Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:১৯

উত্তর পতেঙ্গাবাসী যানজটে নাকাল

ফারুক তাহের, চট্টগ্রাম

উত্তর পতেঙ্গাবাসী যানজটে নাকাল

সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত হলেও এখনো অনেক নাগরিকসেবা থেকে বঞ্চিত ৪০ নম্বর উত্তর পতেঙ্গা ওয়ার্ডবাসী। সাড়ে ৫ বর্গকিলোমিটার আয়তনের ও আড়াই লাখ বাসিন্দার এ ওয়ার্ডে রয়েছে কর্ণফুলী ইপিজেড (রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল), একাধিক কনটেইনার ডিপোর সঙ্গে রয়েছে দেশের একমাত্র তেল পরিশোধনাগার ইস্টার্ন রিফাইনারি, ইস্টার্ন কেবলস লি. ও জেনারেল ইলেকট্রিক ম্যানুফ্যাকচারিং প্লান্টের মতো স্থাপনা। তবুও এ ওয়ার্ডবাসী পান না ওয়াসার নিয়মিত পানি, নেই গ্যাস সংযোগ ও কোনো ফায়ার সার্ভিস স্টেশন। অনেক উপসড়ক এখনো কাঁচা। সামান্য বৃষ্টি হলেই আছে জলাবদ্ধতার চরম ভোগান্তি। জলজটের পাশাপাশি যানজট ও কনটেইনার ডিপোগুলোর কাভার্ড ভ্যানের যন্ত্রণায়ও অতিষ্ঠ এ এলাকার বাসিন্দারা। বিগত কয়েক বছরে চাঁদাবাজি, মাদক ইত্যাদি বিষয়ও প্রকট আকার ধারণ করেছে এ ওয়ার্ডে। উত্তর পতেঙ্গা ওয়ার্ডে স্থানীয়দের চেয়ে বহিরাগতের সংখ্যাই বেশি। তারাই কাউন্সিলর প্রার্থীদের ভোটব্যাংক। বিশেষ করে শ্রমিক শ্রেণির লোকজন এ ওয়ার্ডে বেশি। কাউন্সিলর হাজী মো. জয়নাল আবেদীন এলাকার জলাবদ্ধতা, মাদক, চাঁদাবাজি ইত্যাদি রোধের ঘোষণা দিয়ে গত নির্বাচনে জয়লাভ করলেও এসব সমস্যার সমাধান হয়নি বলে জানা গেছে।

সরেজমিন জানা যায়, এলাকার অধিকাংশ মানুষ ওয়াসার পানি পান না। তাই অগভীর নলকূপ ও কিছু কিছু এলাকার লোকজন পুকুরের পানিও গার্হস্থ্য কাজে ব্যবহার করেন। চট্টগ্রামের অন্যতম একটি গুরুত্বপূর্ণ এই ওয়ার্ড দিন-রাতের বড় একটি সময় থাকে যানজটে স্থবির। চট্টগ্রাম বন্দর ও ইস্টার্ন রিফাইনারি তেলের ভাউচার ও অন্যান্য শিল্প কারখানার ভারী যানে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী। স্থানীয় বাসিন্দা আবদুল মাবুদ জানান, এখানকার অধিবাসীরা যানজটের কারণে দিনের অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজ সারতে পারেন না। একটা কাজের জন্য আগ্রাবাদ এলাকায়ও যদি যেতে-আসতে হয়, তাহলে ২ থেকে ৩ ঘণ্টা লেগে যায়। ওয়ার্ড কাউন্সিলর জয়নাল আবেদীন বলেন, এলাকায় মানুষ বাড়ছে, ব্যবসা বাড়ছে কিন্তু অবকাঠামোগত উন্নয়ন বাড়ছে না।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর