শিরোনাম
বুধবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা

সংক্ষিপ্ত

হেফাজত বিএনপি-জামায়াত৭১-এর বর্বরতাকেও হার মানিয়েছে

- বি তাজুল ইসলাম এমপি

হেফাজতের হরতালের নামে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় যে বর্বরোচিত ঘটনা ঘটিয়েছে। এমন ধ্বংসাত্মক ঘটনা জাতি আগে কখনো দেখেনি। হরতালের নামে হেফাজতে ইসলাম ও বিএনপি-জামায়াত মিলে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় যে ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে তা একাত্তরের বর্বরতাকেও হার মানিয়েছে। জেলার গুরুত্বপূর্ণ অফিস-আদালত ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের মাধ্যমে তারা চেয়েছিল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সবকিছু ধ্বংস করে দিতে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৬ (বাঞ্ছারামপুর) আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ক্যাপ্টেন (অব.) এ বি তাজুল ইসলাম ব্রাহ্মণবাড়িয়া পরিদর্শনকালে গতকাল এসব কথা বলেন।

তিনি পরিদর্শন করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাব, সুরসম্রাট ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁ সংগীতাঙ্গল, পৌরসভা, ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁ পৌর মিলনায়তন, জেলা পরিষদ ভবন, জেলা পরিষদ ডাকবাংলো, সদর উপজেলা ভূমি অফিস, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকারের বাসভবন, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন শোভনের বাসভবন। এ সময় ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে খবর নেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনিসুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সফিকুল আলম এম.এস.সি, জেলা পরিষদ প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আমিনুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সাবেক পৌর মেয়র মো. হেলাল উদ্দিন, জেলা পরিষদ সচিব মেহের নিগার, পৌরসভার মেয়র নায়ার কবির, জেলা আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক তানজিল আহমেদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবের সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন জামি, সাধারণ সম্পাদক জাবেদ রহিম বিজন প্রমুখ। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের বিরোধিতা করে গত ২৬ মার্চ বিকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে  স্টেশনে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে হেফাজতে ইসলামের কর্মী-সমর্থকরা। এর ফলে গত ২৭ মার্চ থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়  রেলওয়ে স্টেশনে সব ট্রেনের যাত্রাবিরতি অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রয়েছে। উল্লেখ্য, গত ২৬ ও ২৮ মার্চ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমন বিরোধিতা করে হেফাজত ও তাদের সমর্থকরা হামলা চালিয়ে এ ধ্বংসযজ্ঞ চালায়।

-ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

বকেয়া দাবিতে বিক্ষোভ মহাসড়ক অবরোধ

গাজীপুরের টঙ্গী সাতাইশ রাজনগর এলাকায় গতকাল একটি পোশাক কারখানার শ্রমিকরা বকেয়া বেতন-ভাতা দাবিতে বিক্ষোভ ও মহাসড়ক অবরোধ করেছেন। এ সময় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়। পুলিশ লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। শ্রমিকদের অভিযোগ, পুলিশের লাঠিচার্জে তাদের পাঁচ সহকর্মী আহত হয়েছেন। কয়েকজন শ্রমিক জানান, কারখানা কর্তৃপক্ষ গত ফেব্রুয়ারি ও মার্চের বেতন দিই-দিচ্ছি বলে না দেওয়ার পাঁয়তারা করে আসছেন। সবশেষ ১০ এপ্রিল বকেয়া বেতন দেওয়ার কথা থাকলেও দেননি। কারখানার প্রশাসনিক কর্মকর্তা সজীব বলেন, ‘ফেব্রুয়ারির বেতন বকেয়া নেই। আমাদের একটু সমস্যার কারণে মার্চের বেতন দিতে সময় লাগছে।’

            -টঙ্গী প্রতিনিধি

বালুমহাল খুলে দেওয়ার দাবি

মামলা-মোকদ্দমা ও প্রশাসনিক জটিলতায় দুই বছর ধরে বন্ধ থাকা সুনামগঞ্জ জেলার বৃহৎ কর্মস্থল যাদুকাটা বালু মহাল খুলে দেওয়ার দাবিতে মানববন্ধন করেছেন বেকার বারকি শ্রমিক ও ব্যবসায়ীরা। গতকাল তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের গড়কাটি এলাকায় যাদুকাটা বালু ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি ও যাদুকাটা শ্রমিক সমবায় সমিতির যৌথ উদ্যোগে এ কর্মসূচি পালিত হয়। মানববন্ধন চলাকালে বক্তারা বলেন, তাহিরপুর অঞ্চলের লক্ষাধিক মানুষ বংশ পরম্পরায় যাদুকাটা নদী থেকে বালু আহরণের পর বিক্রি করে  জীবন-জীবিকা নির্বাহ করে আসছেন। করোনাকালীন এই দুর্দিনে মামলা-মোকদ্দমা ও প্রশাসনিক জটিলতার কারণে দুই বছর ধরে নদীতে বালু উত্তোলন বন্ধ রয়েছে।

উপার্জনের বিকল্প পথ না থাকায় পরিবার-পরিজন নিয়ে বহু কষ্টে দিনাতিপাত করছেন তারা। পরিবারের ভরণপোষণ ও  সন্তানদের লেখাপড়া চালানো দুঃসাধ্য হয়ে পড়েছে তাদের। বক্তাদের অভিযোগ, একটি স্বার্থান্বেষী মহল সরকারকে রাজস্ব না দিয়ে যাদুকাটা নদী থেকে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করার দীর্ঘমেয়াদী ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে  মামলা-মোকদ্দমার বেড়াজাল ও প্রশাসনিক জটিলতা সৃষ্টি করে মহালটি বন্ধ রেখে ফায়দা হাসিল করে চলছে। তাদের এই ষড়যন্ত্রের কারণে করোনাকালীন দুর্দিনে কর্মসংস্থান না থাকায় স্থানীয় শ্রমিক ও ব্যবসায়ীরা দিশাহারা হয়ে পড়েছেন। সাধারণ শ্রমিক ও ব্যবসায়ীদের জীবন বাঁচাতে যাদুকাটা বালু মহাল খুলে দেওয়ার ক্ষেত্রে সবধরনের প্রতিবন্ধকতা দূর করতে সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোর প্রতি আহ্বান জানান শ্রমিক ও ব্যবসায়ীরা। অন্যথায় এই অঞ্চলে ভয়াবহ মানবিক বিপর্যয় নেমে আসার আশঙ্কা প্রকাশ করেন তারা।

-সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

এই রকম আরও টপিক

সর্বশেষ খবর