শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০২:০১

রানার বদলে সোহেল কেন?

ক্রীড়া প্রতিবেদক

সেমিফাইনাল খেলতে পারছে না বাংলাদেশ। সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে টানা চার আসরে গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিল লাল-সবুজের দল। তবু কোচ জেমি ডে শিষ্যদের পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট। বললেন, সব জায়গাতেই আমি উন্নতি দেখছি। আফসোস বলতে দুই ম্যাচ জিতেও সেমিফাইনাল না খেলতে পারা। নেপালের বিপক্ষে ড্র করলেই বাংলাদেশ শেষ চারে জায়গা করে নিত। তা আর হলো কই? ২-০ গোলে হেরে ঘরের মাঠে সেমিফাইনাল ও ফাইনালে দর্শক হয়ে বসে থাকতে হবে জামালদের। অথচ গতকাল ম্যাচের ৩০ মিনিট পর্যন্ত সমানতালে লড়ে বাংলাদেশ। কিন্তু ৩২ মিনিটে গোলরক্ষক সহিদুল আলম সোহেলের হাস্যকর ভুলে গোল হজম করে ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়ে জেমির শিষ্যরা। পরে আর সমতা ফেরাতে পারেনি। স্বাভাবিকভাবে কাল ম্যাচ শেষে কোচের কাছে প্রশ্ন ছিল, দলে নির্ভরযোগ্য গোলরক্ষক থাকার পরও কেন সোহেলকে খেলানো হলো। কোচ স্বীকারও করেছেন, বাজেভাবে গোল খাওয়ায় ম্যাচে প্রভাব পড়েছে। কিন্তু এমন ভুল সোহেল প্রথম করলেন, তা নয়। কিছুদিন আগে নীলফামারীতে বসুন্ধরা কিংস হোম ভেন্যুতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে বাজে গোল খেয়ে বাংলাদেশকে হারান তিনি। এরপরও সোহেলকে বার বার কেন সেরা একাদশে সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। আশরাফুল রানাকে খেলানো হয়নি কেন? উত্তর যেন তৈরিই ছিল জেমির, ‘এশিয়ান গেমসে রানাও অনেক ভুল করেছে। আজ রানা থাকলেও হয়তো সে একই ভুল করত। সুতরাং সোহেলকে নামানোটা আমার ভুল ছিল না। একটা ভুল হতেই পারে। তাই বলে কাউকে দোষ দেওয়া ঠিক হবে না। বাংলাদেশ ঘরের মাঠে সাফ থেকে বিদায় নেওয়ায় দর্শকরা হতাশায় ভেঙে পড়েছেন। এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু আমি বলব, হুট করে ফুটবলে পরিবর্তন সম্ভব নয়। এর জন্য সময় ও পরিকল্পনা দরকার।


আপনার মন্তব্য