শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২১ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২০ জানুয়ারি, ২০২০ ২৩:৪৪

বিএনপি নির্বাচনকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছে : ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিএনপি নির্বাচনকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছে : ফখরুল

জনগণকে গণতান্ত্রিক আন্দোলনের পক্ষে নিতেই বিএনপি সিটি নির্বাচনে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গতকাল সকালে মিরপুরের ৭ নম্বর ওয়ার্ডে ধানের শীষের প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিয়ে তিনি এ কথা বলেন। মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এই নির্বাচনকে আমরা আমাদের দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও গণতন্ত্রের মুক্তির জন্য একটা চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছি।  জনগণকে এখানে সম্পৃক্ত করার আন্দোলন হিসেবে আমরা নিয়েছি। এই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে বিএনপি জনগণকে সংগঠিত করে গণতান্ত্রিক আন্দোলনের পক্ষে নিয়ে যেতে চায়।’ সকাল সাড়ে ১০টায় মিরপুরের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের বাইতুল  মোশাররফ জামে মসজিদের কাছ থেকে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে ধানের শীষের প্রার্থী তাবিথ আউয়ালকে নিয়ে ভোটের প্রচারণা শুরু করেন বিএনপি মহাসচিব। গণসংযোগে বিভিন্ন সময় যোগ দেন জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান, কেন্দ্রীয় নেতা সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, হাবিবুর রহমান হাবিব, কামরুজ্জামান রতন, যুবদলের মামুন হাসান, স্বেচ্ছাসেবক দলের ইয়াসীন আলী, মহিলা দলের সুলতানা আহমেদ, ঘুড়ি মার্কায় দলের কাউন্সিলর প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন দুলু প্রমুখ। তাবিথের বিজয়ের ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ধানের শীষের গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। আমরা মনে করি, অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন হলে অবশ্যই তাবিথ আউয়াল বিপুল ভোটে বিজয়ী হবেন। জনগণের উত্তাল তরঙ্গের মধ্যে সমন্ত ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত ব্যর্থ করে ধানের শীষ জয়ী হবে ইনশা আল্লাহ।’ বর্তমান নির্বাচন কমিশনের সমালোচনা করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, এই নির্বাচন কমিশন এখন পর্যন্ত তাদের যে দায়িত্ব তা সুচারুরূপে পালন করতে পারেনি। নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন তাদের অযোগ্যতার আরেকটা প্রমাণ। তাদের দেখা উচিত ছিল, এই তারিখের সঙ্গে সরস্বতী পূজার বিষয়টা সম্পর্কিত। এই কমিশন অযোগ্য। তারা কখনই সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন পরিচালনা করতে পারেনি। জাতীয় নির্বাচনে তারা একই ঘটনা ঘটিয়েছিল। মির্জা ফখরুল রাস্তার দুই ধারের মানুষকে ধানের শীষের লিফলেট দেন এবং ভোটের দিন সবাইকে কেন্দ্রে যাওয়ার অনুরোধ করেন। তাবিথও ফুটপাথে দাঁড়িয়ে থাকা ভোটারদের কাছে গিয়ে লিফলেট দেন এবং দোয়া চান। বিএনপি মহাসচিব ৪৫ মিনিট নির্বাচনী প্রচারণা চালানোর পর দলের কার্যালয়ের উদ্দেশে রওনা দেন। তবে মহাসচিবকে বিদায় দিয়ে নেতা-কর্মীদের নিয়ে প্রচারণা অব্যাহত রাখেন তাবিথ আউয়াল।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর