শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১২:০০
প্রিন্ট করুন printer

ঢাকা বারের নির্বাচনে প্রথম দি‌নের ভোটগ্রহণ চল‌ছে

অনলাইন ডেস্ক

ঢাকা বারের নির্বাচনে প্রথম দি‌নের ভোটগ্রহণ চল‌ছে

ঢাকা আইনজীবী সমিতির ২০২০-২০২১ নির্বাচনে প্রথম দি‌নের ভোটগ্রহণ চল‌ছে। 

বুধবার ঢাকা আইনজীবী স‌মি‌তি ভব‌নে সকাল ৯টা থে‌কে এই ভোটগ্রহণ শুরু হয়, যা চল‌বে বি‌কেল ৫টা পর্যন্ত। বৃহস্প‌তিবারও একইভা‌বে ভোটগ্রহণ চল‌বে। 

নির্বাচ‌নে মোট ভোটার ১৮ হাজার ১৫০ জন। কার্যনির্বাহী ক‌মি‌টির ২৩টি প‌দে মোট ৪৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্ব‌ন্দ্বিতা কর‌ছেন।

সবশেষ ২০১৯-২০ মেয়াদে ঢাকা আইনজীবী সমিতির এই নির্বাচনে ২৭টি পদের মধ্যে সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ ১৮টি পদেই জয়ী হন আওয়ামীপন্থিরা। অন্যদিকে বিএনপিপন্থিরা সিনিয়র সহ-সভাপতিসহ তিনটি সম্পাদকীয় ও ছয়টি সদস্য পদে বিজয়ী হন।

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ২১:৪৬
প্রিন্ট করুন printer

শাহজালাল বিমানবন্দরে স্বর্ণসহ আটক ১

অনলাইন ডেস্ক

শাহজালাল বিমানবন্দরে স্বর্ণসহ আটক ১
প্রতীকী ছবি

রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিপুল স্বর্ণালঙ্কার, আইফোন ও ল্যাপটপসহ একজনকে আটক করেছে বিমানবন্দর আর্মড পুলিশ। আটক ব্যক্তির নাম আশিকুল ইসলাম (৩২)। 

আজ বুধবার বিমানবন্দরের ৩২ নম্বর আগমনী টার্মিনালের আউট গেটের পার্কিংয়ের পশ্চিম পাশে থেকে তাকে আটক করা হয়। তার থেকে উদ্ধার হওয়া স্বর্ণ ও জিনিসপত্রের আনুমানিক বাজার মূল্য ৫০ লাখ টাকা।

বিমানবন্দর আর্মড পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন গণমাধ্যমকে এ খবর নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, আশিকুল চোরাচালান চক্রের সদস্য। দীর্ঘদিন থেকে তিনি চোরাচালানে জড়িত। 

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ২১:৩৭
প্রিন্ট করুন printer

মেয়র কাদের মির্জাকে নাগরিক সংবর্ধনা

অনলাইন ডেস্ক

মেয়র কাদের মির্জাকে নাগরিক সংবর্ধনা

নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচনে চতুর্থবারের মতো মেয়র পদে নির্বাচিত আলোচিত মেয়র আবদুল কাদের মির্জাকে নাগরিক সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। আজ বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় বসুরহাট সরকারি মুজিব কলেজ মাঠে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে এ নাগরিক সংবর্ধনা দেওয়া হয়। 

নাগরিক সংবর্ধনার শুরুতে মঞ্চ থেকে নেমে আগত অতিথিদেরও ফুলের পাপড়ি ছিটিয়ে বরণ করেন নবনির্বাচিত মেয়র। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহাব উদ্দিনের সভাপতিত্বে নাগরিক সংবর্ধনায় বক্তব্য রাখেন, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খিজির হায়াত খান, সাধারণ সম্পাদক নুর নবী চৌধুরী, সিনিয়র সহ-সভাপতি ইস্কান্দর বাবুল প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে নাগরিক সমাজের পক্ষ থেকে ফুল ও ক্রেস্ট দিয়ে মেয়র আবদুল কাদের মির্জাকে বরণ করে নেন উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহাব উদ্দিনসহ সংবর্ধনা আয়োজন কমিটির নেতৃবৃন্দরা। এই নাগরিক সংবর্ধনায় এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন কণ্ঠশিল্পী মমতাজ বেগম ও কর্নিয়া প্রমুখ।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ১৯:৫৯
প্রিন্ট করুন printer

খুপরি ঘরে বাস করেও সরকারি বরাদ্দের ঘর পেলেন না সুমন-সাথী দম্পতি

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

খুপরি ঘরে বাস করেও সরকারি বরাদ্দের ঘর পেলেন না সুমন-সাথী দম্পতি

সহায়-সম্পদ না থাকায় দীর্ঘ দেড় যুগ ধরে একটি গন-শৌচাগারের সেফটিক ট্যাকিংর উপর কোনমতে খুপরি ঘর নির্মাণ করে ৫ সন্তান নিয়ে বসবাস করছেন সুমন-সাথী দম্পতি। স্বামী সুমন পঙ্গু। আশা ছিল মুজিববর্ষে গৃহ ও ভূমিহীনদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর দেয়া একটি ঘর পাবেন তিনি। কিন্তু না, তাকে কেউ বিবেচনায় রাখেনি। 

এখনও খুপরি ঘরে কোনমতে স্বামী-সন্তানদের নিয়ে বসবাস করছেন পেশায় সুইপার (মেথর) সাথী বেগম। বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার বাবুগঞ্জ বন্দরে গন-শৌচাগারের সেফটিক ট্যাকিংর উপর কোনমতে টিনের ছাউনি দিয়ে এক কক্ষ বিশিষ্ট একটি খুপরি ঘরে বসবাস তাদের। 

স্থানীয় বাসিন্দা মো. সাইফুল ইসলাম জানান, জীবিকার তাগিদে ২০০৩ সালে মাদারীপুরের কালকিনি থেকে স্ব-পরিবারে বরিশালের বাবুগঞ্জে আসেন সুমন-সাথী দম্পতি। নিজস্ব কোন জমিজমা কিংবা বসতি না থাকায় তারা বাবুগঞ্জ বন্দরের গন-শৌচাগারের সেফটিক ট্যাংকির উপর টিনের ছাউনি দিয়ে মানবেতর পরিবেশে বসবাস শুরু করেন। টিনের ঘরটিও এখন জরাজীর্ণ। স্বামী সুমন শারীরিকভাবে অক্ষম। 

মেথরের কাজ করে সংসারের ব্যয়ভার নির্বাহ করেন স্ত্রী সাথী। এক মেয়ে ও ৪ ছেলের মধ্যে বড় ছেলে একটি মোবাইলের দোকানে সেলসম্যানের কাজ করেন। করোনা প্রকোপের প্রথম দিকে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সরোয়ার মাহমুদ, সমাজসেবক আতিকুর রহমান এবং থানার ওসি মিজানুর রহমান কিছু খাদ্য সহায়তা করেন ওই পরিবারকে। এরপর আর কেউ তাকায়নি তাদের দিকে। 

মুজিব বর্ষে সরকারিভাবে গৃহহীন ও ভূমিহীনদের খাস জমি সহ ঘর দেয়ার খবরে একটি ঘর পাওয়ার আশা করেছিলেন সাথী-সুমনের পরিবার। গত ২৩ জানুয়ারি বাবুগঞ্জ সহ সারা দেশের সকল জেলা উপজেলায় ভূমি ও গৃহহীনদের খাস জমি সহ ঘর দেয়া হলেও সেই তালিকায় নাম নেই গন-শৌচাগারের সেফটিক ট্যাংকির উপর বসবাস করা সুমন-সাথী পরিবারের। 

বাবুগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, মুজিব বর্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে বাবুগঞ্জে ১৭০জন ভূমি ও গৃহহীন পরিবারের মধ্যে প্রথম পর্যায়ে ১১০টি ঘরের দায়িত্ব বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। বাকী ৬০টি ঘরের নির্মাণ কাজ চলছে। শীঘ্রই বাকী ৬০টি ঘরের দায়িত্ব হস্তান্তর করা হবে। 

স্থানীয় ইউপি সদস্য জিলানী সাজোয়াল জানান, সরকারের আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর পেতে জাতীয় পরিচয়পত্র থাকা আবশ্যক। কিন্তু ওই দম্পতির জাতীয় পরিচয়পত্র নেই। সময়ের স্বল্পতার কারণে তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরি করা যায়নি। এ কারণে তারা ভূমি ও গৃহহীনদের জন্য বরাদ্দকৃত জমি সহ ঘর থেকে বঞ্চিত হয়েছে। 

বাবুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, কি কারণে ভূমি ও গৃহহীন ওই পরিবারের নাম সরকারের আশ্রয়ণ প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত হয়নি তা খতিয়ে দেখবেন তিনি। একই সাথে সুমন-সাথীর পরিবার ভূমি ও গৃহহীন হলে তাদের সরকারিভাবে যথা সম্ভব সকল সাহায্য সহযোগিতা করার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। 

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ১৯:০০
প্রিন্ট করুন printer

অবন্তিকা বড়াল কারাগারে

অনলাইন ডেস্ক

অবন্তিকা বড়াল কারাগারে

সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ ও অর্থ পাচারের অভিযোগ নিয়ে বিদেশে পালিয়ে থাকা এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রশান্ত কুমার হালদার ওরফে পি কে হালদারের সহযোগী অবন্তিকা বড়ালকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে অবন্তিকাকে আজ ঢাকার মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশের আদালতে হাজির করা হয়। আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এর আগে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে আজ তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এর আগে সোমবার তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের উপ-পরিচালক মো. সালাউদ্দিন তাকে প্রথম দিনের মতো জিজ্ঞাসাবাদ করেন বলে দুদকের পরিচালক (জনসংযোগ) প্রনব কুমার ভট্টাচার্য্য জানিয়েছেন। 

এর আগে গত ১৩ জানুয়ারি পি কে হালদারের আরেক সহযোগী অবন্তিকা বড়ালকে রাজধানীর ধানমন্ডি এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে দুদক। ওই দিনই তাকে আদালতে হাজির করে এক আবেদনের প্রেক্ষিতে অবন্তিকার বিরুদ্ধে তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়। পি কে হালদারের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি নানা কৌশলে নামে-বেনামে অসংখ্য কোম্পানি খুলে শেয়ারবাজার থেকে বিপুল পরিমাণ শেয়ার কেনেন এবং ২০১৪ সালের নির্বাচনের আগে ও পরে নিজের আত্মীয়, বন্ধু ও সাবেক সহকর্মীসহ বিভিন্ন ব্যক্তিকে পর্ষদে বসিয়ে অন্তত চারটি ব্যাংকবহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানের নিয়ন্ত্রণ নেন।

এই চার কোম্পানি হল ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস (আইএলএফএসএল), পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস, এফএএস ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড এবং বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স কোম্পানি (বিআইএফসি)। এসব কোম্পানি থেকে তিনি ঋণের নামে বিপুল অংকের টাকা সরিয়ে বিদেশে পাচার করেছেন বলে দুদক সূত্রে জানা গেছে। পি কে হালদারকে গ্রেপ্তারে ইন্টারপোলের মাধ্যমে রেড নোটিস জারি করা হয়েছে। তার মা লীলাবতী হালদারসহ ২৫ জনের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/আল আমীন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:২৬
প্রিন্ট করুন printer

রংপুরের ঠাকুরপাড়ার ঘটনায় আরও ৫ জন কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর

রংপুরের ঠাকুরপাড়ার ঘটনায় আরও ৫ জন কারাগারে

রংপুরে ঠাকুরপাড়ায় হামলা চালিয়ে বাড়িঘর জ্বালিয়ে দেয়াসহ মালামাল লুট ও তাণ্ডবের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় আরও ৫ আসামি আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করলে আদালত তাদের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

আজ বুধবার দুপুরে রংপুরের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক আল মেহেবুর এ আদেশ দেন। আসামিরা হলেন সাবেক ইউপি সদস্য নুর ইসলাম, হানিফ মিয়া, রায়হান, তারিকুজ্জামান, মোজাহারুল ইসলাম। এনিয়ে ঠাকুরপাড়ার ঘটনায় মোট ৫৫ আসামির জামিন নামঞ্জুর করে তাদের জেল হাজতে পাঠানো হল। 

আসামি পক্ষের আইনজীবী শফি কামাল ও একরামুল হক জানান, ঠাকুরপাড়ার ঘটনায় গঙ্গাচড়া থানায় দায়ের করা মামলায় ৫ আসামি আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন। আদালত আসামিদের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। পরে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়।

এর আগে ১৮ জানুয়ারি আরও ৬ আসামি আত্মসমর্পণ করেন। তাদেরও জেল হাজতে পাঠানো হয়। এছাড়া ৫ জানুয়ারি ওই মামলায় আরও ৪৪ জন আসামি আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করে। শুনানি শেষে আদালত আসামিদের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। 

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ১০ নভেম্বর ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়াকে কেন্দ্র করে হিন্দুপল্লী ঠাকুরপাড়ায় হামলা চালিয়ে অর্ধ শতাধিক বাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও মালামাল লুট করা হয়। এ ঘটনায় রংপুরের গঙ্গাচড়া থানায় একটি মামলা হয়। পরে পুলিশ তদন্ত করে ২৬৮ জনের নামে চার্জশীট দাখিল করে। আদালত চার্জশীট গ্রহণ করে আসামিদের নামে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর