শিরোনাম
৪ ডিসেম্বর, ২০২৩ ২১:২৬

লক্ষ্মীপুরে দুইটি আসনে ১১ জনের মনোনয়নপত্র বৈধ

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:

লক্ষ্মীপুরে দুইটি আসনে ১১ জনের মনোনয়নপত্র বৈধ

লক্ষ্মীপুরে আরও দুটি আসনে মনোনয়নপত্র বৈধতা পেয়েছে ১১ জন প্রার্থীর। বাতিল হয়েছে ৭ জনের এবং ৩ জনের স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে লক্ষ্মীপুর-৩(সদর) আসন থেকে মনোনয়নপত্র কিনেছেন ১৫ জন। জমা দিয়েছেন ১২ জন। মনোনয়নপত্র বৈধ হয়েছে ৫ জনের, বাতিল হয়েছে ৪ জনের এবং স্থগিত হয়েছে ৩ জনের। মেঘনা উপকূলীয় লক্ষ্মীপুর-৪ (রামগতি-কমলনগর) আসনে মোট ৯ জন মনোনয়নপত্র তুলেছেন। জমাও দিয়েছেন ৯ জন। এর মধ্যে প্রার্থীতার বৈধতা পেয়েছে ৬ জন এবং বাতিল হয়েছে ৩ জনের।

লক্ষ্মীপুর-৩(সদর) আসনে ১ শতাংশ ভোটার তালিকায় সত্যতা না থাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল হাশেম,  হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রীস্টান ঐক্য পরিষদের স্বতন্ত্র প্রার্থী মনীন্দ্র কুমার নাথ, জেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি স্বতন্ত্র প্রার্থী বেলায়েত হোসেন বেলালের মনোনয়ন বাতিল হয়েছে। এছাড়া অসম্পূর্ণ মনোনয়ন ফরম জমা দেয়ায় ন্যাশনাল পিপলস পার্টির মো. রিয়াদ হোসেনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।
স্থগিত হয়েছে তৃণমূল বিএনপি’র মো. নাঈম হাসান, বাংলাদেশ ওয়ার্কাস পার্টি মো. মাহাবুবুল করিম টিপু, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী মুহাম্মদ মনিরুজ্জামান এর মনোনয়নপত্র। এখানে প্রার্থীতায় বৈধতা পেয়েছেন আওয়ামীলীগ মনোনীত গোলাম ফারুক পিঙ্কু এমপি, জাতীয় পার্টির মুহাম্মদ রাকিব হোসেন, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির আব্দুর রহিম, জাকের পার্টির শামছুল করিম, স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামীলীগ নেতা অধ্যক্ষ এমএ সাত্তার।
লক্ষ্মীপুর-৪ (রামগতি-কমলনগর) আসনে ৬ জনের মনোনয়ন বৈধতা পেয়েছে। তারা হলেন- আওয়ামী লীগের প্রার্থী ফরিদুন্নাহার লাইলি, বাংলাদেশ সুপ্রীম পার্টির মোহাম্মদ ছোলায়মান, জাসদের মোশারফ হোসেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী আসনটির সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. আব্দুল্লাহ, তার সহধর্মিনি মাহমুদা বেগম ও স্বতন্ত্র প্রার্থী কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপকমিটির সদস্য ইস্কান্দার মির্জা শামীম।
এ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী আব্দুস সাত্তার পালোয়ান ও মাহবুবুর রহমানের মনোয়ন বাতিল হয়েছে। ১ শতাংশ ভোটারের সমর্থনে গড়মিল থাকায় তাদের মনোনয়ন বাতিল করা হয়। এছাড়াও ক্রেডিট ইনফরমেশন ব্যুরোর (সিআইবি) প্রতিবেদন অনুযায়ী বিকল্পধারার প্রার্থী মেজর (অবঃ) আব্দুল মান্নানের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ব্যাংকে ঋণ খেলাপির অভিযোগ রয়েছে। তিনি ৩ কোটি ২৯ লাখ টাকার ট্যাক্স পরিশোধ করেননি। এসব অভিযোগে তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

এর আগে রবিবার লক্ষ্মীপুর-১ (রামগঞ্জ) ও লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুর-সদর আংশিক) আসনে ৭ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল করেছেন জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক সুরাইয়া জাহান। এর মধ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য হাবিবুর রহমান পবন (স্বতন্ত্র) এর মনোনয়নপত্রও বাতিল করা হয়। এছাড়া হলফনামা তথ্যে গড়মিল থাকায় তৃণমূল বিএনপির প্রার্থী এমএ আউয়ালের মনোনয়ন স্থগিত রাখা হয়েছে। একই সঙ্গে মোট ১৪ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে।


বিডি প্রতিদিন/এএম

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর