শিরোনাম
৭ অক্টোবর, ২০২১ ১৬:১৫

নববধূকে ট্রলারে গণধর্ষণ, মামলার প্রধান আসামিসহ গ্রেফতার ৩

পটুয়াখালী প্রতিনিধি

নববধূকে ট্রলারে গণধর্ষণ, মামলার প্রধান আসামিসহ গ্রেফতার ৩

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীতে এক নববধূকে গণধর্ষণের ঘটনায় দেবরসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আজ বৃহস্পতিবার ওই নববধূর বাবা বাদী হয়ে ভিকটিমের চাচাতো দেবর সোলেমানকে প্রধান আসামি করে সাত জনের নামে রাঙ্গাবালী থানায় একটি গণধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

এর আগে গতকাল বুধবার দুপুরে ঘটনার পর ভোর রাতে অভিযান চালিয়ে সোলেমান ব্যাপারী (২২), বাপ্পি প্যাদাকে (২৪) গ্রেফতার করা হয়। পরে সকালে চর নজির গ্রাম থেকে আরিফ খান (২৩) নামের আরেকজন যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে ধৃত আসামিদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

মামলার বরাত দিয়ে রাঙ্গাবালী থানার ওসি জগলুল হাসান জানান, পার্শ্ববর্তী গলাচিপা উপজেলার চর বিশ্বাস গ্রামের রিয়াজ ব্যাপারীর সাথে তিন মাস পূর্বে ওই নববধূর শুভ বিবাহ হয়। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে ওই গৃহবধূ তার শ্বশুরবাড়ি গলাচিপার চরবিশ্বাস গ্রাম থেকে চাচাতো দেবর সোলেমান ব্যাপারীর সাথে বাবার বাড়ি রাঙ্গাবালীর চরবেষ্টনী গ্রামের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয়।

এ সময় চরআগস্তি খেয়াঘাট এলাকায় এসে সোলেমান তাকে লাইনের ট্রলারে না উঠিয়ে আরিফ খান নামের এক যুবকের ট্রলারে উঠিয়ে চর বেষ্টিনের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। পরে দুপুর একটার দিকে সাপের খাল নামক স্থানে পৌঁছলে ট্রলারের ছাউনির মধ্যে ওই গৃহবধূর ইচ্ছার বিরুদ্ধে ট্রলারে থাকা একে একে সাত যুবক পালাক্রমে ধর্ষণ করে। পরে ওই গৃহবধূকে ট্রলার থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

ওসি আরও জানান, পূর্ব পরিকল্পিতভাবে সোলেমান এ গণধর্ষণের ঘটনা ঘটিয়েছে। ট্রলার ভাড়া করে ভাবীকে উঠানোর পর ফোন দিয়ে অন্য আসামিদের এনে ট্রলারে উঠিয়ে রওনা হয় সোলেমান। নববধূর চাচাতো দেবর সোলেমানসহ তিন আসামিকে গ্রেফতারের পর আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। বাকী আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর

এই রকম আরও টপিক

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর