শিরোনাম
প্রকাশ : ২৭ জুন, ২০১৯ ১১:১৯

প্রতিনিয়ত ভায়োলেন্স যারা করবে, তারাই আমাদের প্রজাতি

তসলিমা নাসরিন

প্রতিনিয়ত ভায়োলেন্স যারা করবে, তারাই আমাদের প্রজাতি
তসলিমা নাসরিন

কয়েকজন যুবককে সংগে নিয়ে নয়ন নামের এক যুবক সকাল সাড়ে দশটায় বরগুনা শহরের এক কলেজের সামনে রিফাত নামের এক যুবককে রামদা দিয়ে কুপিয়ে মেরেছে। আমরা ভিডিওতে কোপানোর দৃশ্যটি দেখেছি। আইনে তার শাস্তি হবে জেনেও নয়ন দ্বিধা করেনি খুন করতে। মাঝে মাঝে ভাবি, যদি কোনওদিন সরকার থেকে ঘোষণা করা হয় যে, কোনও অপরাধের শাস্তি কেউ পাবে না আজ থেকে! যদি আদালত, কারাগার সব বন্ধ করে দেওয়া হয় আর যদি ধর্মের ভ্যাটিক্যানগুলো জানিয়ে দেয় যে আল্লাহ বা ঈশ্বর বা ভগবান বলে কিছু নেই, ধর্মগুলো সব রূপকথা! তবে কী ঘটবে পৃথিবীতে, তা কি আমরা কল্পনা করতে পারি? নিশ্চয়ই পারি। 

নয়ন যেভাবে রিফাতকে কুপিয়েছে, সেভাবে লক্ষ নয়ন লক্ষ রিফাতকে কোপাবে। লক্ষ মেয়েকে ধর্ষণের শিকার করা হবে, লক্ষ বাড়িঘর ধন সম্পদ লুট করা হবে। লক্ষ শিশুকে হত্যা করা হবে। ভায়োলেন্সের যে রক্তাক্ত ক্লান্ত পৃথিবী দেখবো, সেটাই আমাদের পৃথিবী। প্রতিনিয়ত ভায়োলেন্স যারা করবে, তারাই আমাদের প্রজাতি। বরং এই যে এখন আইন পুলিশ কোর্ট জেল আর দোযখের ভয় দেখিয়ে মানুষের সহজাত প্রবৃত্তি খুনখারাবিকে দাবিয়ে রাখতে পারছি, এর চেয়ে ভালো কিছু আর হতে পারে না।

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)


বিডি-প্রতিদিন/২৭ জুন, ২০১৯/মাহবুব

 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর