শিরোনাম
প্রকাশ : ১৯ জুন, ২০১৭ ১৮:২৮
প্রিন্ট করুন printer

স ম আলাউদ্দিন হত্যার বিচার দাবিতে সাংবাদিকদের সোচ্চার হওয়ার আহ্বান

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

স ম আলাউদ্দিন হত্যার বিচার দাবিতে সাংবাদিকদের সোচ্চার হওয়ার আহ্বান
Google News

বিচারহীনতার সংস্কৃতি থেকে বেরিয়ে আসতে হলে সাংবাদিক সমাজকে আরও সোচ্চার হতে হবে। সাতক্ষীরায় সংঘটিত চাঞ্চল্যকর হত্যাকাণ্ডসমূহ দিন দিন চাপা পড়ে যাচ্ছে এই আশঙ্কা ব্যক্ত করে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন আমরা সচেতন হলে এবং প্রতিবাদী হয়ে উঠলেই কেবল এই সংস্কৃতি থেকে বেরিয়ে আসা সম্ভব। সমাজে একটি খুন হবে আর তার বিচার হবে না তা মেনে নেওয়া যায় না। এজন্য প্রতিবাদের ভাষাকে আরও কঠিন করতে হবে। আমরা ন্যায় বিচার চাই। 

সাবেক গণপরিষদ সদস্য, প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা, দৈনিক পত্রদূত সম্পাদক, ভোমরা স্থল বন্দরের প্রতিষ্ঠাতা বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ স ম আলাউদ্দিনের ২১তম শাহাদাৎ বার্ষিকীতে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব আয়োজিত স্মরণ সভায় সাংবাদিক বক্তারা এসব কথা বলেন। 

বক্তরা আরও বলেন, স ম আলাউদ্দিন ছিলেন আমাদের পথপ্রদর্শক, উন্নয়ন ভাবনার রূপকার, শিল্প বান্ধব, অসাম্প্রদায়িক ব্যক্তি এবং ধর্মপ্রাণ মানুষ। তিনি ছিলেন সৎ ও নিষ্ঠাবান রাজনীতিক, সমাজহিতৈষী এবং শিক্ষিত মানব। তার মধ্যে ছিল বিরল সাহস, ছিল একাগ্রতা, আপসহীনতার মনোভাব এবং সৃজনশীল প্রতিভা। মাত্র অর্ধ শতাব্দী পার না হতেই তিনি আততায়ীর গুলিতে প্রাণ হারান। তিনি এমন অসময়ে চলে না গেলে সাতক্ষীরায় প্রভুত উন্নতি হতো। তার মৃত্যু আমাদের সমাজকে বহুদূর পিছিয়ে দিয়েছে। তবে তার অকাল মৃত্যুর পর দুই দশকেরও বেশি সময় পার হলেও আলাউদ্দিন হত্যার বিচার হয়নি। 

সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত স্মরণ সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রেসক্লাব সভাপতি অ্যাড. আবুল কালাম আজাদ। প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবদুল বারীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সাংবাদিক সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক অধ্যক্ষ আবু আহমেদ, সুভাষ চৌধুরী, অধ্যক্ষ আনিসুর রহিম, জিএম মনিরুল ইসলাম মিনি, অধ্যক্ষ আশেক ই এলাহি, কল্যাণ ব্যানার্জি প্রমুখ। 

বক্তরা বলেন, আমরা হত্যার বিচার চাই। বিচারের নামে দীঘসূত্রিতা চাই না। আলাউদ্দিন হত্যার বিচার বাস্তবায়নে প্রয়োজনে মাঠে নামতে হবে। খুনিদের সামাজিকভাবে বয়কট করতে হবে। 

স্মরণ সভার সভাপতি প্রেসক্লাব সভাপতি এড. আবুল কালাম আজাদ বলেন স ম আলাউদ্দিনকে হত্যার মাধ্যমে খুনিরা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। তিনি বলেন, হত্যা মামলার বিচার কার্য শুরু হয়েছে। কিন্তু নানা প্রতিবন্ধকতার কারণে তা পিছিয়ে পড়ছে। আলাউদ্দিন হত্যাকারীদের ন্যায্য বিচার দাবি করে তিনি বলেন, আমরা অপেক্ষায় আছি। এখন সাক্ষ্য প্রমাণ চলছে। এই গতি স্বাভাবিক থাকলে ন্যায্য বিচার পাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করে তিনি আরও বলেন, এখনও বিচারের ব্যাপারে কথিত চাপ রয়েছে। তিনি বলেন, এসব চাপ উল্টে ফেলে ন্যায় বিচার আদায় করতে হবে।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৬ সালের এই দিনে সাতক্ষীরায় দৈনিক পত্রদূত অফিসে কর্মরত অবস্থায় সম্পাদক স ম আলাউদ্দীনকে গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। 

বিডি-প্রতিদিন/১৯ জুন, ২০১৭/মাহবুব

এই বিভাগের আরও খবর