বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন, ২০২১ ০০:০০ টা

ফ্রান্সের জার্মানি বধ

রাশেদুর রহমান

ফ্রান্সের জার্মানি বধ

পল পগবা, কিলিয়ান এমবাপ্পে, করিম বেনজেমা বল নিয়ে মাঠজুড়ে ছুটোছুটি করছেন। দ্রুতলয়ে জার্মানির ডিফেন্সে হামলে পড়ছেন। পরক্ষণে ছুটে যাচ্ছেন নিজেদের অর্ধে। প্রয়োজনে ডিফেন্সে শক্তি বাড়াচ্ছেন। দারুণ এক ছক কষেই বায়ার্ন মিউনিখের মাঠ অ্যালাইঞ্জ অ্যারিনায় দলকে পাঠিয়েছিলেন ফরাসি কোচ দিদিয়ের দেশম। দলের ফরমেশন ৪-৩-৩। আক্রমণভাগে গ্রিজমান-বেনজেমা-এমবাপ্পে। কিন্তু মাঠজুড়েই ছিল তাদের অবাধ বিচরণ। এ পরিকল্পনাতেই জার্মানিকে কুপোকাত করল ফ্রান্স। মঙ্গলবার ১-০ গোলের জয়ে ইউরো কাপে শুভযাত্রা করল বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

জার্মানির ক্ষুরধার আক্রমণভাগের কথা কে না জানে! থমাস মুলার, কাই হ্যাভার্টজ, টিমো ওয়ার্নার, সার্গি জিনাবরিদের ভয় পায় বর্তমানের সেরা ডিফেন্স লাইনও। গত উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে জার্মান ফুটবলারদের দাপট দেখেছেন ফুটবলপ্রেমীরা। চেলসি-ম্যানসিটি লড়াইয়ে জার্মানদেরই দাপট ছিল। ফরাসি কোচ দিদিয়ের দেশম তাই ভিন্ন কৌশলেই দল সাজান। তবে জার্মানির যেমন দুরন্ত আক্রমণভাগ, ফ্রান্সেরও তেমনি মজবুত ডিফেন্স লাইন। রাফায়েল ভারানে, প্যাভার্ড, কিম্পেম্বে এবং হার্নান্দেজদের গড়ে তোলা দেয়াল ভেদ করতে পারেননি টনি ক্রুজরা। জার্মানদের সাঁড়াশি আক্রমণগুলো বার বারই ফ্রান্সের ডিফেন্স লাইনে মুখ থুবড়ে পড়েছে। ফ্রান্সের গোলমুখে ১০টা শট নিয়েও লক্ষ্যভেদ করতে পারেননি মুলার-ওয়ার্নাররা। অন্যদিকে ৪টা শট নিয়েই জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় গোলটা পেয়ে যায় ফ্রান্স। ম্যাচের ২০ মিনিটে পল পগবার লম্বা পাসে বল পেয়ে ডি বক্সের বাম পাশ থেকে শট নেন হার্নান্দেজ। বল ক্লিয়ার করতে গিয়ে নিজেদের জালেই জড়িয়ে দেন ম্যাটস হুমেলস। এই ডিফেন্ডারের গোলেই ২০১৪ সালে বিশ্বকাপ কোয়ার্টার ফাইনালে ফ্রান্সকে হারিয়েছিল জার্মানি। এবারের ইউরো কাপে প্রথম ১২ ম্যাচের তিনটাতেই আত্মঘাতী গোল হল। এর আগে কেবল ২০১৬ সালের ইউরো কাপে ৩টি আত্মঘাতী গোল হয়েছিল। ইউরো কাপে আত্মঘাতী গোলের নতুন রেকর্ড হতে যাচ্ছে এবার!

পরাজিত হওয়ার পর জার্মান কোচ জোয়াকিম লো বলেন, ‘ফ্রান্স অনেক শক্তিশালী দল। এগিয়ে যাওয়ার পর তারা খুব চমৎকারভাবে নিজেদের ডিফেন্স সামলাচ্ছে। আমাদেরকে তেমন কোনো সুযোগই দেয়নি।’ প্রথম ম্যাচে হেরে যাওয়ায় বেশ কঠিন হয়ে গেল জার্মানির জন্য। এফ গ্রুপে তাদের অপর দুই প্রতিপক্ষ পর্তুগাল ও হাঙ্গেরি। ১৯ জুন পর্তুগালের মুখোমুখি হবে জার্মানি। এখন পরাজয় নয়, সামনের ম্যাচ নিয়েই ভাবছেন জার্মান কোচ। নকআউট পর্বে খেলতে হলে পর্তুগিজদের বিপক্ষে জয়ের বিকল্প নেই তাদের। এদিকে জার্মানিকে হারিয়ে দারুণ খুশি ফরাসি কোচ দিদিয়ের দেশম। তিনি বলেন, ‘এটা এমন এক লড়াই ছিল যা সেমিফাইনাল বা ফাইনাল হতে পারত।’ দেশম ঠিকই বলেছেন। ফ্রান্স-জার্মানি লড়াই সেমিফাইনাল বা ফাইনালেই হয়তো বেশি মানায়! তবে গ্রুপ পর্বের লড়াইয়েও ছিল দারুণ উন্মাদনা। জার্মানিকে হারিয়ে তৃপ্তির ঢেঁকুর তোলা ফরাসি কোচ এবার তাকিয়ে আছেন সামনের দিকে। ১৯ জুন তারা হাঙ্গেরির মুখোমুখি হবে বুদাপেস্টের পুসকাস অ্যারিনায়।

প্রথম ম্যাচ হেরে জার্মানির সামনে দারুণ এক ইতিহাসের হাতছানি আছে। ১৯৮৮ সালে নেদারল্যান্ডস ইউরো কাপে প্রথম ম্যাচ হেরেই চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। ডাচদের সেই রেকর্ড নেই আর কারও। জার্মানরা কী নেদারল্যান্ডসকে ছুঁতে পারবে এবার!

এই রকম আরও টপিক