প্রকাশ : ২৩ এপ্রিল, ২০২১ ১২:৩৪
প্রিন্ট করুন printer

সিদ্ধিরগঞ্জে নৈশ্য প্রহরীকে হত্যা করে কুরিয়ার সার্ভিসে ডাকাতি

সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি


সিদ্ধিরগঞ্জে নৈশ্য প্রহরীকে হত্যা করে কুরিয়ার সার্ভিসে ডাকাতি
Google News

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে নৈশ্য প্রহরীকে হত্যা করে 'ইউএসবি' নামের একটি কুরিয়ার সার্ভিসে শাখায় ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) দিবাগত রাতে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের সিদ্ধিরগঞ্জের পাইনাদী ডরিক মাদানী টাওয়ারে এ ঘটনা ঘটে। 

নৈশ্য প্রহরীদের হাত, পা, বেঁধে ডাকাতরা কুরিয়ার সার্ভিসে রক্ষিত ১৫০টি ব্যাটারী, ওভেন ও ফ্রিজসহ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুটে নেয়। ডাকাতদের প্রহারে মিলন মিয়া (৬০) নামে এক নেশ্য প্রহরী নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এছাড়াও সিদ্দিকুর রহমান নামে অপর এক নৈশ্য প্রহরী আহত হয়েছেন। ঘটনার পর র‌্যাব, পুলিশ, সিআইডি ও পিবিআই এর ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছেন। 

'ইউএসবি' কুরিয়ার সার্ভিস চট্রগ্রামরোড শাখার দায়িত্বরত কর্মকর্তা কোরবান আলী জানান, বৃহস্পতিবার আনুমানিক রাত ২টা ৩০ মিনিট থেকে ৩টার দিকে কয়েকজন অজ্ঞাত ডাকাত ডরিক মাদানী টাওয়ারে হানা দেয়। প্রথমে ডাকাতরা নৈশ্য প্রহরী মিলন মিয়া ও সিদ্দিকুর রহমানকে হাত-পা বেঁধে প্রহার করে মার্কেটের ভেতরে গল্লির মধ্যে ফেলে রাখে। এসময় ‘ইউএসবি’ কুরিয়ার সার্ভিসে শাখায় রক্ষিত ১৫০টি ইজিবাইকের ব্যাটারী, ১টি ওভেন ও টিভি-ফ্রিজসহ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে একটি পিকআপে করে নিয়ে চলে যায়। 

এসময় এশিয়া মটরস নামে পাশের একটি ব্যাটারী চালিত ইজিবাইকের দোকান থেকেও ৮টি ব্যাটারী ও ১৫টি চার্জার নিয়ে যায় বলে জানান দোকান মালিক মিন্টু মিয়া।  

খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে নৈশ্য প্রহরী মিলন মিয়ার লাশ উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ মর্গে প্রেরণ করেছে। নিহত মিলন মিয়ার পিতার নাম মৃত সালামত উল্ল্যাহ। সে নাসিক সিদ্ধিরগঞ্জের ৩নং ওয়ার্ডের মাদানীনগর এলাকার মাওলানা হানিফ মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া। 

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মশিউর রহমান (পিপিএম) জানান, ডরিক মাদানী টাওয়ারের নিচ তলায় পিকআপে কিছু লোকজন এসে মিলন মিয়া নামে নৈশ্য প্রহরী হাত, পাঁ বেধে মারধর ও শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করে কুরিয়ার সার্ভিসের দোকানে তালা কেটে মালামাল নিয়ে যায়। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। লুট হওয়া মালামাল উদ্ধার ও ডাকাতদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।      
      


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ

এই বিভাগের আরও খবর