৯ জুন, ২০২২ ১১:৫৫

যে শহরের যুদ্ধ নির্ধারণ করতে পারে পূর্ব ইউক্রেনের ভাগ্য

অনলাইন ডেস্ক

যে শহরের যুদ্ধ নির্ধারণ করতে পারে পূর্ব ইউক্রেনের ভাগ্য

সংগৃহীত ছবি

পূর্ব ইউক্রেন তথা ডোনবাসের যুদ্ধের ফলাফল কী হবে তা সেভারোডোনেটস্ক শহরের যুদ্ধের উপর নির্ভর করবে বলে জানিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি।

তিনি বলেন, “অনেক ক্ষেত্রেই, ডোনবাসের ভাগ্যে কী জুটবে তা সেখানেই নির্ধারিত হচ্ছে।”

এমন এক সময় তিনি একথা বললেন যখন রুশ এবং বিচ্ছিন্নতাবাদী বাহিনীর সাথে শিল্পাঞ্চল এলাকায় যুদ্ধ চলছে।

তিনি দাবি করেছেন, তার সৈন্যরা শত্রুবাহিনীর বড় ধরনের ক্ষতি করতে পেরেছে।

তবে ওই এলাকায় থাকা ইউক্রেনের শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তারা বলেছেন, ইউক্রেনীয় বাহিনীকে রুশ বাহিনী শহরের বাইরে পুশ ব্যাক করেছে।

লুহানস্ক অঞ্চলের গভর্নর সের্হি হাইদাই বলেছেন, রাশিয়ার গোলা নিক্ষেপ এবং বিমান হামলা বাড়ানোর পর বিশেষ বাহিনী পিছু হটেছে।

“আমাদের বাহিনী এখন আবার শুধুমাত্র শহরের বাইরের অংশ নিয়ন্ত্রণ করছে,” তিনি স্থানীয় গণমাধ্যমকে বলেন।

তিনি আরও বলেন, “এটা বলা অসম্ভব যে রাশিয়ানরা শহরটিকে পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ করে।”

গভর্নর বলেন, প্রায় ১৫ হাজার বেসামরিক লোক সেভারোডোনেটস্ক এবং নিকটবর্তী শহর লিসিচানস্কে রয়েছেন।

বুধবার রাশিয়া বলেছে, ইউক্রেন ডোনবাসে জনশক্তি, অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জামের ক্ষেত্রে মারাত্মক ক্ষতির শিকার হয়েছে।

মার্চের শেষের দিকে যখন রাশিয়ার সেনারা রাজধানী কিয়েভের আশপাশ থেকে পিছু হটে, তখন যুদ্ধের কেন্দ্রবিন্দু পূর্ব ইউক্রেনের দিকে সরে যায়। ২০১৪-১৫ সালের যুদ্ধের পর থেকেই ডোনবাসের বড় অংশ রাশিয়া-সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদীদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

অন্যদিকে জাতিসংঘের প্রধান আন্তোনিও গুতেরেস সতর্ক করেছেন যে রাশিয়ার আগ্রাসনের পরিণতি বিশ্বের জন্য খারাপ হচ্ছে। প্রায় ১.৬ বিলিয়ন মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

তিনি বলেন, “খাদ্য নিরাপত্তা, শক্তি এবং অর্থের উপর যুদ্ধের প্রভাব পদ্ধতিগত, গুরুতর এবং দ্রুততর হয়ে উঠছে।” সূত্র: বিবিসি বাংলা

বিডি প্রতিদিন/কালাম

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর