শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৬ অক্টোবর, ২০২০ ২৩:৩৪

দেশে করোনায় আক্রান্ত রোগী চার লাখ ছাড়াল

নিজস্ব প্রতিবেদক

দুই মাসে আরও এক লাখ রোগী শনাক্ত হওয়ায় দেশে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা চার লাখ ছাড়িয়েছে। সরকারি হিসাবে গতকাল সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ১ হাজার ৪৩৬ রোগী শনাক্ত হয়েছে, তাতে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা পৌঁছেছে ৪ লাখ ২৫১ জনে। আর গত এক দিনে করোনাভাইরাসে আরও ১৫ জনের মৃত্যু হওয়ায় মৃতের মোট সংখ্যা পৌঁছছে ৫ হাজার ৮১৮ জনে। গতকাল স্বাস্থ্য অধিদফতর এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানায়। বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় বাসা ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও ১ হাজার ৪৯৩ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। তাতে সুস্থ রোগীর মোট সংখ্যা বেড়ে ৩ লাখ ১৬ হাজার ৬০০ জন হয়েছে। একই সময়ে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১৩ হাজার ৬৬৬টি, আগের নমুনাসহ নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৩ হাজার ৭৫৮টি।

এখন পর্যন্ত ২২ লাখ ৭১ হাজার ৩৪৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১০ দশমিক ৪৪ শতাংশ এবং এখন পর্যন্ত ১৭ দশমিক ৬২ শতাংশ। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৭৯ দশমিক ১০ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যু হার ১ দশমিক ৪৫ শতাংশ।

মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে নয়জন পুরুষ এবং ছয়জন নারী। এখন পর্যন্ত পুরুষ ৪ হাজার ৪৮০ জন এবং নারী মৃত্যুবরণ করেছেন ১ হাজার ৩৩৮ জন। বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ৬০ ঊর্ধ্ব ১১ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে তিনজন এবং ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে একজন রয়েছেন। বিভাগ বিশ্লেষণে দেখা যায়, মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১০ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে তিনজন এবং বরিশাল ও সিলেট বিভাগে একজন করে বাসিন্দা ছিলেন। ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেছেন ১৪ জন এবং একজন বাড়িতে মারা গেছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে ১১১টি ল্যাবে ১৩ হাজার ৭৫৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ পর্যন্ত পরীক্ষা হয়েছে ২২ লাখ ৭১ হাজার ৩৪৭টি নমুনা। ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ১০ দশমিক ৪৪ শতাংশ, এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৭ দশমিক ৬২ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৭৯ দশমিক ১০ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৫ শতাংশ।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে স্বাস্থ্য অধিদফতর আরও জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে রাখা হয়েছে ১০৮ জনকে। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১২ হাজার ৪৫ জন। ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশন থেকে ছাড়া পেয়েছেন ১৬৭ জন, এখন পর্যন্ত ছাড়া পেয়েছেন ৭৩ হাজার ২৮০ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশন করা হয়েছে ৮৫ হাজার ৩২৫ জনকে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর