Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ নভেম্বর, ২০১৮ ২২:৫৭

বিসিসি’র সভায় মেয়র সাদিক

বিগত পরিষদগুলো জনগণের সঙ্গে প্রতারণা করেছে

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

বিগত পরিষদগুলো জনগণের সঙ্গে প্রতারণা করেছে

বরিশাল সিটি করপোরেশনের মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ বলেছেন, বাইরে থেকে সিটি করপোরেশন দেখতে যেমন ভিতরে তার চেয়েও খারাপ অবস্থা। এখানে কোনো রেকর্ড রুম নেই। কতজন কর্মকর্তা-কর্মচারী আছেন, কত টাকা রাজস্ব আদায় হয়, কী পরিমাণ সম্পদ আছে কেউ জানেন না। আগে তাদের বেতন দেওয়া হতো নগদ টাকায়। এখন থেকে তিনি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট কিংবা চেক ছাড়া কোনো নগদ টাকায় বেতন-ভাতা পরিশোধ করবেন না। কারণ তিনি কোনো দুর্নীতির দায়ভার নেবেন না। গতকাল বিকালে বরিশাল সিটি করপোরেশনের চতুর্থ পরিষদের প্রথম সভায় মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ এসব কথা বলেন। নগর ভবনের হল রুমে অনুষ্ঠিত সভায় মেয়র সাদিক বলেন, জনগণের টাকায় সিটি করপোরেশনের বিগত পরিষদগুলো বরিশালবাসীর সঙ্গে প্রতারণা করেছে। বিগত দিনে বিসিসিতে সাগর চুরি হয়েছে। সিটি করপোরেশনে স্থায়ী-অস্থায়ী মিলিয়ে ২ হাজার ৬শ কর্মকর্তা-কর্মচারী আছে। অথচ নগর ভবনে ৩শ কর্মকর্তা-কর্মচারী বসার জায়গা নেই।

 সাদিক বলেন, একটা পরিকল্পিত নগরী গড়তে দক্ষ জনবল প্রয়োজন। কিন্তু বরিশাল সিটি করপোরেশনে দক্ষ জনবল দেখছেন না। যারা গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন পদে আছেন, তারা সেই পদের যোগ্য কিনা তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেন তিনি। বিসিসির সদ্য যোগদানকারী প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খাইরুল আলমের সঞ্চালনায় প্রথম সভায় প্রধান প্রকৌশলী খান মো. নুরুল ইসলামসহ ৪০ জন সাধারণ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর