শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৬:৫৬

লক্ষ্মীপুরে অগ্নিকাণ্ডে ১৫টি দোকান পুড়ে ছাই

অনলাইন ডেস্ক

লক্ষ্মীপুরে অগ্নিকাণ্ডে ১৫টি দোকান পুড়ে ছাই

লক্ষ্মীপুরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ১৫টি দোকান পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। কয়েক লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করছেন ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা। রবিবার ভোর রাতে সদর উপজেলার চরশাহী ইউনিয়নের নোয়া হাটে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। পরে লক্ষ্মীপুর ও নোয়াখালী থেকে দুটি ইউনিট এসে প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে আগুনের সূত্রপাত সম্পর্কে সুনির্দিষ্ট কোন তথ্য জানাতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস।

ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী ও ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, রাতে কোন একটি দোকানে আগুনের সূত্রপাত হয়। মুহূর্তেই আগুনের লেলিহান শিখা আশেপাশের দোকানগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। পরে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে এর আগেই মোরশেদের রাইচ মিল, ইসমাইলের মোদি দোকান, প্রিয়া ডেকোরেটর, তন্নি ফার্মেসী, সাদ্দামের হার্ডওয়ার ও শাহাজানের দোকানসহ ১৫টি দোকান আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। 

ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী মোরশেদ আলম, নুরুল আমিনসহ অনেকে বলেন, আগুনে পুড়ে আমাদের সব শেষ হয়ে গেছে। এখন ঘুরে দাঁড়ানোর মতো অবস্থা নেই। তাই সরকারি সহযোগিতা চান তারা।

এদিকে অগ্নিকাণ্ডের সুনির্দিষ্ট কারণ জানাতে পারেনি কেউ। কেউ বলছেন বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে, আবার কেউ বলছেন সিগারেটের আগুন থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে।

লক্ষ্মীপুর ফায়ার স্টেশনের উপ-পরিচালক মো. ইকবাল হোসেন জানান, অগ্নিকাণ্ডের কারণ ও ক্ষয়ক্ষতি নিরুপণে কাজ চলছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, ৩০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। 

জানতে চাইলে লক্ষ্মীপুরের জেলা প্রশাসক অঞ্জন চন্দ্র পাল বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। খুব শিগগিরই ক্ষতিগ্রস্তরা সরকারি সহযোগিতা পাবেন।

বিডি-প্রতিদিন/মাহবুব


আপনার মন্তব্য