Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ৫ নভেম্বর, ২০১৫ ১৫:৩৭

‘বাংলাদেশের উন্নয়ন এবং গণতন্ত্র’ শীর্ষক

বিডিআই কনফারেন্স শুক্রবার থেকে

নিউইয়র্ক থেকে এনআরবি নিউজ :

বিডিআই কনফারেন্স শুক্রবার থেকে

‘বাংলাদেশের উন্নয়ন এবং গণতন্ত্র: চলতি সমস্যা এবং সম্ভাবনা’ শীর্ষক ৩ দিনের আন্তর্জাতিক সম্মেলন আগামীকাল শুক্রবার থেকে শুরু হবে ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার বার্কলে ক্যাম্পাসে। আয়োজন করেছে আমেরিকার একদল মেধাবি প্রবাসীর সমন্বয়ে গঠিত ‘বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ইনিসিয়েটিভ’ (বিডিআই) (Bangladesh Development Initiative-bdi)। কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, অস্টিন, যুক্তরাজ্য, বাংলাদেশ, সুইডেন, জার্মানি এবং স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্রের দুই শতাধিক স্কলার, বিজ্ঞানী, গবেষক, প্রকৌশলী, রাষ্ট্রবিজ্ঞানী, স্বাস্থ্য-বিশেষজ্ঞ, গৃহায়নও নগরায়ন বিশেষজ্ঞ, অর্থনীতিবিদ, শিক্ষাবিদ অংশ নেবেন। 

সম্মেলনের উদ্বোধনী সেশনে ‘কেন্দ্রীয় ব্যাংকের উন্নয়নমূলক বিভিন্ন উদ্যোগের স্থায়ী সুফল’ (Stability Outcomes of Bangladesh Bank’s Developmental Central Banking Initiatives) শীর্ষক  বক্তব্য উপস্থাপন করবেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান। একই সেশনে ঢাকায় মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্সিয়া ব্লুম বার্নিকেটের ‘যুক্তরাষ্ট্র-বাংলাদেশ সম্পর্ক : একটি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ভবিষ্যত’ (US-Bangladesh Relations:A Promising Future) শীর্ষক লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করবেন ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাসের জনসংযোগ কর্মকর্তা অ্যান ম্যাককনেল ( Ann McConnell, Public Affairs Officer, U.S. Embassy, Dhaka)। 

৩ দিনে ডজনখানেক সেমিনারের অন্যতম হচ্ছে ‘ধর্ম এবং বাংলাদেশ : বর্তমান পরিস্থিতি, ভবিষ্যৎ ধারা’, ‘তৈরি পোশাক শিল্প : নারী শ্রমিক’, ‘নারীর ক্ষমতায়ন’, ‘প্রত্যন্ত অঞ্চলে স্বাস্থ্য-সেবা’, ‘জাতীয় উন্নয়ন-অগ্রগতিতে রেমিট্যান্সের অবদান’, ‘তথ্য-প্রযুক্তির উৎকর্ষ সাধন’, ‘ক্ষুদ্র অর্থনীতির প্রভাব সামগ্রিক উন্নয়নে’, ‘বাংলাদেশের উন্নয়ন ও গণতন্ত্রে শিক্ষার ভ’মিকা’, ‘ব্যবসা এবং রেমিট্যান্সের মাধ্যমে উন্নয়ন’, ‘গ্রামবাংলা থেকে টেকসই নগর’, ‘দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা এবং পরিবেশ সুরক্ষা’, ‘রাজনৈতিক উন্নতি ব্যতিত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি সম্ভব নয়’ ইত্যাদি। 

এটি হচ্ছে বিডিআই’র ষষ্ঠ সম্মেলন।  এর আগের সম্মেলনগুলো হয়েছে ১৯৯৫ সালে ইউনিভার্সিটি অব পিটসবার্গে ‘বাংলাদেশের সামাজিক-অর্থনৈতিক উন্নয়ন’ শিরোনামে, ২০০৮ সালে হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটিতে ‘একবিংশ শতাব্দিতে বাংলাদেশ’ শিরোনামে, ২০০৯ সালেও হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটিতে ‘বাংলাদেশের উন্নয়নে উদ্ভাবন এবং চিন্তা-ভাবনা : পরবর্তী দশক’ শিরোনামে, ২০১১ সালে ঢাকায় ‘নিজেদের চিন্তা-চেতনার ক্যাপিটল গুডস ইন্ডাস্ট্রি এবং এনালাইসিস সেন্টার স্থাপন’ শিরোনামে এবং সর্বশেষ ২০১৩ সালে ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার বিশ্বখ্যাত বার্কলে ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত হয় ‘নীতি এবং কর্মকৌশলের মধ্যে সেতুবন্ধন : বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জ এবং সম্ভাবনা’ শিরোনামে।   

ক্লার্ক কের সেন্টারে অনুষ্ঠিতব্য এবারের সম্মেলনের হোস্ট হিসেবে বিডিআইয়ের সাথে রয়েছে এই ইউনিভার্সিটির ইন্সটিটিউট ফর দ্য সাউথ এশিয়া স্টাডিজ এবং সুবির এন্ড মলিনি চৌধুরী সেন্টার ফর বাংলাদেশ স্টাডিজ। এ সম্মেলনেও স্টেট ডিপার্টমেন্ট এবং বাংলাদেশ সরকারের প্রতিনিধিরা অংশ নেবেন বলে আয়োজকরা জানান। থাকবেন বিষয়ভিত্তিক স্কলার, শিক্ষাবিদ, অর্থনীতিবিদ, নীতি-নির্দ্ধারক, শিল্পপতি, সামাজিক কর্মে বিশেষভাবে পারদর্শী, গবেষক এবং উন্নয়ন সংস্থার প্রতিনিধিরা। 


বিডি-প্রতিদিন/ ০৫ নভেম্বর, ২০১৫/ রশিদা


আপনার মন্তব্য