Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ মার্চ, ২০১৯ ১৬:১৯

কিশোরগঞ্জে নৌকায় ভোট দেওয়ায় বাড়িঘরে হামলা, আহত ১০

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি:

কিশোরগঞ্জে নৌকায় ভোট দেওয়ায় বাড়িঘরে হামলা, আহত ১০

নৌকায় ভোট দেওয়ায় কিশোরগঞ্জে বেশ কিছু বাড়িঘরে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ সকালে শহরের গাইটাল ডুবাইল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। সন্ত্রাসীরা রামদা, রড, লাঠিসোটাসহ বিভিন্ন দেশিয় অস্ত্র নিয়ে বাড়িঘরে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাট চালায় বলে স্থানীয়দের অভিযোগ। এতে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। এর প্রতিবাদে এলাকাবাসী ঘণ্টাব্যাপী গাইটাল এলাকায় সড়ক অবরোধ করে রাখেন। পরে পুলিশ গিয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

গাইটাল ডুবাইল এলাকার খায়রুল ইসলাম ও ইকরামসহ অনেকেই অভিযোগ করেন, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকায় ভোট দেওয়ায় বিএনপি নেতা শহীদ চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে তাদের ওপর হামলা চালানো হয়। আজিজুল হাকিমের স্ত্রী সুফিয়া জানান, সন্ত্রাসীরা শুধু হামলাই করেনি, তার ঘর থেকে স্বর্ণালংকার, মোবাইল সেটসহ আরও অনেক কিছু লুটপাট করে নিয়ে গেছে। সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে অন্তত ১০ জনকে জখম করে বলেও তারা অভিযোগ করেন। হামলায় আহত শিরিন আক্তার নামে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে। আহতদেরকে কিশোরগঞ্জ ও ময়মনসিংহ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

ঘটনার প্রতিবাদে এলাকাবাসী গাইটাল এলাকায় কিশোরগঞ্জ-ময়মনসিংহ সড়ক প্রায় ঘণ্টাব্যাপী অবরোধ করে রাখে। এ সময় সড়কে আগুন দিয়ে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা হয়। পরে পুলিশ গিয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। এলাকাবাসী এ ঘটনার জন্য সদর উপজেলার লতিবাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা শহীদুল ইসলামকে দায়ী করে তার বিচার দাবি করেছেন। তারা এ সময় শহীদ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগানও দেয়।

তবে লতিবাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, আমরা নির্বাচনে যাইনি, কাউকে সমর্থনও করিনি। গাইটাল নামাপাড়া ও ডুবাইল এলাকার ছোট ছেলেদের ঝগড়াকে কেন্দ্র করে ঘটনাটি ঘটেছে বলে তিনি দাবি করেন।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত পুলিশের পরিদর্শক মিজানুর রহমান হামলায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিয়ে বলেন, কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

 

বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য