শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:১৮

নির্বাচন হবে প্রতিযোগিতামূলক

নিজস্ব প্রতিবেদক

নির্বাচন হবে প্রতিযোগিতামূলক

ঢাকা সিটি নির্বাচন অত্যন্ত প্রতিযোগিতামূলক ও সুষ্ঠু হবে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। তিনি বলেন, প্রথমবারের মতো ঢাকা সিটি নির্বাচনে ইভিএমের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নতুন এ পদ্ধতির জন্য ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের যথেষ্ট প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। এখন ভোট কেন্দ্রে ভোটারদের সর্বাত্মক সহযোগিতা করতে পারবেন তারা। এ পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণে কোনো ধরনের কারচুপির সুযোগ নেই। গতকাল ইভিএম মেশিন বিতরণ কার্যক্রম পরিদর্শনে গিয়ে ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল ও কলেজে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সিইসি এসব কথা বলেন। পর্যাপ্ত নিরাপত্তার মধ্যে ভোটাররা নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পারবেন এবং নির্বাচনে কোনো ধরনের পক্ষপাতিত্বের সুযোগ নেই বলেও মন্তব্য করেন তিনি। সিইসি বলেন, কমিশনের ওপর রাজনৈতিক দলগুলোর আস্থা ফিরে আসবে কিনা সেটা আমি জানি না। আস্থার বিষয়টা নির্ভর করে মানুষের মন-মানসিকতার ওপর। বাংলাদেশে নির্বাচন কমিশনের ওপর সব রাজনৈতিক দলের আস্থা ছিল এমন ইতিহাস নেই। তাই সেসব নিয়ে আমরা ভাবছি না।’

কেউ বললেই কেন্দ্র থেকে বেরিয়ে যাবেন না, এজেন্টদের পরামর্শ সিইসির : সিইসি কে এম নূরুল হুদা বলেছেন, এজেন্টদের প্রতি অনুরোধ, তারা যেন দায়িত্ব নিয়ে সেখানে থাকেন। কেউ বলল আর তিনি বেরিয়ে যাবেন, সেটা যেন না করেন। এ ধরনের ঘটনা যদিও না ঘটনার সম্ভাবনা বেশি। তারপরও যদি ঘটে, সঙ্গে সঙ্গে প্রিসাইডিং অফিসারের সাহায্য নেবেন। বাইরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের জানাবেন। বাইরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর টহল থাকবে, তাদের জানাবেন। নিজে থেকে যদি বেরিয়ে না যান, তাহলে এজেন্টেদের বের করে দেওয়ার সুযোগ নেই। গতকাল সন্ধ্যায় রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে সংবাদ সম্মেলনে সিইসি এ আহ্বান জানান।

সিইসি বলেন, কোনো এজেন্টকে বের করে দেওয়া হলে তারা যেন সঙ্গে সঙ্গে রিটার্নিং কর্মকর্তাকে জানান। রিটার্নিং কর্মকর্তা ব্যবস্থা নেবেন। এ জন্য ইসির কাছে যাওয়ার প্রয়োজন হবে না। রিটার্নিং কর্মকর্তাই যথেষ্ট। সিইসি আরও বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে তিনি আগেই বলেছেন, এজেন্টদের ‘শেল্টার’ দিতে হবে। তারা ভোট কেন্দ্রে প্রবেশ করার পর তাদের দেখভালের দায়িত্ব নির্বাচন পরিচালনার সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের। তবে অনেক সময় এজেন্ট কাউকে না জানিয়ে বেরিয়ে যায়। আর বলা হয়, এজেন্ট নেই। সে রকম হলে হবে না।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর