শিরোনাম
প্রকাশ : ২ এপ্রিল, ২০২০ ১৬:০৮
আপডেট : ২ এপ্রিল, ২০২০ ১৬:০৯

ভোলায় সাড়ে ৫ হাজার দরিদ্র পরিবারের পাশে তোফায়েল আহমেদ

ভোলা প্রতিনিধি

ভোলায় সাড়ে ৫ হাজার দরিদ্র পরিবারের পাশে তোফায়েল আহমেদ
তোফায়েল আহমেদের পক্ষে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করছেন জেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

ভোলা-১ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের পক্ষ থেকে ভোলা সদর উপজেলার সাড়ে ৫ হাজার হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সকালে সদর উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডভিত্তিক আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের হাতে ওই খাদ্যসামগ্রী তুলে দেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল মমিন টুলু এবং উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ মোহাম্মদ মোশারেফ হোসেন। নেতাকর্মীরা তালিকা অনুযায়ী ঘরে ঘরে গিয়ে ওই খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিবে। 

এ সময় তৃণমূল আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তোফায়েল আহমেদ বলেন, মরণব্যাধী করোনাভাইরাসের এই দুর্যোগের সময় হতদরিদ্র্য মানুষের পাশে থাকতে হবে। কর্মহীন দরিদ্র্যদের ঘরে ঘরে গিয়ে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিতে হবে। এই সময় প্রত্যেককে নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে সাবধানতার সাথে চলাফেরা ও কাজ করতে হবে। কেউ যেন মনে না করেন এই ছুটি উৎসবের জন্য। প্রত্যেককে যার যার ঘরে থাকতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, আপনাদের জীবন রক্ষা করতে ঘরে থাকতে এ ছুটি দিয়েছেন। কেউ কোথাও ভিড় করবেন না। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখবেন। প্রত্যেককে ধৈর্য্যের সাথে কঠিন সময় মোকাবেলা করতে হবে। নিজেকে ও নিজের পরিবারকে এবং দেশকে রক্ষা করতে হবে। 

আজ বৃহস্পতিবার সকালে ভোলার উপজেলা হলরুমে সাড়ে ৫ হাজার হত দরিদ্যের জন্য ব্যক্তিগত উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণকালে ভিডিও কনফারেন্সে এ সব কথা বলেন তিনি। 

তোফায়েল আহমেদ আরও বলেন, দুর্যোগকালীন যতদিন দরিদ্র্য মানুষকে ঘরে থাকতে হবে, ততদিনই তাদের জন্য খাদ্য সহায়তা দেয়া হবে। প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকেও ইতিমধ্যে জেলা ও উপজেলা প্রশাসন ঘরে ঘরে গিয়ে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন। এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। 

এ সময় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক আব্দুল মমিন টুলু, উপজেলা চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক মো. নজরুল ইসলাম গোলদার, জেলা আওয়ামী লীগ সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক জহুরুল ইসলাম নকিব, ইউপি চেয়ারম্যান ইফতারুল হাসান স্বপন, ইউপি চেয়ারম্যান মো. জসিমউদ্দিন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি তাজল ইসলামসহ ১৩ ইউনিয়নের পক্ষে ১৩ জন। খাদ্যসামগ্রীর প্রতিটি প্যাকেটে ছিল ১০ কেজি চাল, ২ কেজি ডাল, ৭ কেজি আলু, একটি সাবান ও এক কেজি পিয়াজ। 

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম


আপনার মন্তব্য