Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১০ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ৯ জুলাই, ২০১৮ ২৩:১৬

অপচিকিৎসায় রোগীর মৃত্যু হলেও সাজা হয় না দায়ীদের

শাহজাদা মিয়া আজাদ, রংপুর

অপচিকিৎসায় রোগীর মৃত্যু হলেও সাজা হয় না দায়ীদের

রংপুরে বেসরকারি ক্লিনিক ও হাসপাতালগুলোতে অপচিকিৎসার শিকার হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। গত আট মাসে অপচিকিৎসায় তিন শিশুসহ চার রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এ সব ব্যাপারে মামলা হয়েছে। কিন্তু সংশ্লিষ্টরা রয়ে গেছেন ধরাছোঁয়ার বাইরে। আবার মামলা করায় ধর্মঘট ডেকে মানুষকে ভোগান্তিতে ফেলেন ক্লিনিক মালিক ও চিকিৎসকরা। রংপুরের সিভিল সার্জনের কার্যালয় ও রংপুর ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক মালিক সমিতি সূত্রে জানা গেছে, গত শনিবার বিকালে রংপুর আধুনিক হাসপাতালে অস্ত্রোপচারের পর অবহেলায় নাসিমা বেগম (৩০) নামে এক রোগীর মৃত্যু হয়। গত ২ জুলাই মেডিকেল মোড় এলাকায় সেন্ট্রাল ক্লিনিকে টনসিলে অস্ত্রোপচারের সময় মারা যায় ছয় বছর বয়সী সিয়াম। ২৪ এপ্রিল নগরীর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল এলাকায় জনসেবা ক্লিনিকে হার্নিয়া অস্ত্রোপচারের পর মারা যায় চার বছর বয়সী বাবু মিয়া। গত বছরের ৭ ডিসেম্বর নগরীর আর কে রোড ইসলামবাগ এলাকায় ভিআইপি জেনারেল হাসপাতালে অ্যাবডোমিনাল হার্নিয়া রোগে আক্রান্ত আড়াই বছর বয়সী শিশু মিফতা জাহান অস্ত্রোপচারের সময় মারা যায়। এসব ব্যাপারে রংপুর কেমিস্ট অ্যান্ড ড্রাগিস্ট সমিতির সাধারণ সম্পাদক খোন্দকার মারুফ ইলাহী বলেন, জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না বলেই মানুষ অপচিকিৎসার শিকার হচ্ছেন। রংপুর ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শামসুর রহমান কোয়েল বলেন, অপচিকিৎসা বেশি হচ্ছে অনুমোদনহীন ক্লিনিক ও হাসপাতালগুলোতে। জেলা বেসরকারি ক্লিনিক, হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার পরিদর্শন কমিটির সদস্য সচিব রংপুরের সিভিল সার্জন বলেন, রংপুরে বেসরকারি পর্যায়ে গড়ে ওঠা অবৈধ ক্লিনিক ও হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসা সেবার নামে অরাজকতা চলছে। কোতোয়ালি থানার ওসি বাবুল মিয়া বলেন, চিকিৎসকদের ধরলেই চিকিৎসা সেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়। তখন বৃহৎ জনগোষ্ঠী ভোগান্তিতে পড়ে।


আপনার মন্তব্য