শিরোনাম
প্রকাশ : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৮:২০
আপডেট : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৮:২৮
প্রিন্ট করুন printer

নাম বদলানোর পরেও বিপাকে সালমান!

অনলাইন ডেস্ক

নাম বদলানোর পরেও বিপাকে সালমান!
ফাইল ছবি

নাম বদলানোর পরেও বিপদ কাটলো না সালমান খানের৷আয়ুশ শর্মা এবং ওয়ারিনা হুসাইনের ডেবিউ ছবি ‘লাভরাত্রি’ নিয়ে বিপাক বেড়েছে। ছবিটির নাম পরিবর্তন করে ‘লাভযাত্রি’ রাখা হলেও সেই বিপাক কাটেনি৷‘হিন্দু আউটফিট’ নামের এক সংগঠন বুধবার গুজরাট হাইকোর্টে আবেদন জানিয়েছে যে ‘লাভযাত্রি’ টাইটেলটিও তাদের কাছে গ্রহণযোগ্য নয়৷ এখনও টাইটেলটির সঙ্গে নবরাত্রির মিল রয়েছে৷

গত বুধবার সালমানসহ আরও সাতজন অভিনেতার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়, মামলা গড়িয়েছে মুজফফরপুর আদালত পর্যন্ত৷ অভিযোগকারী এক আইনজীবী সুধির ওঝা৷ তাঁর অভিযোগ আসন্ন ছবি ‘লাভরাত্রি’ টাইটেলটি হিন্দুদের ভাবাবেগে আঘাত করেছে৷

মুজফফরপুরের সাব-ডিভিশনাল জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শৈলেন্দ্র রাইয়ের কাছে আবেদন জমা পড়ে৷ তিনি সেই আবেদন বুধবার মঞ্জুর করেন৷ তারপরই মিঠানপুর থানায় সালমান এবং ছবির দুই অভিনেতা আয়ুশ শর্মা (সালমানের ভগ্নিপতি) এবং অভিনেত্রী ওয়ারিনা হুসেনের বিরুদ্ধে এফআইআরটি রেজিস্টার্ড হয়৷ ৬ সেপ্টেম্বর সুধির ওঝা আবেদনটি আদালতে জানিয়ে বলেছিলেন 'নবরাত্রি' ছবিতে উৎসবের নামে অশ্লীলতা দেখানো হয়েছে৷

ভারতীয় দণ্ডবিধি অনুযায়ী, ২৯৫, ২৯৮, ১৫৩, ১৫৩(B), ১২০ ধারায় অভিযোগটি দায়ের হয়েছে৷ ছবিটির টিজার মুক্তি পাওয়ার আগেই কন্ট্রোভার্সির মধ্যে পড়েছিলেন সালমান খান৷ বিশ্ব হিন্দু পরিষদ সালমানকে হুমকি দিয়েছিলেন ছবির নামকরণের জন্য৷ তাঁদের মতে নবরাত্রি উৎসবকে অপমান করা হয়েছে৷

ছবির নাম ‘লাভরাত্রি’ দেওয়া উচিত হয়নি৷ এমনকি তাঁরা এও ঘোষণা করেছিলেন, যে ব্যক্তি সালমানকে প্রকাশ্যে চড় মারতে পারবে তাকে ৫ লাখ টাকা পুরস্কার দেওয়া হবে৷ আর যে সিনেমার সেটকে নষ্ট করবে তাকে ২ লক্ষ টাকা পুরস্কার দেওয়া হবে৷

এদিকে ছবির টাইটেল একবার বদলানোর পর দ্বিতীয়বার বদলানো হবে কিনা সে বিষয় ছবির নির্মাতারা এখনও কিছু জানাননি৷ সালমান, আয়ুশ এবং ওয়ারিনা কেউই এ বিষয় কোনও মন্তব্য করেননি৷ আগামী ৫ অক্টোবর মুক্তি পাওয়ার কথা ছবিটির৷

বিডি প্রতিদিন/১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮/হিমেল


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:২০
আপডেট : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:৫১
প্রিন্ট করুন printer

সমালোচনার মুখে ক্ষমা চাইলেন প্রসেনজিৎ

অনলাইন ডেস্ক

সমালোচনার মুখে ক্ষমা চাইলেন প্রসেনজিৎ
ফাইল ছবি

সোমবার (২৫ জানুয়ারি) ছিল মাইকেল মধুসুদন দত্তের জন্মদিন। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই নিয়ে কোনও উচ্ছ্বাস না থাকলেও মনে রেখেছিলেন প্রসেনজিৎ। মাইকেলের জন্মদিনে তাকে শ্রদ্ধা জানিয়ে পোস্ট করেছিলেন টলিউড সুপারস্টার। আর তাতেই ভুল হয়ে যায়। 

মাইকেল মধুসুদন দত্তের বদলে ভুল করে উপেন্দ্রকিশোর রায় চৌধুরীর ছবি পোস্ট করে ফেলেন অভিনেতা। তিনি লিখেছিলেন, বাংলা সাহিত্যের বিশেষ করে রেনেসাঁস সময়ের অন্যতম কবি নাট্যকার, প্রহসন রচয়িতা মাইকেল মধুসুদন দত্ত। যার শ্রেষ্ঠ কাজগুলির মধ্যে সনেট এবং অমিত্রাক্ষর ছন্দের প্রবর্তন আমাদের মাতৃভাষাকে করে তুলেছে আরও সমৃদ্ধ। সেই মহামানবের জন্মবার্ষিকীতে আমি আমার সশ্রদ্ধ সম্মান জানাই।

আর এরপরেই নেটিজেনদের একাংশ তীব্র সমালোচনা শুরু করে দেন। ভুল বুঝতে পেরেই ক্ষমা চেয়ে নেন প্রসেনজিৎ। তিনি লেখেন, আগের পোস্টে ভুলের জন্য ক্ষমাপ্রার্থী। সেই সঙ্গে ছবিটিও বদলে মধুসুদন দত্তের ছবি পোস্ট করেন অভিনেতা।  

যদি ক্ষমা চাওয়ার পরেও নিন্দুকেরা থামেননি। নানান কথা টেনে কটাক্ষ করতে থাকেন। কেউ লেখেন, যদি নাই চিনতেন, তাহলে লোক দেখানো শুভেচ্ছা জানানোর মানে হয় না। কেউ আবার 'বাংলার আলিয়া ভাট' বলে কটাক্ষ করেন। তবে অনেকেই আবার প্রসেনজিৎয়ের হয়ে সরব হয়েছেন। কেউ লিখেছেন, ভদ্রলোক বলেই ক্ষমা চেয়েছেন।  কারোর কথায়, 'ভুল মানুষ মাত্রই হয়'। 
‌ 

বিডী-প্রতিদিন/সিফাত আব্দুল্লাহ


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:২০
প্রিন্ট করুন printer

ভালোবাসা দিবসে সিএনজি চালকের গল্প

অপূর্ব-সাবিলা যেভাবে ‘টিপু সুলতানা’!

অনলাইন ডেস্ক

অপূর্ব-সাবিলা যেভাবে ‘টিপু সুলতানা’!

বিশ্ব ভালোবাসা দিবসকে ঘিরে অপূর্ব-সাবিলা নূরকে জুটি করে সম্প্রতি শেষ হলো একটি বিশেষ নাটকের শুটিং। নাম ‘টিপু সুলতানা’!

লক্ষ্য করবেন, টিপু সুলতান নয়- টিপু সুলতানা। যার সঙ্গে ব্রিটিশ ভারতের বীর যোদ্ধা কিংবা শাসক টিপু সুলতানের কোনও যোগসূত্র নেই। এটি একেবারেই আলাদা গল্পের একটি বিশেষ নির্মাণ।

সিএমভি’র ব্যানারে এটির চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেছেন মহিদুল মহিম। যিনি সম্প্রতি বেশ আলোচনায় এসেছেন আফরান নিশো ও মেহজাবীন চৌধুরীকে নিয়ে ‘শিল্পী’ নির্মাণ করে।

‘টিপু সুলতানা’র গল্প প্রসঙ্গে মহিদুল মহিম জানান, নাটকের কেন্দ্রীয় চরিত্র টিপু একজন সিএনজি ড্রাইভার। গল্পের নায়িকা সুলতানা গ্যারেজের মহাজনের মেয়ে হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। নাম রিনা হলেও নিজেকে অতি সুন্দরী হিসেবে ভেবে নিজেকে নায়িকা কারিনা দাবি করেন!

অন্যদিকে ড্রাইভার টিপু একজন রাগী প্রকৃতির। যাত্রীদের সাথে তিনি সবসময় রেগে কথা বলেন। যার কারণে সবসময় ঝগড়াঝাঁটি লেগেই থাকে। অপরদিকে সিএনজি গ্যারেজে টাকা জমা দেওয়া নিয়ে দায়িত্বরত সুলতানার সাথে টিপুর ঝগড়া চলতেই থাকে।

নির্মাতা মহিম বলেন, ‘গল্পের একপর্যায়ে একদিন ড্রাইভার টিপু গভীর রাতে একটি প্রেগন্যান্ট নারীকে সিএনজিতে তুলতে অস্বীকার করেন। এখান থেকেই মজার গল্পটি বাঁক নেয় সিরিয়াস দিকে। আমি আসলে বরাবরই নাটকের শেষে দর্শকদের একটি সিরিয়াস বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করি। এখানেই তাই আছে।’

এতে টিপু চরিত্রে অপূর্ব আর সুলতানা চরিত্রে অভিনয় করেছেন সাবিলা নূর। 

প্রযোজক এসকে সাহেদ আলী পাপ্পু জানান, বড় বাজেটের এই ভ্যালেন্টাইন স্পেশাল নাটকটি ফেব্রুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহে উন্মুক্ত হবে সিএমভি’র ইউটিউব চ্যানেলে।

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:০৫
আপডেট : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ২০:২১
প্রিন্ট করুন printer

যে কারণে ত্বক ফর্সা করার বিজ্ঞাপন থেকে সরে দাঁড়ান প্রিয়াঙ্কা

অনলাইন ডেস্ক

যে কারণে ত্বক ফর্সা করার বিজ্ঞাপন থেকে সরে দাঁড়ান প্রিয়াঙ্কা
প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। ফাইল ছবি

ত্বক ফর্সা করার ক্রিমের বিজ্ঞাপন করাকে নিজের অন্যতম ভুল সিদ্ধান্ত বলে মনে করেন অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। ফেয়ারনেস ক্রিমের বিজ্ঞাপনে কাজ করার জন্য আফসোস করেন অভিনেত্রী। হলিউডে পা রাখার পর থেকেই মূলত অভিনেত্রী এই ধরনের বিজ্ঞাপনে কাজ করা বন্ধ করে দেন। 

প্রিয়াঙ্কা বলেন, ভারতীয় অভিনেতা-অভিনেত্রীদের কাছে এটা খুবই সাধারণ বিষয় ফেয়ারনেস ক্রিমের বিজ্ঞাপন করা। সেই সম্পর্কে তিনি তার বই ‘আনফিনিসড’এ লিখেছেন। 

অভিনেত্রী বলেন, দক্ষিণ এশিয়ায় ফর্সা হতে চাওয়াটা খুব স্বাভাবিক বিষয়; যেখানে একটি বড় অঙ্কের মানুষ ফর্সা হতে চান। পাশাপাশি অভিনেত্রীদের ক্ষেত্রে মুখে দাগ থাকলেও তা অস্বস্তিকর। 

তিনি জানান, গায়ের রং কালো হওয়ার দরুন ফর্সা হওয়ার জন্য মুখে ট্যালকম পাউডার মাখতেন তিনি। 

২০১৫ সালে সাংবাদিক বরখা দত্তকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী জানান, নিজে থেকে বুঝতে পেরেই খারাপ অনুভূতির জেরে ফেয়ারনেস ক্রিমের বিজ্ঞাপন থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেন তিনি। আরও যোগ করেন, তার অন্য তুতো ভাইবোনরা প্রত্যেকে ফর্সা ছিলেন। তবে তার গায়ের রঙ বাবার মতো শ্যামলা। তাই পাঞ্জাবি পরিবারের সকলে মজা করেই তাকে ‘কালী’ নামে ডাকত। সেই কারণে ১৩ বছর বয়স থেকে গায়ের রঙ বদলের জন্য মুখে ফেয়ারনেস ক্রিম মাখতে শুরু করেন তিনি। কিশোরী বয়সে মার্কিন মুলুকে পড়াশোনা করতে গিয়েও বর্ণবিদ্বেষের শিকার হন প্রিয়াঙ্কা। এর জেরে পালিয়ে এসেছিলেন সেই দেশ থেকে। 

৯ ফেব্রুয়ারি, মুক্তি পাচ্ছে প্রিয়াঙ্কার আত্মজীবনী ‘আনফিনিসড’। বইতে অভিনেত্রীর ছোটবেলা থেকে শুরু করে, পাঠকদের কাছে তার জীবনীর নানা মুহূর্ত তুলে ধরবেন অভিনেত্রী।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৬:১৯
প্রিন্ট করুন printer

সিনেমা ‌‘পাঞ্চ’র আরেকটি গান রেকর্ড

অনলাইন ডেস্ক

সিনেমা ‌‘পাঞ্চ’র আরেকটি গান রেকর্ড

কৌশিক শংকর দাশের পরিচালনায় নির্মাণাধীন সিনেমা ‌‘পাঞ্চ’ এর আরেকটি গান রেকর্ড হলো কিছুদিন আগে। নকীব খানের সুরে ও শহীদ মাহমুদ জংগীর কথায় রোমান্টিক এই গানে কণ্ঠ দিয়েছেন তরুণ প্রজন্মের দুই শিল্পী নন্দিতা ও রিতুরাজ। 

গানের প্রথম দুইটি লাইন - ‘তুমি কাছে এলে একমুঠো রোদ্দুর খেলে, তুমি ভালোবাসি বললে চারিদিক হয় ঝলমলে’। সিনেমায় এই গানে ঠোঁট মেলাবেন নিলয় আলমগীর ও মেঘলা মুক্তা। 

কিছুদিন আগে নকীব খানের সুরে এই সিনেমার আরেকটি গান রেকর্ড হয়েছিল সামিনা চৌধুরীর কণ্ঠে। পরিচালক আশা প্রকাশ করলেন যে, আগামী মার্চের মাঝামাঝি থেকে আবার শুটিং শুরু করতে পারবেন। 

গত বছর মার্চ মাসে ৮ দিন শুটিং করার পর করোনা মহামারির কারণে বন্ধ হয়ে যায়। জিরো আওয়ার ফিল্মসের ব্যানারে পাঞ্চ এর সংলাপ ও চিত্রনাট্য লিখেছেন কৌশিক শংকর দাশ ও মোমিনুল হক।

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৬:০৬
প্রিন্ট করুন printer

আরটিভিতে জোভান-ফারিনের ‘গহনা’

অনলাইন ডেস্ক

আরটিভিতে জোভান-ফারিনের ‘গহনা’

টিভি নাটকের প্রযোজনায় কোমর বেঁধে নেমেছে ‌‘সরকার মিডিয়া’। তাদের অফিশিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে একের পর এক কনটেন্ট সাড়া জাগাচ্ছে। সেই ধারাবাহিকতায় সরকার মিডিয়ার প্রযোজনায় নির্মিত হয়েছে নাটক ‘গহনা’। 

আরিফুল ইসলাম স্বপনের গল্প এবং অপূর্ণ রুবেলের রচনায় নাটকটি পরিচালনা করেছেন হুমায়ুন রশিদ সম্রাট। পছন্দের গহনা, সংকট, সম্ভাবনা, পরিবার ও ভালোবাসার অদ্ভুত টানাপোড়েনের এই গল্পে অভিনয় করেছেন ফারহান আহমেদ জোভান ও তাসনিয়া ফারিন। 

জোভান-ফারিন ছাড়াও নাটকটিতে অভিনয় করেছেন সাবেরী আলম, জাকির হোসেন রাসেল, আফরোজা শশী, তৃণা, তিতলী পাপিয়া, হ্যাপি, আরাবী প্রমুখ। 

গহনার নির্বাহী প্রযোজক শাহেদ চৌধুরী। এইচ এম জামানের সিনেমাটোগ্রাফিতে এর সম্পাদনা ও রঙ বিন্যাস করেছেন রমজান আলী। নাটকটি বৃহস্পতিবার রাত  ৮টায় আরটিভিতে প্রচারিত হবে। একই দিনে রাত ৯টায় সরকার মিডিয়ার অফিশিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে অবমুক্ত হবে।

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর