রবিবার, ২৪ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ টা

ইউপি নির্বাচনে আর ছাড় নয় বিএনপির

দলীয় প্রতীক ছাড়াই অংশ নেবেন প্রার্থীরা, অনানুষ্ঠানিকভাবে কাজ করবেন নেতারা

শাহ্ দিদার আলম নবেল, সিলেট

বর্তমান সরকারের অধীনে আর কোনো নির্বাচনে অংশ না নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি। চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনেও দলগতভাবে অংশ নিচ্ছে না দলটি। তবে দলীয় প্রতীকে অংশ না নিলেও সিলেটে আওয়ামী লীগকে খালি মাঠে গোল দিতে দেবে না বিএনপি। নির্বাচনে কোনো ছাড় দিতে নারাজ বিএনপি রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত প্রার্থীরা। স্বতন্ত্র হিসেবে তারা অংশ নিচ্ছেন নির্বাচনে। নির্বাচনী প্রচারণায় দলের পদবিধারী নেতারা সরাসরি অংশ না নিলেও শেষ মুহুর্তে নিজেদের প্রার্থীদের পক্ষে অনানুষ্ঠানিকভাবে কাজ করার প্রস্তুতি সেরে রেখেছেন তারা।

প্রথম ধাপের ইউপি নির্বাচনে সিলেট জেলার কোনো ইউনিয়ন পরিষদের নাম ছিল না। দ্বিতীয় ধাপে আগামী ১১ নভেম্বর ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে সিলেট সদর উপজেলার চার, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় পাঁচ ও বালাগঞ্জ উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নে। এসব ইউনিয়ন পরিষদের বেশির ভাগেই একক প্রার্থী দিয়েছে আওয়ামী লীগ। নির্বাচনে একক প্রার্থী দিয়েও খুব সহজে পার পাচ্ছে না আওয়ামী লীগ। বিএনপি বর্তমান সরকারের অধীনে নির্বাচনে অংশ না নেওয়ার ঘোষণা দিলেও সে সিদ্ধান্ত মানছেন না তৃণমূলের প্রার্থীরা। প্রায় সবকটি ইউপিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল করেছেন বিএনপি নেতারা। কোনো কোনো ইউনিয়নে বিএনপির একাধিক নেতা প্রার্থী হয়েছেন। বাছাইকালে তাদের সবার মনোনয়ন নির্বাচন কমিশন কর্তৃক বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে।

সিলেট সদর উপজেলার চার ইউপির মধ্যে তিনটিতে বিএনপির পাঁচজন স্বতন্ত্র হিসেবে প্রার্থী হয়েছেন। এর মধ্যে হাটখোলা ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি রফিকুল ইসলাম। জালালাবাদে চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়েছেন বিএনপি নেতা মো. আশিক আলী, মুজিবুর রহমান ও ইসলাম উদ্দিন এবং মোগলগাঁওয়ে প্রার্থী হয়েছেন বিএনপি নেতা ফজলু মিয়া। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার পাঁচ ইউনিয়নের চারটিতে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্ধন্ধিতায় নেমেছেন বিএনপির সাত নেতা-কর্মী। এর মধ্যে ইসলামপুর পূর্ব ইউনিয়নে মো. আলমগীর আলম, ইছাকলস ইউনিয়নে মো. মকবুল আলী, আবুছাদ আবদুল্লাহ ও বর্তমান চেয়ারম্যান মো. কুটি মিয়া, উত্তর রণিখাই ইউনিয়নে মো. গিয়াস উদ্দিন এবং দক্ষিণ রণিখাই ইউনিয়নে শামস উদ্দিন শাহীন ও মো. শাহাব উদ্দিন। এ ছাড়া বালাগঞ্জ উপজেলার ছয় ইউনিয়নের তিনটিতে প্রার্থী হয়েছেন বিএনপির তিন নেতা। এ তিনজনই সিলেট জেলা বিএনপির আহ্‌বায়ক কমিটির সদস্য। এর মধ্যে দেওয়ানবাজার ইউনিয়নে উপজেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক নাজমুল আলম, বালাগঞ্জ সদর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান মো. আবদুল মুনিম এবং পূর্ব গৌরিপুর ইউনিয়নে উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান প্রার্থী হয়েছেন।

তৃতীয় ধাপে আগামী ২৮ নভেম্বর সিলেট জেলার গোয়াইনঘাট উপজেলায় ছয়, জৈন্তাপুর উপজেলায় পাঁচ ও দক্ষিণ সুরমা উপজেলায় পাঁচটি ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এ তিন উপজেলার সবকটি ইউনিয়নেই নির্বাচনে প্রস্তুতি নিয়েছেন বিএনপির একাধিক নেতা-কর্মী। নির্বাচনে দলের নেতা-কর্মীদের প্রার্থী হওয়া প্রসঙ্গে সিলেট জেলা বিএনপির আহ্‌বায়ক কমিটির সদস্য আবুল কাহের শামীম বলেন, বিএনপি দলীয়ভাবে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে না। এরপরও যদি কেউ প্রার্থী হন তবে তাদের বিরুদ্ধে কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা হবে।

সর্বশেষ খবর