Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৪ মার্চ, ২০১৯ ০৬:১৯

মোজাম্বিকে ঘূর্ণিঝড়ে মৃতের সংখ্যা ৬০০ ছাড়িয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক

মোজাম্বিকে ঘূর্ণিঝড়ে মৃতের সংখ্যা ৬০০ ছাড়িয়েছে

আফ্রিকার দক্ষিণাঞ্চলীয় দেশ মোজাম্বিকে ১৭৭ কিলোমিটার গতিতে আঘাত হানা ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড়ে শত শত মানুষ নিহত হয়েছেন। উদ্ধার ও ত্রাণকর্মীরা দুর্গতদের সহায়তার জন্য রাতদিন আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এদিকে, মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬০০। সেই সঙ্গে বেড়েছে কলেরার আতঙ্কও। 

মোজাম্বিকের বন্দর-শহর বেইরার উপর দিয়ে গত সপ্তাহে বয়ে যায় ইদাই। পরে জিম্বাবুয়ে ও মালাউইয়ের দিকে সরে যায় সেটি। দেশটির ভূমি ও পরিবেশ বিষয়কমন্ত্রী সেলসো করেইয়া জানান, 'আগের চেয়ে পরিস্থিতির উন্নতি হলেও এখনও অবস্থা গুরুতর। ইদাইয়ের জেরে বৃষ্টিতে ভেসে গিয়েছে বুজি ও পাংগ্বি নদী। বিপদসীমার উপর দিয়ে বইছে জাম্বেজি নদীও। ফের বাঁধ ভাঙারও আশঙ্কা করছে জাতিসংঘের বিশেষজ্ঞদল। তাদের দাবি, বন্যার পানি নামা পর্যন্ত অপেক্ষা করা ছাড়া অন্য কোনও উপায় নেই। 

এদিকে, বন্যার জেরে বেড়েছে কলেরার প্রকোপও। শুক্রবার পর্যন্ত পাওয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, বেইরাতেই অন্তত ৫০ হাজার জন কলেরায় আক্রান্ত হয়েছেন। বন্যার জেরে জমা নোংরা পানির কারণে কলেরার প্রকোপ আরও বাড়তে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। বৃষ্টি ও বন্যার ফলে শৌচ-ব্যবস্থা বিঘ্নিত হওয়ায় কলেরার জীবাণু আরও তাড়াতাড়ি ছড়াচ্ছে। 

দেশটির প্রেসিডেন্ট ফিলিপ নিউসি বলেছেন, গত বৃহস্পতিবার আঘাত হানা ‘সাইক্লোন আইডাই’তে নিহতের সংখ্যা এক হাজার ছাড়িয়ে যেতে পারে। খবর পার্সটুডে।

ঘূর্ণিঝড় আইডাই গত বৃহস্পতিবার মোজাম্বিকের বন্দরনগরী বেইরা’তে আঘাত হানলেও উদ্ধারকারী দলগুলো তিনদিন পর সেখানে পৌঁছাতে সক্ষম হয়। উদ্ধারকারীরা যখন পৌঁছেন তখনও সেখানে জোরেসোরে বাতাস বইছিল এবং নদীগুলোর পানি দুই কূল উপচে পড়ছিল।

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার


আপনার মন্তব্য