১ নভেম্বর, ২০২৩ ১৪:০৯

মুগদায় বিএনপির এক নেতার নির্দেশে বাসে আগুন : পুলিশ

অনলাইন ডেস্ক

মুগদায় বিএনপির এক নেতার নির্দেশে বাসে আগুন : পুলিশ

মুগদায় বাসে আগুনের ঘটনায় গ্রেফতার আলামিন (ডানে)

রাজধানীর মুগদা হাসপাতালের সামনে যাত্রী বেশে মিডলাইট পরিবহনের একটি বাসে আগুন দেওয়া যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতের নাম আলামিন। তার বাবার নাম মনিরুজ্জামান। সায়দাবাদ বাস টার্মিনাল এলাকায় ভাসমান অবস্থায় বসবাস করেন আলামিন।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আলামিন স্বীকার করেন, তিনিসহ দু’জন সেই বাসে যাত্রী বেশে উঠেছিলেন। এক বিএনপি নেতার নির্দেশক্রমে বাসে আগুন ধরিয়ে দেন তিনি।

বুধবার দুপুরে মুগদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল মজিদ সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, বাসে আগুন দেওয়া যুবক প্রাথমিকভাবে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে বিএনপির এক নেতার নির্দেশক্রমে যাত্রীবেশে সে বাসে উঠে পেট্রোল ঢেলে গাড়িতে আগুন দেয়। তার অপরসঙ্গী ঘটনার পর পর পালিয়ে যায়। বিস্তারিত আরো তদন্ত করে দেখা হচ্ছে পালিয়ে যাওয়া মিজান নামে অপর এক যুবককে খোঁজা হচ্ছে।

এর আগে, বুধবার বেলা ১১টার দিকে মুগদা হাসপাতালের সামনে মিডলাইন পরিবহনের বাসটিতে আগুন দেওয়া হয়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দু’টি ইউনিট দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নেভালেও বাসটি পুরোপুরি পুড়ে যায়। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের অপারেটর জয়নাল গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুর্বৃত্তরা বাসের যাত্রীবেশে ছিলেন। বাসটি এসে হঠাৎ সড়কের ওপর ব্রেক করলে বাস থেকে কয়েকজন যাত্রী বের হয়ে ভাঙচুর শুরু করেন। এর মধ্যে ভেতরে আগুন ধরিয়ে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা।

অপরদিকে রামপুরায় পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করে যাত্রীবাহি বাসে আগুন দেওয়ার চেষ্টার ঘটনায় একজনকে আটক করেছে রামপুরা থানা পুলিশ। আটক যুবকের নামে রিপন।

রামপুরা থানার ওসি রফিকুল ইসলাম গণমাধ্যমকে জানান, দূর থেকে বাসে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করে পালানোর সময় বাসের সহকারী ও প্রত্যক্ষদর্শীদের সহযোগিতায় রিপনকে আটক করা হয়। এ সময় পালিয়ে যায় দুই সহযোগী। এ ব্যাপারে আইনানুগ পদক্ষেপ প্রক্রিয়াধীন।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর