Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper

শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ আগস্ট, ২০১৯ ২৩:০৯

গণপিটুনিতে নিহত ২

পাবনা প্রতিনিধি

গণপিটুনিতে নিহত ২

পাবনার সাঁথিয়া উপজেলায় ডাকাতি করে পালানোর সময় এলাকাবাসীর গণপিটুনিতে দুজন নিহত হয়েছেন। নিহত শাহীন ওরফে হলকা শাহীন (৪৫) সাঁথিয়া উপজেলার জোড়গাছা গ্রামের আবদুস সাত্তারের ছেলে। অন্যজনের নাম মাছিম ওরফে কালু (৩৫)। পুলিশের দাবি, এরা চরমপন্থি সর্বহারা দলের সক্রিয় সদস্য ছিলেন। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে পৃথক দুটি মামলা করেছে। নন্দনপুর ইউপি চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম জানান, নিহত শাহীন একজন চিহ্নিত সন্ত্রাসী। তার অত্যাচারে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ ছিল। প্রায় প্রতি রাতেই শাহীনসহ তার সহযোগীরা গ্রামে ঢুকে বিভিন্ন বাড়ি থেকে স্বর্ণালঙ্কারসহ দামি জিনিসপত্র ছিনিয়ে নিত, নারীদের ওপর চালাত পাশবিক নির্যাতন। এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার রাত ৯টার দিকে শাহীন তার তিন সহযোগীকে নিয়ে উপজেলার ছোন্দহ ক্যানেলপাড়া গ্রামের সিদ্দিক করাতির বাড়ি থেকে ডাকাতি করে পালাচ্ছিল। এ সময় ওই বাড়ির লোকদের চিৎকারে এলাকাবাসী এসে তাদের ঘিরে ফেলে। ডাকাতরা ক্যানেলের পানিতে ঝাঁপ দেয়। পরে কচুরিপানার মধ্য থেকে দুজনকে ধরে গণপিটুনি দেয় এলাকাবাসী। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে জনতার রোষানল থেকে গুরুতর আহত অবস্থায় শাহীন ও মাছিমকে উদ্ধার করে সাঁথিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখানে তাদের অবস্থার অবনতি হলে রাতেই পাবনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। সাঁথিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, নিহত শাহীনের বিরুদ্ধে সাঁথিয়াসহ বিভিন্ন থানায় অস্ত্র, খুন, বিস্ফোরক আইনে একাধিক মামলা রয়েছে।

ঘটনাস্থল থেকে এক রাউন্ড তাজা গুলি ও একটি শাটারগান উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনার পর সাঁথিয়া থানার এসআই আবুল কালাম আজাদ বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে নিহত দুজনসহ তিনজনকে আসামি করে একটি এবং গণপিটুনিতে নিহত হওয়ার ঘটনায় অজ্ঞাত ৫০০ থেকে ৭০০ জনকে আসামি অন্য একটি মামলা দায়ের করেছেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর