শিরোনাম
২১ নভেম্বর, ২০২৩ ১৮:২৮

কীটনাশক পানে গৃহবধূর আত্মহত্যা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি:

কীটনাশক পানে গৃহবধূর আত্মহত্যা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে শ্বশুর বাড়ির লোকদের সাথে অভিমান করে জুমা আক্তার (২৬) নামে এক গৃহবধূ কীটনাশক ওষুধ পান করে আত্মহত্যার অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার দুপুরে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে পুলিশ। গত সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে নবীনগর পৌরসভার পশ্চিম পাড়া এলাকায় কীটনাশক পান করার ঘটনা ঘটে। নিহত জুমা আক্তার সদর উপজেলার মাছিহাতা ইউনিয়নের কাছাইট গ্রামের দক্ষিণ পাড়ার আবু লাল মিয়ার মেয়ে।

পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ১০ বছর আগে জুমা আক্তারকে নবীনগরের শিবপুর গ্রামের মো. রাশেদ মিয়ার ছেলে সৌদি প্রবাসী ইয়াকুব মিয়া সাথে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে নবীনগর পৌরসভার পশ্চিম পাড়া এলাকায় তারা বসবাস করে আসছেন। বিয়ের পর থেকেই বিভিন্ন বিষয় নিয়ে একাধিকবার শ্বশুর বাড়ির লোকজন তাকে মারধর করেছে। দু’দিন আগেও জুমাকে মারধোর করেছে তারা। এসব বিষয় নিয়ে শ্বশুর বাড়ির লোকদের সঙ্গে অভিমান করে জুমা কীটনাশক ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যা করেন।

জুমার বাবা আবু লাল মিয়ার অভিযোগ, শ্বশুর-শাশুড়ি ও ছোট জা জুমাকে পিটিয়ে হত্যা করেছে। জুমা কীটনাশক ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যা করেনি। হত্যার পর মুখে কীটনাশক ওষুধ ঢেলে দেয়া হয়েছে। 

নবীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মাহবুব আলম জানান, পারিবারিক কলহের জেরে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছে। লাশ ময়নাতদন্ত শেষে নিহতের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছি। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসলে মৃত্যুর সঠিক কারণ বলা যাবে। 

বিডি প্রতিদিন/এএম

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর