শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১৩ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৩ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০

গরুর খামারিরা ‘লাম্পি স্কিন ডিজিজ’ আতঙ্কে

নওগাঁ প্রতিনিধি

গরুর খামারিরা ‘লাম্পি স্কিন ডিজিজ’ আতঙ্কে

নওগাঁর রাণীনগরে গবাদি পশুর ভাইরাসজনিত চর্মরোগ ‘লাম্পি স্কিন ডিজিজ’র প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। আতঙ্কে দিশাহারা হয়ে পড়েছেন খামারিরা। তারা বলছেন, এ রোগের সুনির্দিষ্ট প্রতিষেধক বা ভ্যাকসিন না থাকায় সংক্রমণ আরো বাড়ছে। ভয় না পেয়ে খামারিদের সচেতন হওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তারা। জানা যায়, এ বছরই বাংলাদেশে এ রোগটি প্রথম বারের মতো দেখা দেয়। এ রোগ মশা, মাছি, আটালি, আক্রান্ত পশুর লালা, নাক-চোখের ডিসচার্জ, ষাড়ের বীর্য, আক্রান্ত গরু-মহিষের দুধ এবং ব্যবহৃত ইনজেকশনের সিরিঞ্জের মাধ্যমে ছড়ায়। অনুকূল পরিবেশে এ ভাইরাস ছয় মাস পর্যন্ত জীবিত থাকে। ভাইরাসজনিত এ রোগে গবাদি পশু দুর্বল হয়ে ওজন কমে যায়, দুধ উৎপাদন হ্রাস পায় এবং চামড়ার গুণগতমান নষ্ট হয়। আক্রান্ত গবাদিপশুর শরীরে ১০৪-১০৬ ডিগ্রি তাপমাত্রা দেখা দেয় এবং গরু খাওয়া ছেড়ে দেয়। অনেক সময় বুকের নিচে পানি জমে ক্ষত সৃষ্টি হয়ে ক্ষতস্থান থেকে মাংস খুলে পড়ে। জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা উত্তম কুমার বলেন, ‘এখন পর্যন্ত এ রোগে কোথাও গরু মারা যাওয়ার খবর পাওয়া যায়নি। জনবল সংকট থাকা সত্ত্বেও আমার লোকজন আক্রান্ত এলাকায় গিয়ে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ ও কৃষক-খামারিদের পরামর্শ দিচ্ছে। এ রোগের সুনির্দিষ্ট কোনো ওষুধ ও ভ্যাকসিন আমাদের কাছে নেই।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর