শিরোনাম
প্রকাশ : ৭ মে, ২০২১ ১৯:২৩
প্রিন্ট করুন printer

কোম্পানীগঞ্জে আওয়ামী লীগের সভাপতির উপর হামলার ঘটনায় মামলা

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

কোম্পানীগঞ্জে আওয়ামী লীগের সভাপতির উপর হামলার ঘটনায় মামলা
মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খান
Google News

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খানের (৭১) ওপর ফের মির্জা কাদেরের অনুসারীদের হামলার অভিযোগে কোম্পানীগঞ্জ থানায় মামলা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে খিজির হায়াত খান নিজেই বাদী হয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানায় এ মামলা দায়ের করেন।

কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মীর জাহেদুল হক রনি, মামলা হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অভিযুক্ত কাউন্সিলর মো. রাসেলসহ মোট ২ জনকে আসামি করে গতিরোধ ও মারধর করার অভিযোগ এনে এ মামলা দায়ের করা হয়।

খিজির হায়াত খান অভিযোগ করেন, বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাযোগে বাড়ি থেকে বসুরহাট বাজারে আসার পথে পৌরসভার ৭নম্বর ওয়ার্ডের বদু কেরানীর পোল এলাকায় পৌঁছলে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার অনুসারী পৌরসভার ৭নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. রাসেল ও একই ওয়ার্ড ছাত্রলীগ সভাপতি আইনাল মারুফের নেতৃত্বে ৮-১০জন আমার রিকশার গতিরোধ করে। এক পর্যায়ে তারা আমাকে রিকশা থেকে নামিয়ে বেধড়ক মারধর করে। পরে স্থানীয় এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়।  

অভিযোগের বিষয়ে বসুরহাট পৌরসভা ৭নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও উপজেলা যুবলীগের সহ সভাপতি মো. রাসেল ফোনে বলেন, গতকাল (বৃহস্পতিবার) আমি এলাকায়ই ছিলাম না। আমি মোল্লারটেক এলাকার আমার নানার বাড়িতে ইফতার করলাম, সেখান থেকে ফিরে এসে শুনলাম আমি ওনাকে মেরেছি। মূলত আমি ওনার পুরোনো বাড়ির লোক এবং পারিবারিক একটি দ্বন্দ্ব আছে। তা ছাড়া আমি আবদুল কাদের মির্জার অনুসারী বলেই ওনার খোভ। এটা একটা ইস্যু দাঁড় করিয়ে তিনি রাজনৈতিক সুবিধা নিতে চাইছেন।

বিডি প্রতিদিন/হিমেল

এই বিভাগের আরও খবর