শিরোনাম
রবিবার, ১৫ জানুয়ারি, ২০২৩ ০০:০০ টা

বুয়েটে সাবেকদের পুনর্মিলনী

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

জমকালো আয়োজন আর বিপুল উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়-বুয়েট অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের ‘মহাপুনর্মিলনী’। গতকাল বুয়েট খেলার মাঠে আয়োজনে যোগ দেন দেশ-বিদেশের প্রায় ৬ হাজার প্রকৌশলী এবং তাদের পরিবারবর্গ। দেশের অবকাঠামো নির্মাণসহ প্রকৌশলের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অসামান্য অবদানের জন্য ১৯৭২ ব্যাচের ১১৩ জন ও প্রকৌশল ১৯৯৩ ব্যাচের মধ্যে ১৮১ জন এবং স্থাপত্যে ১৯৯৫ ব্যাচের ১৬ জনকে সম্মাননা দেওয়া হয়। দিনব্যাপী মহাপুনর্মিলনীর বর্ণাঢ্য আয়োজনে ছিল উদ্বোধনী অধিবেশন, খেলাধুলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, প্রাতঃরাশ, মধ্যাহ্ন ভোজ, নৈশ ভোজ ও বুয়েটের কৃতী শিক্ষার্থীদের পুরস্কার প্রদানসহ বিনোদনের আরও অনেক আকর্ষণীয় কার্যক্রম। সতীর্থদের সঙ্গে মিলিত হয়ে স্মৃতিচারণ আর মনোজ্ঞ আয়োজনে মহাপুনর্মিলনী পরিণত হয় মহামিলনে। পুনর্মিলনী উপলক্ষে বর্ণিলভাবে সাজানো হয় বুয়েটের খেলার মাঠ। বানানো হয় উদ্বোধনীর নয়নাভিরাম মঞ্চ। মঞ্চের পাশে কফি বুথ, মধ্যাহ্ন ভোজ, নৈশ ভোজনের জন্য ছিল প্যান্ডেল।

ছিল প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের শিশুদের জন্য বায়োস্কোপ, পুতুল নাচ, রাইট, নাগরদোলাসহ নানান আয়োজন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বুয়েট অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট)-উপাচার্য অধ্যাপক ড. সত্য প্রসাদ মজুমদার ও উপ-উপাচার্য অধ্যপক ড. আবদুল জব্বার খাঁন। সভায় সভাপতিত্ব করেন বুয়েট অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন পানিসম্পদ বিশেষজ্ঞ, পরিবেশ বিজ্ঞানী, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য অধ্যাপক ড. আইনুন নিশাত।

অনুষ্ঠানের মুক্ত আলোচনার বিষয় ছিল ‘প্রকৌশল শিক্ষার বিবর্তন এবং ভবিষ্যৎ’। প্রবন্ধটি উপস্থাপন করেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ বুয়েটের কেমিক্যাল অ্যান্ড মেটিরিয়ালস ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডিন ও পেট্রোলিয়াম ও খনিজ সম্পদ কৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ তামিম।

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর