শিরোনাম
প্রকাশ : ৯ এপ্রিল, ২০২০ ২২:০৭

শরীয়তপুরে ২ শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা

শরীয়তপুর প্রতিনিধি

শরীয়তপুরে ২ শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা
প্রতীকী ছবি

শরীয়তপুরে ২ শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে পালং থানা ও সখিপুর থানায় আলাদা দুটি মামলা করেছে ভুক্তভোগীর পরিবার। সখিপুর থানার আসামিকে ৪ দিন পর আটক করলেও  শরীয়তপুর সদর উপজেলার আসামিকে আটক করতে পারেনি পুলিশ। আসামিকে গ্র্রেফতারের চেষ্টা করছে পালং থানার পুলিশ।

এ দিকে পালং থানার পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার সকালে সদর উপজেলায় মক্তবে পড়া শেষে বাড়ি ফেরার পথে এক শিক্ষার্থীকে পাশবিক নির্যাতন করেন মসজিদের মোয়াজ্জেম আব্দুল কাদির।  লোক লজ্জার ভয়ে মানুষকে জানায়নি মেয়ের পরিবার। শিশুটি অসুস্থ্য হয়ে পড়লে বুধবার রাতে তাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে মেয়েটির স্বজনরা। এ ঘটনায় আব্দুল কাদিরকে অভিযুক্ত করে পালং থানায় মামলা করে শিশুটির পরিবার। অভিযুক্ত বুড়ির হাটের দেওভোগ মসজিদে মোয়াজ্জেম। তার বাড়ি শরীয়দপুর সদর উপজেলার সোনামুখি গ্রামে। এখন তাকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। খুব শিঘ্রই তাকে গ্রেফতার করতে পারবে বলে জানান পালং থানার ওসি আসলাম উদ্দিন । 

ধর্ষিতার মা বলেন, আমার মেয়েকে হুজুর জোরপূর্বক ধর্ষণ করেছে, আমি এর বিচারের চাই। এদিকে ৪ এপ্রিল সখিপুরে এক শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে সখিপুর থানায় মামলা করে মেয়েটির পরিবার। বৃহস্পতিবার সকালে মামলায় অভিযুক্ত সাইদুল ইসলামকে আটক করে পুলিশ।

পরে আদালতের মাধ্যমে সাইদুলকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ৭ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীকে যৌন হয়নানির মামলায় অভিযুক্ত সাইদুল ইসলামকে সখিপুর থানা পুলিশ আটক করেছে। তার বাড়ি ভেদরগঞ্জ উপজেলার সখিপুর থানার চরভাগা শনিকান্দী গ্রামে। 

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আল মামুন শিকদার বলেন, আমরা একজনকে গ্র্রেফতার করেছি, আরেক জনকে গ্র্রেফতারের চেষ্টা চলছে। 

বিডি প্রতিদিন/আল আমীন


আপনার মন্তব্য