শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১৮ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ মার্চ, ২০২০ ০০:০৫

কাঁপছে বিশ্ব অর্থনীতি

কাঁপছে বিশ্ব অর্থনীতি
অর্থনীতির সূচক কমছেই (প্রতীকী ছবি)

মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়া নভেল করোনাভাইরাসের প্রভাবে বৈশ্বিক প্রবৃদ্ধির অন্যতম নিয়ামক চীনের অর্থনীতিতে দুর্যোগ নামার পর আমেরিকা ও ইউরোপজুড়ে রেস্তোরাঁ, দোকানপাট, বিমান চলাচল ও কারখানা বন্ধ হওয়ার প্রেক্ষাপটে বিশ্বমন্দা আর আশঙ্কা নয়, বাস্তবে রূপ নিতে শুরু করেছে বলে সতর্ক করেছেন অর্থনীতিবিদরা। এদিকে ভারতের বিরোধী দল কংগ্রেসের নেতা রাহুল গান্ধী বলেছেন, এই অবস্থা চলতে থাকলে ভারত ছয় মাসের মধ্যে ভয়াবহ অর্থনৈতিক বিপর্যয়ে পড়বে। এদিকে সোমবার চীন অর্থনৈতিক দুরবস্থার যে তথ্য প্রকাশ করেছে, তাতে বিশ্লেষকদের ধারণার চেয়েও বাজে চিত্র ফুটে উঠেছে। ১৯৮৯ সালে জিডিপির প্রান্তিক তথ্য প্রকাশ শুরুর পর প্রথম ধসের মধ্যে পড়ল বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতি। জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের আঘাতে জর্জরিত দেশটির শিগগিরই পুনরুদ্ধারের সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ। এই মহামারী নিয়ন্ত্রণে ইউরোপ ও উত্তর আমেরিকা সরকার ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলো যখন কঠোর পদক্ষেপ নিচ্ছে, উচ্চ সতর্ক অবস্থায় রয়েছে এশিয়া, আর্থিক বাজারগুলোতে নেমেছে ধস, তখন বেশি সংখ্যায় বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বৈশ্বিক অর্থনৈতিক ধসের সূচনা হচ্ছে। ফেডারেল রিজার্ভ বোর্ডের গবেষণা ও পরিসংখ্যান বিভাগের সাবেক  প্রধান ডেভিড উইলকক্স সিএনএন বিজনেসকে বলেন, ‘১০ দিন আগেও বিশ্ব অর্থনীতি মন্দার দিকে মোড় নিচ্ছে কিনা তা নিয়ে বাস্তব অনিশ্চয়তা ছিল, কিন্তু এখন এটি নিয়ে আর কোনো প্রশ্ন  নেই।’ এ বছরের প্রথম দুই মাসে কর্মকান্ডের স্থবিরতার কারণে চীনা অর্থনীতির প্রতিটি খাত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

জাতীয় পরিসংখ্যান ব্যুরোর তথ্য অনুযায়ী, জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে চীনের খুচরা বিক্রি আগের বছরের একই সময়ের  চেয়ে ২০ দশমিক ৫ শতাংশ কমেছে। অথচ ব্লুমবার্গের জরিপে ৪ শতাংশ হারে কমার এবং রয়টার্সের জরিপে উল্টো দশমিক ৮ শতাংশ বাড়ার পূর্বাভাস দিয়েছিলেন বিশ্লেষকরা। ট্রাম্প প্রশাসনের সাবেক শীর্ষ অর্থনীতিবিদ কেভিন হাসেট সিএনএনের পপি হারলোকে বলেন, ‘শতভাগ বৈশ্বিক মন্দার পরিস্থিতির প্রায় কাছাকাছি আমরা।’


আপনার মন্তব্য