শিরোনাম
প্রকাশ : ৪ জুলাই, ২০২০ ২০:৪০

যৌতুকের জন্য স্ত্রীর গায়ে আগুন

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

যৌতুকের জন্য স্ত্রীর গায়ে আগুন

বগুড়ার কাহালুতে যৌতুকের টাকা না পেয়ে স্ত্রীর গায়ে আগুন দিয়ে ঝলছে দেওয়ার ঘটনায় থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে স্বামী আবুল কালাম আজাদকে (৩৫) গ্রেফতার করেছে। শনিবার ভোর রাতে কাহালু উপজেলার বাথই কাজীপাড়া থেকে আজাদকে গ্রেফতার করে। ঘটনার পর থেকে গ্রেফতারকৃত আবুল কালাম আজাদ বাথই কাজী পাড়া গ্রামে তার বোন জামাই রেজাউল ইসলামের বাড়িতে আত্মগোপনে ছিলেন।

বগুড়ার কাহালু থানায় দায়ের করা মামলা সূত্রে জানা যায়, কাহালু উপজেলার সদর ইউনিয়নের জয়তুল গ্রামের তোজাম্মেল হোসনের পুত্র আবুল কালাম আজাদের সাথে উপজেলার পাইকড় ইউনিয়নের খিয়ার ভুগইল গ্রামের আব্দুর রহমানের মেয়ে রুজিনা বেগমের ১৪ বছর পূর্বে বিয়ে হয়। ঘরসংসারে ছানি বাবু (১১) ও কামরুন নাহার কুসুম (৪) নামে দুটি সন্তান রয়েছে। বিবাহের পর হতে স্বামী আবুল কালাম আজাদ তার স্ত্রী রুজিনার নিকট টাকা দাবি করেন। ৫ বছর পূর্বে রুজিনার পিতা আব্দুর রহমান মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে জামাইকে ২ লাখ টাকা প্রদান করেন।

এরপর থেকে প্রায়ই টাকার জন্য চাপ দেয়। টাকা না দেয়ায় মাঝে মধ্যেই রুজিনাকে মারপিট করতো। গত ৩০ জুন সকালে টাকা চেয়ে বসে। টাকা না দেয়ায় ও স্ত্রী রুজিনা প্রতিবাদ করলে তার স্বামী গায়ের কাপড়ে আগুন লাগিয়ে দেয়। আগুনে রুজিনার পিঠ পুড়ে যায়।

স্থানীয় লোকজন ও তার বাবার বাড়ির লোকজন এসে রুজিনাকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় গত ৩ জুলাই রুজিনার পিতা আব্দুর রহমান বাদী হয়ে কাহালু থানায় জামাইসহ ২ জনের নামে একটি মামলা দায়ের করেন। 

বগুড়ার কাহালু থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. জিয়া লতিফুল ইসলাম জানান, মামলা দায়ের করার পরেই ওই নারীর স্বামী আবুল কালাম আজাদকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে এবং অন্য আসামিকে গ্রেফতারের জোর প্রচেষ্টা চলছে।

বিডি প্রতিদিন/আল আমীন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর