Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১২ মার্চ, ২০১৭ ১৮:২২

মাস্টারপ্ল্যান বাস্তবায়নের দাবিতে জাবিতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের আন্দোলন

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিঃ

মাস্টারপ্ল্যান বাস্তবায়নের দাবিতে জাবিতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের আন্দোলন

দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা ছাড়া জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) অপরিকল্পিত স্থাপনা নির্মাণ বন্ধ এবং প্রাকৃতিক পরিবেশ ও প্রাণ বৈচিত্র্য রক্ষার দাবিতে আন্দোলনে নেমেছেন বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনের অংশ হিসেবে রবিবার বেলা পৌনে ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারের পাদদেশে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ঐক্যমঞ্চের ব্যানারে একটি মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

মানববন্ধনে প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক সৈয়দ মোহাম্মদ কামরুল আহছান বলেন, “সাম্প্রতিক সময়ে বিশ^বিদ্যালয়ে অপরিকল্পিতভাবে যত্র-তত্র ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। জাবির ঐতিহ্যকে ধরে রেখে পরিবেশ সংরক্ষণে নির্দিষ্ট নীতিমালা করে মাস্টারপ্ল্যান অনুযায়ী ভবন নির্মাণ করতে হবে। পুরাতন মাস্টারপ্ল্যান পরিবর্ধণ করে আরও সময়োপযোগী করে তুলতে হবে।”

কলা ও মানবিকী অনুষদের ডিন অধ্যাপক মো. মোজাম্মেল হক বলেন, “বিশ্ববিদ্যালয়ের জায়গার স্বল্পতা রয়েছে। যা আছে তাকে আবাসিক ও একাডেমিক এই দুই ভাগে ব্যবহার করা হয়। তাই আমাদের ভূপ্রকৃতি বাঁচিয়ে পরিকল্পিতভাবে স্থাপনা নির্মাণ করতে হয়। অল্প প্রয়োজনে যদি বেশি জায়গা বরাদ্দ দেওয়া হয় তাহলে ভূপ্রকৃতি টিকিয়ে রাখা সম্ভব হবে না।”   

সরকার ও রাজনীতি বিভাগের অধ্যাপক নাসিম আখতার হোসাইন অবিলম্বে অপরিকিল্পতভাবে স্থাপনা নির্মাণ বন্ধ দাবি জানিয়ে বলেন, “যারা ভূমি, নদী ও সুন্দরবন দখল করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এখন তাদের মতো আচরণ করছে।”

জাবির প্রকৃতি এবং পরিবেশের সাথে সামঞ্জস্য রেখে নতুন ভবন নির্মাণের দাবি জানিয়ে ছাত্র ইউনিয়ন জাবি সংসদের সভাপতি দীপাঞ্জন সিদ্ধান্ত কাজল বলেন, “বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ে অপরিকল্পিতভাবে ভবন নির্মাণ বিশ্ববিদ্যালটির প্রকৃতি এবং জীব বৈচিত্র্যকে ধ্বংস করে দিচ্ছে। এসব ভবন গতানুগতিক ভাবে তৈরি করা হচ্ছে। যা বিশ্ববিদ্যালয়ের নান্দনিকতাকে নষ্ট করে ফেলছে।”

মানববন্ধনে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ঐক্যমঞ্চের মুখপাত্র দর্শন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক রায়হান রাইন, প্রাণিবিদ্যা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক মো. মনোয়ার হোসেন তুহিন, পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি মোহাম্মদ আমির হোসেন ভূঁইয়া, সরকার ও রাজনীতি বিভাগের অধ্যাপক মো. শামছুল আলম সেলিম, ইতিহাস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আনিছা পারভীন জলি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বিডি প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য