শিরোনাম
বৃহস্পতিবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ টা

ভাঙনে হারিয়ে যাচ্ছে পথ

রাহাত খান, বরিশাল

ভাঙনে হারিয়ে যাচ্ছে পথ

বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার ক্ষুদ্রকাঠী এলাকায় সুগন্ধা নদীর ভাঙ্গনে একটি গুরুত্বপূর্ণ সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। সরাসরি সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ায় বাহেরচর এলাকার বাবুগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোগী পরিবহন বন্ধ রয়েছে। স্থানীয় মানুষ নদীগর্ভে বিলীন সড়কের পাশের নালাজমি দিয়ে কোনোমতে পায়ে হেঁটে চলাচল করছেন। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন ওই সড়কে চলাচলকারীরা। এদিকে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক এমপি দ্রুত ওই এলাকায় নদী ভাঙ্গন রোধে জরুরিভিত্তিতে জিও ব্যাগ ফেলার নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন বরিশাল পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী দীপক রঞ্জন দাশ। স্থানীয় বাসিন্দা শাহজাহান হাওলাদার জানান, বাবুগঞ্জের রাকুদিয়া-আবুল কালাম ডিগ্রি কলেজ-বাহেরচর-চরসাধুকাঠী মাদ্রাসা-লাশঘাটা পর্যন্ত পাকা সড়কটি ৮ কিলোমিটার দীর্ঘ। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ (এলজিইডি) ওই সড়কের রক্ষণাবেক্ষণ করে। এর আগেও ওই সড়কের ক্ষুদ্রকাঠী অংশ নদী ভাঙ্গন কবলিত হলে পানি উন্নয়ন বোর্ড জিও ব্যাগ ফেলে জরুরিভিত্তিতে ভাঙ্গন রোধ করে। সব শেষ গত শুক্রবার বিকালে এবং শনিবার সকালে দুই দফায় ওই সড়কের অন্তত ৫০০ ফুট জায়গা নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। সড়কের আংশিক নদীগর্ভে চলে যাওয়ায় যে কোনো যানবাহনে বাবুগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ কেদারপুর ও জাহাঙ্গীরনগর ইউনিয়নের অর্ধ লক্ষাধিক মানুষের সরাসরি সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। ওই সড়কের পথচারী আবুল হোসেন জানান, সড়কের একাংশ নদীগর্ভে চলে যাওয়ার পর ওই এলাকা দিয়ে যাতায়ত বন্ধ। জরুরি প্রয়োজনে মানুষ পাশের নালা জমি দিয়ে পায়ে হেঁটে চলাচল করছেন। কিন্তু কোনো যানবাহন চলাচল করতে পারছে না। স্থানীয় দেহেরগতি ইউপি চেয়ারম্যান মো. মশিউর রহমান বলেন, এর আগে সুগন্ধা নদীর ক্ষুদ্রকাঠী এলাকায় ভাঙ্গন রোধে জরুরিভিত্তিতে জিওব্যাগ ফেলে পানি উন্নয়ন বোর্ড। কিন্তু এতে শেষ রক্ষা হয়নি। তিনি সুগন্ধা নদীর ভাঙ্গনের কবল থেকে ওই এলাকা রক্ষায় স্থায়ীভাবে তীর সংরক্ষণের দাবি জানান। বরিশাল পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী দীপক রঞ্জন দাশ বলেন, সুগন্ধা নদীর ক্ষুদ্রকাঠী এলাকায় এর আগেও জিওব্যাগ ফেলা হয়েছে।

এই রকম আরও টপিক