শিরোনাম
প্রকাশ : ৩০ নভেম্বর, ২০২০ ১৯:৪১
প্রিন্ট করুন printer

আখাউড়ায় বিনামূল্যে ধানের বীজ পেল ৩ হাজার কৃষক

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

আখাউড়ায় বিনামূল্যে ধানের বীজ পেল ৩ হাজার কৃষক

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলায় বিনামূল্যে ৩ হাজার কৃষকদের মাঝে ধানের বীজ বিতরণ করা হয়েছে। আজ সোমবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ নূরে-এ আলম প্রধান অতিথি থেকে কৃষকদের মাঝে ধান বীজ বিতরণ করেন। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এ আয়োজন করে। 

অনুষ্ঠানে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) হাজেরা বেগমের সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. মোরাদ হোসেন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাছরিন সফিক আলিয়া, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সৈয়দ জামশেদ শাহ, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মো. জহিরুল ইসলাম , উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা মো. বিল্লাল হোসেন, প্রমূখ। 

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত ) হাজেরা বেগম বলেন, পৌর শহরসহ উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের ৩ হাজার  ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের কৃষককের মাঝে জনপ্রতি ২ কেজি করে ধান বীজ বিনা মূল্যে বিতরণ করা হয়েছে। 

 

বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:৪৯
প্রিন্ট করুন printer

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের মাসিক কল্যান সভা অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের মাসিক কল্যান সভা অনুষ্ঠিত

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের মাসিক কল্যান সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ সোমবার সকালে জেলা পুলিশ লাইনসের ড্রিল সেড অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন খান।

সহকারী কমিশনার মো. মাসুদ রানার সঞ্চালনায় কল্যাণ সভায় বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত কমিশনার প্রলয় চিসিম, উপ-কমিশনার আবু রায়হান মুহাম্মদ সালেহ্, উপ-কমিশনার মো. মোকতার হোসেন, উপ-কমিশনার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার, উপ-কমিশনার খাঁন মুহাম্মদ আবু নাসের, উপ-কমিশনার মো. মনজুর রহমান সহ অন্যান্যরা। 

সভায় পুলিশ কমিশনার অধস্তন পুলিশ সদস্যদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমাদের উপার্জন যদি হালাল না হয় তাহলে সকল আমল অগ্রহণযোগ্য। সরকারি সকল সুযোগ-সুবিধায় সন্তুষ্টি নিয়ে নৈতিক শিক্ষা কাজে লাগিয়ে জনকল্যাণে কাজ করতে হবে। কর্তব্যের বাহিরে কোন নেতিবাচক অঘটন যেন না ঘটে সে বিষয়ে খেয়াল রেখে জনগণের কাঙ্খিত আস্থার প্রতীক হিসেবে নিজেদের তৈরি করতে পুলিশ সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

 

বিডি-প্রতিদিন/সিফাত আব্দুল্লাহ


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:৪৭
প্রিন্ট করুন printer

নিজ ধর্মকে ভালোভাবে না জানার কারণে ফেতনা-ফাসাদ সৃষ্টি হচ্ছে: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি

নিজ ধর্মকে ভালোভাবে না জানার কারণে ফেতনা-ফাসাদ সৃষ্টি হচ্ছে: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী
ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ গড়ার জন্য ধর্ম-বর্ণ, দলমত ও গোষ্ঠী নির্বিশেষে সকলকে সাথে নিয়ে কাজ করতে হবে।

প্রতিটি ধর্মই মানুষের কল্যাণের কথা বলে ও শান্তির বার্তা শোনায়। সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদীর কার্যক্রম কোনো ধর্মই সমর্থন করে না। এটি মানবতাবিরোধী অপরাধ। নিজের ধর্মকে ভালোভাবে না জানার কারণে মাঠপর্যায়ে ফেতনা-ফাসাদ সৃষ্টি হচ্ছে। দৃষ্টিভঙ্গির সমস্যার কারণে কতিপয় গোষ্ঠী ধর্মের অপব্যাখ্যা দিচ্ছে।

আজ সোমবার বিকালে ময়মনসিংহ নগরীর অ্যাডভোকেট তারেক স্মৃতি মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। 

ইসলামিক ফাউন্ডেশন ময়মনসিংহ বিভাগীয় কার্যালয়ের উদ্যোগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি কর্তৃক গৃহীত কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে বিভাগীয় শহরে ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন ও কর্ম এবং সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় তার অবদান’ শীর্ষক এ আলোচনা সভা হয়।
 
আলোচনা সভায় ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার মো. কামরুল হাসানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. ইকরামুল হক টিটু, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক আনিস মাহমুদ, রেঞ্জ ডিআইজি ব্যারিস্টার মো. হারুন অর রশিদ, জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান, জেলা পুলিশ সুপার মোহা. আহমার উজ্জামান। 

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ

 
  
 


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:৪৬
আপডেট : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:৫৪
প্রিন্ট করুন printer

চুরি যাওয়া মোটরসাইকেল উদ্ধারসহ চোরচক্রের হোতা গ্রেফতার

মাগুরা প্রতিনিধি

চুরি যাওয়া মোটরসাইকেল উদ্ধারসহ চোরচক্রের হোতা গ্রেফতার

মাগুরায় চুরি যাওয়া মোটরসাইকেল উদ্ধারসহ চোর চক্রের হোতা মাহিন শেখ ওরফে দিরাজ (৩১)-কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত মাহিন শহরের দোয়ারপাড় এলাকার মৃত মান্নান শেখের ছেলে।

মাগুরা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ জয়নাল আবেদীন জানান, রবিবার সন্ধ্যায় সদরের ইছাখাদা এলাকার বাসিন্দা সুমন হোসেন শহরের বেবিপ্লাজায় মার্কেটের সামনে তার ১৫০ সিসির পালসার মোটরসাইকেল রেখে কেনাকাটার জন্য দোকানে যান। এসময়  অজ্ঞাতনামা চোরচক্র কৌশলে তার মোটরসাইকেলটি চুরি করে নিয়ে যায়। 

এ বিষয়ে সুমন হোসেন থানায় মামলা করেন। মামলা তদন্তে গিয়ে ওই রাতেই শহরের দোয়ারপাড় এলাকা থেকে চোর চক্রের হোতা মাহিন শেখ ওরফে দিরাজকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত মাহিনের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ঝিনাইদহ জেলার পবাহাটি কলার হাট এলাকা থেকে মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করা হয়। চোরচক্রের অন্য সদস্যদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।


বিডি-প্রতিদিন/সিফাত আব্দুল্লাহ


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:৪০
প্রিন্ট করুন printer

সেই শিশুর ব্যাপারে অনেকের সাড়া মিললেও, মেলেনি পরিবারের

রাজবাড়ী প্রতিনিধি

সেই শিশুর ব্যাপারে অনেকের সাড়া মিললেও, মেলেনি পরিবারের

গত বছর বাবা মায়ের মৃত্যুর পর এতিম হয়ে যায় নওগাঁ জেলার রানীনগর উপজেলার ভবানীপুর গ্রামের শিশু রফিকুল। বছর খানেক ভাই-ভাবির বাসায় থাকলেও সহ্য করতে হয় শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন। শনিবার বিকেলে বিভিন্ন জায়গায় বেড়ানোর কথা বলে ট্রেনে তুলে দেন তার আপন ভাই ও ভাবি। কিন্তু তারা ট্রেনে না উঠে বলে দেয় তোর কপালে যেখানে আছে চলে যা, বেঁচে থাকলে হয়তো দেখা হবে। এরপর রাজবাড়ীর বহরপুর রেলস্টেশনে রাতে কান্না করতে করতে নিচে নামে শিশুটি। পরে স্থানীয় সোনার বাংলা সমাজ কল্যাণ ও ক্রীড়া সংসদের আহ্বায়ক হেলাল খন্দকার শিশুটিকে বাড়িতে নিয়ে এসে প্রশাসনকে অবহিত করেন। 

বাংলাদেশ প্রতিদিনের অনলাইন ভার্সস সহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে এতিম রফিকুলের ব্যাপারে সংবাদ প্রকাশিত হয়। বালিয়াকান্দি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আম্বিয়া সুলতানা শিশুটির সাথে কথা বলে নওগাঁ জেলার রাণিনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে কথা বললেও সেই ভাই-ভাবির পক্ষ থেকে কোন সাড়া মেলেনি। তবে দেশের বিভিন্ন স্থানসহ প্রবাস থেকে শিশুটির দায়িত্ব নিতে অনেকেই আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

আজ সোমাবার দুপুরে আমেরিকা থেকে এক প্রবাসী বাংলাদেশ প্রতিদিনের রাজবাড়ী প্রতিনিধিকে বলেন, তিনি শিশুটির দায়িত্ব নিতে চান। তিনি দেশের বাইরে থাকলেও ঢাকার ভালো কোন এতিমখানায় রেখে শিশুটিকে বড় করবেন। এছাড়া দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আরো বেশ কয়েকটি ফোন পান বাংলাদেশ প্রতিদিনের এই সংবাদকর্মী। এছাড়া ব্যারিস্টার সাইদুল হক সুমনও শিশুটির দায়িত্ব নিতে চান।

বালিয়াকান্দি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আম্বিয়া সুলতানা বলেন, রবিবার সকালে শিশুটির ভাই এবং ভাবির সন্ধান পেয়ে শিশুটির ব্যাপারে অবহিত করা হয়। আজ সোমবার বিকেল পর্যন্ত তার পরিবারের পক্ষ থেকে কোন সাড়া পাওয়া যায়নি। তবে আজ রাতে একজন ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য বালিয়াকান্দি আসবেন বলে জানিয়েছেন রাণিনগরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

সোনার বাংলা ক্রীড়া সংসদের আহ্বায়ক হেলাল খন্দকার বলেন, শিশুটি দুই রাত তার বাড়িতে অবস্থান করছে। অনেক দিনের নির্যাতন ভুলে বর্তমানে শিশুটি তার পরিবারের সাথে রয়েছে। শিশুটি ভালো আছে। প্রশাসন থেকে বলা হয়েছে দ্রুতই তারা শিশুটির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন।
 
বালিয়াকান্দি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আম্বিয়া সুলতানা বলেন, সর্বপ্রথম শিশুটিকে পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। যদি সেটা সম্ভব না হয় তবে সরকারি কোন শিশু পরিবারে শিশুটি রাখা হবে। এছাড়া যদি কেউ শিশুটিকে দত্তক নিতে চায় তবে আইনি প্রক্রিয়ায় অগ্রসর হওয়া যেতে পারে।

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:৩১
প্রিন্ট করুন printer

গ্রাম পুলিশে চাকরি দেওয়ার নামে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

গ্রাম পুলিশে চাকরি দেওয়ার
নামে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

বগুড়ার শেরপুরে গ্রাম পুলিশে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণা করে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে গাড়ীদহ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান দবির উদ্দীনের বিরুড় লাখ টাকা আত্মসাত করেন বলে রবিবার দুপুরে শেরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট একটি লিখিত অভিযোগ প্রদান করেন। 
অভিযোগে জানা যায়, শেরপুর উপজেলার গাড়ীদহ ইউনিয়নের চন্ডিজান গ্রামের বাসিন্দা জহুরুল ইসলামের স্ত্রী মরিয়ম বেগমকে কিছু টাকার বিনিময়ে পরিষদে চাকরি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। পরে গাড়ীদহ ইউনিয়ন পরিষদের আয়া পদে টাকা নিয়ে ভুয়া নিয়োগ পত্র প্রদান করেন। এরপর তাকে গ্রাম পুলিশে চাকরি দেওয়ার কথা বলে টাকা নেন ওই চেয়ারম্যান।

ভুক্তভোগী মরিয়ম বেগম অভিযোগ করে বলেন, বিগত ২০১৯ সালের জুনে প্রথমে আয়া পদে ভুয়া নিয়োগ দেওয়া হয়। পরে গাড়ীদহ ইউনিয়নে গ্রাম পুলিশে চাকরি দেওয়ার আশ^াস দেন চেয়ারম্যান দবির উদ্দীন। এজন্য তিনি নিজে দেড় লাখ টাকা নেন। আর তার নির্দেশে জন্মসনদ ও  জাতীয় পরিচয়পত্রে জালিয়াতির মাধ্যমে বয়স কমাতেও টাকা খরচ করা হয়েছে। এরপর দীর্ঘসময় পার হলেও তাকে চাকরি না দিয়ে শুধু তালবাহানা করা হচ্ছে। 

বিষয়টি সম্পর্কে বক্তব্য জানতে চাইলে অভিযুক্ত উপজেলার গাড়ীদহ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান দবির উদ্দীন তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, চাকরি দেওয়ার কথা বলে তিনি কোনো টাকা নেননি। এছাড়া বেশ কিছুদিন ধরেই ওই মহিলা এসব অভিযোগ করে আসছেন। কিন্তু কোনো প্রমাণ করতে পারেননি।

বগুড়ার শেরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লিয়াকত আলী সেখ অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, অভিযোগটি গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত করে দেখা হবে। তদন্তে দোষী প্রমাণিত হলে আইন অনুযায়ী অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে দাবি করেন তিনি।

বিডি প্রতিদিন/আল আমীন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

এই বিভাগের আরও খবর