শিরোনাম
প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:০৮
প্রিন্ট করুন printer

চসিক নির্বাচন

‘আওয়ামী লীগ মনে করে জনগণই সকল ক্ষমতার উৎস’

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

‘আওয়ামী লীগ মনে করে জনগণই সকল ক্ষমতার উৎস’
ফাইল ছবি

‘আওয়ামী লীগ মনে করে জনগণই সকল ক্ষমতার উৎস, বন্দুকের নল নয় জানিয়ে চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন বলেছেন, সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য বিএনপির চক্রান্ত জনগণ ভুল করে দেবেন। আমরা জনগণের ক্ষমতায় বিশ্বাস করি। আওয়ামী লীগ জনগণের ভোটেই বারবার ক্ষমতায় এসেছে, বন্দুকের নল বা মধ্যরাতের ভোটে আসেনি।

তিনি বলেন, চসিক নির্বাচনেও আমরা মনে করি, ভোটাররা ভোট দিলে জিতব, না হলে জিতব না। কিন্তু আমরা একটি অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন চাই। তবে বীর চট্টলার মানুষ কোনো কাপুরুষ নয়, একজন বীরকে ভোট দেবেন। সেই বীরের নাম রেজাউল করিম চৌধুরী। 

সোমবার দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের বঙ্গবন্ধু হলে আওয়ামী লীগের প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরীর সমর্থনে সাংবাদিকদের সঙ্গে সর্বশেষ নির্বাচনী বিষিয়ে মতবিনিময় সভায় দলের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, বিএনপি একটা ষড়যন্ত্রের পার্টি। তারা ঘুম থেকে উঠেই ষড়যন্ত্র দেখে। তাদের চোখ আলো দেখে না, জনগণ দেখে না। দেশের অন্যান্য জায়গায় যেসব নির্বাচন হয়েছে, তা বিভিন্ন প্রতিকায় ভোটার উপস্থিতি ভালো ছিল, নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে উল্লেখ করেছে। চট্টগ্রামেও নির্বাচনের খুব সুন্দর পরিবেশ আছে, জনগণ ভোট দেওয়ার জন্য উন্মুখ হয়ে আছে। বিএনপির মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাতের জন্য নিরাপত্তা পুলিশ মোতায়েন করা হচ্ছে। আওয়ামী লীগের প্রার্থীর জন্য সাধারণ জনগণ রয়েছে। এ জন্য আমাদের প্রার্থীর কোনো নিরাপত্তার দরকার নেই। আমাদের প্রার্থীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করবেন ভোটাররা।

আওয়ামী লীগের আরেকজন সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন বলেন, চট্টগ্রামের প্রতিটি ওয়ার্ডেই মিছিল হয়েছে। মতবিনিময় সভায় আমাদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও সংসদ সদস্য হওয়ায় আচরণবিধির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে তিনি আসেননি।

সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহজাদা মহিউদ্দিন ও সদস্য আবু সুফিয়ান, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদসহ সাংবাদিক ও রাজনীতিবিদদের অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। 

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন

 

 

 


আপনার মন্তব্য