Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০২:০১

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে স্মারকলিপি

সাগর-রুনি হত্যার বিচারে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা

নিজস্ব প্রতিবেদক

সাগর-রুনি হত্যার বিচারে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা

সাংবাদিক দম্পতি সাগর সারওয়ার ও মেহেরুন রুনি হত্যাকাণ্ডের বিচারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নেতারা। একই সঙ্গে দ্রুত বিচার দাবি করেছেন তারা। গতকাল ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি চত্বরে আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশ  শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। সমাবেশে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি ইলিয়াস হোসেনের সভাপতিত্বে সভায়  বিএফইউজের একাংশের মহাসচিব এম আবদুল্লাহ, ডিইউজের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কুদ্দুস আফ্রাদ, ডিআরইউর সাবেক সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন বাদশা, সাধারণ সম্পাদক কবির আহমেদ খান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপু, মুরসালিন নোমানী, নির্বাহী সদস্য বাদল নূর প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। এ সময় রুনির ভাই নওশের আলম রোমান ও ছেলে মাহির সারওয়ার মেঘ উপস্থিত ছিলেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটনে সরকার আন্তরিক। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে সাংবাদিক নেতারা বলেন, আর কালক্ষেপণ না করে দ্রুততম সময়ে মামলার সুষ্ঠু তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দিতে হবে এবং প্রকৃত খুনিদের মুখোশ উন্মোচন করে তাদের গ্রেফতার করতে হবে। আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি যে তারিখ নির্ধারিত রয়েছে সেই তারিখেই যেন আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল হয়।

২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি রাতে ঢাকার পশ্চিম রাজাবাজারে নিজ বাসায় খুন হন মাছরাঙা টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক সাগর সারওয়ার ও এটিএন বাংলার জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রুনি।

পরে রুনির ভাই নওশের আলম রোমান রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। গত সাত বছরে আদালতের ধার্য করা ৬২টি তারিখেও মামলার তদন্ত প্রতিবেদন জমা পড়েনি। বর্তমানে মামলার তদন্ত করছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। গত ৯ জানুয়ারি মামলাটির তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য ছিল। এদিন মামলার তদন্ত সংস্থা প্রতিবেদন জমা না দেওয়ায় ঢাকা মহানগর হাকিম দেবব্রত বিশ্বাস আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি প্রতিবেদন জমা  দেওয়ার সময় বেঁধে দেন।


আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর