শনিবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ টা

নিউজিল্যান্ডে নজরদারিতে থাকা ব্যক্তির এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত

নিউজিল্যান্ডের অকল্যান্ডে একটি সুপারমার্কেটে একজন ‘সহিংস উগ্রপন্থি’ ছুরি মেরে অন্তত ছয় ব্যক্তিকে আহত করার পর পুলিশ তাকে গুলি করে হত্যা করেছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন ওই ঘটনাকে ‘সন্ত্রাসী হামলা’ বলে বর্ণনা করেছেন এবং বলেছেন পুলিশের নজরদারিতে থাকা একজন শ্রীলঙ্কার নাগরিক এই হামলা চালিয়েছে। শ্রীলঙ্কান ব্যক্তির নাম পরিচয় জানানো হয়নি। তবে মিজ আরডার্ন বলেছেন ওই ব্যক্তি ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গি গোষ্ঠীর সদস্য। গতকাল ওই ব্যক্তি হামলা চালানোর ৬০ সেকেন্ডের মধ্যে পুলিশ তাকে হত্যা করে। আরডার্ন  বলেন, ‘আজ যা ঘটেছে তা জঘন্য, এটা ঘৃণার প্রকাশ, এটা অন্যায়। আহত ছয় জনের মধ্যে তিন জনের অবস্থা সংকটজনক এবং একজনের আঘাত গুরুতর বলে স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

হামলা শুরু কীভাবে : গতকাল বিকালে নিউলিন জেলার লিন মলে কাউন্টডাউন সুপারমার্কেটে এই ঘটনা ঘটেছে। হামলাকারী দোকানেরই একটি আলমারির ভিতর বিক্রির জন্য রাখা বড় একটা ছুরি নিয়ে মানুষকে এলোপাতাড়ি কোপাতে শুরু করে বলে খবরে জানা গেছে। পুলিশের নজরদারি দল গোটা সময়টাই কাছাকাছি ছিল। একজন প্রত্যক্ষদর্শী নিউজিল্যান্ডের সংবাদ চ্যানেল স্টাফ এনজেড-কে বলেন, সুপারমার্কেটের ভিতর একটা ত্রাসের সৃষ্টি হয়। ভিডিও ফুটেজে দেখা যায় পুলিশের গুলির আওয়াজ শোনার আগেই উদভ্রান্ত মানুষ ছুটে পালাচ্ছে।

হামলাকারী সম্পর্কে কী জানা যাচ্ছে : হামলাকারীর পরিচয় আদালতের নির্দেশ থাকায় প্রকাশ করা যায়নি। তবে ওই ব্যক্তি ২০১১ সালের অক্টোবর মাসে নিউজিল্যান্ডে যান। জাতীয় নিরাপত্তার কারণে ২০১৬ সাল থেকে তিনি পুলিশের নজরদারির আওতয় আসেন। ২৪ ঘণ্টা তার গতিবিধি নজরে রাখা হচ্ছিল এবং তার ওপর কড়া নজরদারি ছিল। ২০১৯ সালে নিউজিল্যান্ডে ভয়াবহ এক সন্ত্রাসী হামলায় ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদে গুলি চালিয়ে এক শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্ববাদী নামাজ পড়তে যাওয়া ৫১ মুসলিমকে হত্যা করেছিল।