট ইংল্যান্ডের বিপক্ষে উপহার দেয় চমকে দেওয়া পারফরম্যান্স। প্রথম ম্যাচের ধাক্কা সামলে ৩৪৮ রানের আকাশসম স্কোর গড়ে জয় তুলে নেয় ১৪ রানের। ইংলিশদের বিপক্ষে ম্যাচটিতে ৩৮ বছর বয়স্ক হাফিজ রান করেন ৮৪। ম্যাচসেরা হাফিজ বর্তমান অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে আজকের ম্যাচ নিয়ে বলেন, ‘বিশ^কাপের ১০টি দল অপরাজেয় নয়। সবাই সবাইকে হারানোর ক্ষমতা রাখে। ইংল্যান্ডকে হারানোর আগ পর্যন্ত কেউ ভাবেনি আমরা পারব। অস্ট্রেলিয়া শক্তিশালী প্রতিপক্ষ। তবে তাদের বিপক্ষে জিততে হলে কঠিন লড়াই করতে হবে।’ ফিঞ্চও একই কথা বলছেন, ‘বিশ^কাপ এবার ভিন্ন ফরম্যাটের খেলা। তাই দলগুলো অপরাজেয় নয়। পাকিস্তানকে হালকা চোখে দেখার কোনো কারণ নেই। নিজেদের দিনে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলাটা অনেক কঠিন।’


আপনার মন্তব্য