শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ৮ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৭ নভেম্বর, ২০২০ ২৩:২১

মহাসড়ক প্রশস্তকরণ কাজে ধীর গতি, দুর্ভোগে দুই জেলার মানুষ

দিনাজপুর প্রতিনিধি

মহাসড়ক প্রশস্তকরণ কাজে ধীর গতি, দুর্ভোগে দুই জেলার মানুষ
দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ মহাসড়ক -বাংলাদেশ প্রতিদিন
Google News

দিনাজপুর ও গাইবান্ধা জেলার সংযোগকারী আঞ্চলিক মহাসড়ক প্রশস্তকরণ কাজে ধীর গতি। ফলে দুর্ভোগ ও বিড়ম্বনায় শত শত মানুষ। করোনাকালীন দুর্যোগে নির্মাণ ও মেরামত কাজ ঢিমেতাল চললেও দিনাজপুর-গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার ১০৬ কিলোমিটার আঞ্চলিক এ মহাসড়কের প্রশস্তকরণের কাজের গতি বাড়েনি। এই মহাসড়কের কোনো স্থানে ঢিমেতাল আবার কোনো স্থানে খানাখন্দের কারণে দিন দিন দুর্ভোগ বাড়ছে।  এছাড়া মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানে খোঁড়াখুঁড়ি, খোয়া ও মাটি ফেলা, গাছকাটা এবং কার্লভাট নির্মাণের কারণে বেশিরভাগ সড়কের বিভিন্ন অংশে রয়েছে নানা ধরনের প্রতিবন্ধকতা। এতে বড় বড় যানবাহন এখন রংপুর-সৈয়দপুর এবং চিরিরবন্দর-পার্বতীপুর হয়ে দিনাজপুর ও পঞ্চগড় যাতায়াত করছে। এতে মোহনপুর টোল প্লাজার টোল আদায় কমে গেছে। করোনা পরিস্থিতির কারণে নির্মাণ কাজে বিঘ্ন ঘটায় প্রকল্পটি শেষ হতে নির্ধারিত সময়ের চেয়ে বেশি সময় লাগতে পারে বলে সড়ক বিভাগ জানায়। এই সড়কে চলাচলকারী কয়েকজন ট্্রাক ও বাসচালক জানান, দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ সড়ক দিয়ে তারা গাড়ি নিয়ে যেতে পারছেন না। সড়ক উন্নয়নের জন্যে খোঁড়াখুঁড়িতে রাস্তার বেহাল দশায় পড়েছে। খানাখন্দকে পড়ে গাড়ির স্প্রিংপাতি ভাঙাসহ নানান রকমের ক্ষতি হচ্ছে যানবাহনের। ফলে এ সড়কে প্রয়োজন ছাড়া অন্য কেউ যাতায়াত করেন না। তারা অনেকটা ঘুরে রংপুর-সৈয়দপুর হয়েই দিনাজপুর ঠাকুরগাঁও ও পঞ্চগড় যাতায়াত করছেন। ফলে মোহনপুর টোল পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠানের টোল আদায় অর্ধেকের নিচে নেমে গেছে।

 দিনাজপুর সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ) কার্যালয় সূত্র জানায়, ২০১৮ সালের জুলাই থেকে দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কে (আর-৫৮৫) ৯টি প্যকেজের মাধ্যমে ১০৬ কিলোমিটার প্রশস্তকরণের কাজ শুরু হয়েছে। মহাসড়কটি বর্তমানে ৫ দশমিক ৫ মিটার রয়েছে। এটি বাড়িয়ে ৯ দশমিক ৭ মিটার প্রশস্ত করা হচ্ছে। এই রাস্তায় নতুন করে ১০০ কার্লভাট ১২ দশমিক ২০মিটার প্রশস্তকরণ করা হচ্ছে। প্রশস্তকরণ কাজ ও কার্লভাট নির্মাণ ছাড়াও রাস্তার পাশের বৈদ্যুতিক খুঁটি স্থানান্তর, বাজার অংশে রিজিড পেভমেন্ট নির্মাণ, ড্রেন নির্মাণসহ অন্যান্য কাজও হবে। রাস্তার যাবতীয় নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় ৮৮৩ কোটি টাকা। এ বিষয়ে দিনাজপুর সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সুনীতি চাকমা জানান, দ্রুতগতিতে দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ সড়কটির প্রশস্তকরণ কাজ চলছে। বর্ষা ও করোনাকালীন দুর্যোগে ম্যাটেরিয়াল সংকট থাকায় কাজে কিছুটা বিঘœ ঘটলেও এখন পুষিয়ে নেওয়ার চেষ্টা চলছে। আগামী ২০২১ সালের ৩০ জুনের মধ্যে ৯টি প্যাকেজের এই রাস্তাটি নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর