শিরোনাম
প্রকাশ : ১ মে, ২০২১ ০৬:৫৫
প্রিন্ট করুন printer

স্ত্রীকে খুন করে গোয়ালে ফেলে রেখেছিলেন, দুর্গন্ধ ছড়াতেই কুকীর্তি ফাঁস

অনলাইন ডেস্ক


স্ত্রীকে খুন করে গোয়ালে ফেলে রেখেছিলেন, দুর্গন্ধ ছড়াতেই কুকীর্তি ফাঁস
নিহত তরুণী ফুলকলি খাতুন।
Google News

স্ত্রীকে খুন করে মৃতদেহ লুকিয়ে রেখেছিল স্বামী। ভেবেছিল সময় মতো সেই দেহ সরিয়ে ফেলবে। কিন্তু দেহ পচে দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়ায় ফাঁস হয়ে যায় তার কুকীর্তি। ভারতের পূর্ব বর্ধমান জেলার মন্তেশ্বর থানার কাইগ্রামের এ ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় তার স্বামী বাবু শেখকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি পুলিশের কাছে স্ত্রীকে হত্যার কথা শিকার করেছেন। শুক্রবার তাকে আদালতে পেশ করার পর জেরার জন্য হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ।

মৃত নারীর নাম ফুলকলি খাতুন। বয়স ১৮। ফুলকলির পরিবারের অভিযোগ, ভালবেসে বিয়ে করলেও মেয়ের দাম্পত্য জীবন সুখের ছিল না। প্রায়শই তার কাছ থেকে টাকা চাইত বাবু। এই নিয়ে অশান্তিও লেগে থাকত।

বৃহস্পতিবারও ফুলকলি বাড়িতে অশান্তি করে চলে গেছে বলে জানায় বাবু। এমনকি ফুলকলির পরিবার তার খোঁজ করলে বাইক নিয়ে স্ত্রীকে খুঁজতেও বের হয় সে। পরে জানা যায়, স্ত্রীকে খুন করে তার দেহ বস্তায় মুড়ে একদিন আগেই বাড়ির গোয়াল ঘরের মাচায় তুলে রেখেছিল সে।

পুলিশ জানিয়েছে, সুযোগ বুঝে দেহটি সরিয়ে ফেলার পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু হঠাৎ-ই বৃহস্পতিবার রাত থেকে মৃতদেহ পচে দুর্গন্ধ বের হতে শুরু করলে সেই পরিকল্পনা ভেস্তে যায়। দুর্গন্ধে প্রতিবেশীদের সন্দেহ হওয়ায় তারাই থানায় খবর দেয়। পুলিশ এসে উদ্ধার করে বস্তাবন্দি মৃতদেহ।

শুক্রবার সেই দেহের ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ মর্গে। পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে। শুক্রবার তাকে কালনার আদালতে তোলা হয়। আপাতত খুনের মামলায় তাকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

কাইগ্রামের পাশাপাশি পাড়াতেই বাড়ি বাবু এবং তার স্ত্রী ফুলকলির। তিন মাস আগে তাদের বিয়ে হয়। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে হঠাৎ-ই বাবু বলতে শুরু করে, ফুলকলি অশান্তি করে বাড়ি থেকে বেরিয়ে গেছে। খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। এমনকি বাইক নিয়ে স্ত্রীকে খুঁজতেও বের হন বাবু। কোহিনুর জানিয়েছেন, ঘুণাক্ষরেও টের পাননি মেয়েকে খুন করে বস্তায় ভরে গোয়ালের মাচায় তুলে রেখেছে জামাই।

সূত্র : আনন্দবাজার

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর