শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৭ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৬ জানুয়ারি, ২০২০ ২৩:৩৭

ওয়ানটাইম প্লাস্টিক ব্যবহার এক বছরের মধ্যে বন্ধের নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক

ওয়ানটাইম প্লাস্টিক ব্যবহার এক বছরের মধ্যে বন্ধের নির্দেশ

উপকূলীয় অঞ্চলসহ দেশের হোটেল, মোটেল ও রেস্টুরেন্টে একবার ব্যবহারযোগ্য (ওয়ানটাইম) প্লাস্টিক পণ্যের ব্যবহার এক বছরের মধ্যে নিষিদ্ধের নির্দেশ দিয়েছে হাই কোর্ট। একই সঙ্গে পলিথিন ও পলিথিন ব্যাগ ব্যবহার বন্ধে বিদ্যমান আইনি নিষেধাজ্ঞা কঠোরভাবে কার্যকরের জন্য বাজার তদারকি এবং পলিথিন উৎপাদনকারী যন্ত্রপাতি জব্দ ও কারখানা বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। গতকাল এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামানের সমন্বয়ে গঠিত হাই কোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেয়। আগামী বছরের ৫ জানুয়ারির মধ্যে রিটের বিবাদীদের এ আদেশ বাস্তবায়নের বিষয়ে আদালতে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে এবং এ বিষয়ে আগামী বছরের ১০ জানুয়ারি পরবর্তী আদেশের দিন ধার্য করা হয়েছে। আদালত তার রুলে ২০২২ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে সারা দেশে একবার ব্যবহারযোগ্য (ওয়ান টাইম) প্লাস্টিক পণ্যের বিপরীতে নিরাপদ বিকল্প কী হতে পারে সে বিষয়ে কর্মপরিকল্পনা প্রণয়নের নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়েছেন। একই সঙ্গে পলিথিন ব্যাগ বন্ধে বিদ্যমান আইনি নিষেধাজ্ঞা কার্যকরে সরকারকে কেন ব্যর্থ বলা হবে না, রুলে তাও জানতে চাওয়া হয়েছে।

পরিবেশ সচিব, শিল্প সচিব, বাণিজ্য সচিব, পানিসম্পদ সচিব, বেসামরিক ও পর্যটন সচিব, বস্ত্র ও পাট সচিব, পরিবেশ অধিদফতরের মহাপরিচালক ও বাংলাদেশ প্লাস্টিক পণ্য উৎপাদক ও রপ্তানীকারক অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যানকে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। আদালতে বেলার পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান ও সাঈদ আহমদ কবির। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সাইফুদ্দিন খালেদ। আদেশের পর আইনজীবী রিজওয়ানা হাসান বলেন, বাংলাদেশে পলিথিন ব্যাগ ও একবার ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিক পণ্যের দৌরাত্ম্য মারাত্মকভাবে বেড়ে চলেছে। এগুলো আমাদের ভূমির উর্বরতা কমাচ্ছে, বায়ুদূষণ ঘটাচ্ছে এবং সমুদ্রের জলজ উদ্ভিদ ও প্রতিবেশ ব্যবস্থাকে মারাত্মকভাবে হুমকির মধ্যে ফেলেছে। তাই প্লাস্টিক সামগ্রীর উৎপাদন, বিক্রি, বিপণন, বিতরণ বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে বেলাসহ ১১টি সংস্থা গত বছরের ১৭ ডিসেম্বর হাই কোর্টে একটি রিট করে। সে রিটের শুনানি নিয়ে হাই কোর্ট রুলসহ আদেশ দেয়।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর