শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২৩:২১

লালমাইয়ে রেলস্টেশন থাকলেও সেবা নেই

লালমাই প্রতিনিধি

লালমাইয়ে রেলস্টেশন থাকলেও সেবা নেই

কুমিল্লার লালমাইয়ে দুটি রেলস্টেশন থাকলেও সেবা বঞ্চিত হচ্ছেন এলাকাবাসী। রেল সেবার জন্য লালমাইবাসীকে কুমিল্লা বা লাকসাম জংশনের ওপর নির্ভর করতে হয়। এলাকাবাসী জানায়, লালমাই উপজেলায় ‘লালমাই’ ও ‘আলীশহর’ নামে দুটি রেলস্টেশন রয়েছে। এরপরও ট্রেনের সুবিধা পায় না এখানকার লোকজন। লালমাইয়ে যাত্রাবিরতি নেই রাজধানী ঢাকা ও বন্দরনগরী চট্টগ্রামের কোনো আন্তঃনগর ট্রেনের। আন্তঃনগর ট্রেনে ঢাকা এবং চট্টগ্রামে যাতায়াতের জন্য লালমাইবাসীকে কুমিল্লা বা লাকসাম জংশনের ওপর নির্ভর করতে হয়। জানা যায়, লালমাই স্টেশনে একজন স্টেশন মাস্টার, দুজন সহকারী স্টেশন মাস্টারসহ ১৫ জন স্টাফ রয়েছে। এরপরও এখান থেকে ট্রেনে যাত্রী এবং পণ্য ওঠা-নামা করা যাচ্ছে না। এলাকাবাসী লালমাই স্টেশনে আন্তঃনগর ট্রেনের যাত্রা বিরতির দাবি জানান। এতে বরুড়া উপজেলা, সদর দক্ষিণ উপজেলা এবং চাঁদপুর জেলার একাংশ উপকৃত হবেন বলে তারা জানান। পাশাপাশি বাড়বে রেলের আয়। আলীশহর স্টেশন দীর্ঘদিন বন্ধ থাকায় এখানকার মানুষও ট্রেনসুবিধা সেবা পুরোপুরি বঞ্চিত। লালমাই রেলস্টেশনে চট্টগ্রামগামী দুটি মেইল ট্রেন ডাউন ট্রিপে যাত্রাবিরতি দেয়। কিন্তু এর নির্ধারিত কোনো শিডিউল না থাকায় ভোগান্তিতে পড়েন যাত্রীরা। আর কুমিল্লা থেকে চাঁদপুর ও নোয়াখালীগামী ডেমু কমিউটার এখানে যাত্রাবিরতি করলেও এ দুটি ট্রেন নিয়মিত চলাচল করে না। এলাকাবাসী লালমাই উপজেলার এ দুটি স্টেশনে আন্তঃনগর ট্রেনের যাত্রাবিরতির দাবি জানান। রেলের পূর্বাঞ্চলের এডিজি (অপারেশন) মিয়া জাহান বলেন, ডবল লাইন চালু হলে এবং ট্রেন সংখ্যা বাড়লে আন্তঃনগর ট্রেনের যাত্রাবিরতি হতে পারে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর