শিরোনাম
প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২০ ১৭:১৬

ইবিতে হাতাহাতিতে অমিমাংশিত বঙ্গবন্ধু ফুটবল টুর্নামেন্ট

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:

ইবিতে হাতাহাতিতে অমিমাংশিত বঙ্গবন্ধু ফুটবল টুর্নামেন্ট

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিভাগ ফুটবল প্রতিযোগিতার ফাইনাল খেলায় হাতাহাতি ও রেফারিকে ধাওয়া দিয়ে মারধরের ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ইংরেজী ও ইতহাস বিভাগের মধ্যকার ফাইনাল খেলায় এ ঘটনা ঘটে। এতে রেফারিসহ অন্তত ৩ জন আহত হয়েছে। 

প্রত্যক্ষদর্শী ও ক্যাম্পাস সূত্রে জানা যায়, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ক্যাম্পাসের ফুটবল মাঠে বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিভাগ ফুটবল প্রতিযোগিতার ফাইনাল খেলা শুরু হয়। খেলায় ইংরেজি ও ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগ অংশ নেয়। ম্যাচের এক পর্যায়ে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগ পেলান্টি পায়। এই সিদ্ধান্ত না মেনে রেফারির উপর চড়াও হয় ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থীরা। পরে সংশ্লিষ্ট বিভাগের শিক্ষক ও প্রক্টরিয়াল বডির সহায়তায় রেফারি পরিবর্তন করে খেলা শুরু হয়। পরে প্লান্টিতে গোল দেয় ইতিহাস বিভাগ। এর পরে আবারো খেলোয়াড়দের মধ্যে হট্টগোল ও হাতাহাতি হয়। এতে ইংরেজি বিভাগে খেলোয়াড়রা মাঠ ছেড়ে যায়। 

এদিকে রেফারি রবিউল ইসলামকে ধাওয়া দেয় ইংরেজি বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের মিজান, ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শুভ এবং ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের নিশাত। রেফারিকে ধাওয়া দিয়ে প্রধান ফটকে গিয়ে তারা রেফারিকে বেধড়ক মারধর করে। এসময় রেফারি গুরুতর আহত হয়। পরে ইংরেজি বিভাগের খেলোয়াড়দের মারধর করেছে ইতিহাস বিভাগের খেলোয়াড়রা। এবিষয়ে অতিরিক্ত রেফারি জাহিদুল ইসলাম বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আমাদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে। খেলার মধ্যে হট্টগোল হওয়ার সময়েই প্রশাসনের উচিত ছিল আমাদের নিরাপত্তা দেওয়া।’

এ ফুটবল টুর্নামেন্টে অমিমাংশিত রয়েছে বলে ক্রীড়া বিভাগের পরিচালক ড. সোহেল জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘এটি একটি অনাকাঙ্খিত ঘটনা। আমরা উপাচার্য ও দুই বিভাগের সভাপতির সঙ্গে বসে খেলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেব।’
 
প্রসঙ্গত, এর আগে হাতাহাতির কারণে খেলা বন্ধ থাকার পর গত ১৪ জানুযারি এ টুর্নামেন্ট আবার চালু হয়। সোমবার এ টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলার পর পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। এ হাতাহতির কারণে অনুষ্ঠান স্থগিত করা হয়েছে।


বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য