শিরোনাম
প্রকাশ : ১৮ জানুয়ারি, ২০২১ ১৪:১৬
প্রিন্ট করুন printer

কাহালু পৌর নির্বাচনে বিজয় ধরে রাখতে চায় আওয়ামী লীগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

কাহালু পৌর নির্বাচনে বিজয় ধরে রাখতে চায় আওয়ামী লীগ

প্রার্থীরা এখন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে, ভোটের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে, প্রচার-প্রচারণা ততই জমে উঠছে। আওয়ামী লীগ চাচ্ছে জয়ের ধারা বজায় রাখতে, বিএনপি মাঠে নেমেছে পূর্ণদ্ধারে। পিছিয়ে নেই কাউন্সিলর প্রার্থীরাও। আগামী ৩০ জানুয়ারি বগুড়া জেলার নিকটতম কাহালু পৌরসভার ভোট। পৌর সভাটি ৯ টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত, মোট ভোটার ১১ হাজার ১৪০ জন। 

এবার উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি, টানা ২ বারের নির্বাচিত পৌর মেয়র আলহাজ্ব মো. হেলাল উদ্দিন কবিরাজ দলীয় প্রতীক “নৌকা মার্কা” নিয়ে মাঠে নেমে চালাচ্ছে প্রচার-প্রচারণা। তিনি নির্বাচনী প্রচারণা সভা গুলোতে অসমাপ্ত কাজ সম্পূর্ণ করে পৌর সভার উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখতে আবারও নৌকা মার্কা ভোট প্রদানে আহ্বান জানাচ্ছেন। 

হেলাল উদ্দিন কবিরাজ আওয়ামীলীগের একজন পরীক্ষিত, ত্যাগী ও জনপ্রিয় নেতা।তার প্লাস পয়েন্ট হচ্ছে দেশ পরিচালনায় এখন আওয়ামী লীগ সরকার এছাড়াও তার ছেলে আল হাসিবুল হাসান কবিরাজ (সুরুজ) বগুড়া জেলা ছাত্রলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ও কাহালু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান। ভাই কামাল উদ্দিন কবিরাজ কাহালু ইউ সি সি এ লিঃ চেয়ারম্যান ও বড় ভাই আলহাজ্ব শাহাজাহান আলী কবিরাজ কাহালু ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এবং আর এক ভাই উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক।

অপরদিকে বিএনপি নেতা উপজেলা চালকল মিল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক, সাবেক কাউন্সিলর বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলহাজ্ব মো. আব্দুল মান্নান দফাদার (ভাটা) বিএনপি দলীয় প্রতীক “ ধানের শীষ মার্কা” নিয়ে পৌর মেয়র পদ পূর্নদ্ধারে মাঠে নেমে নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনি বিজয়ী হলে পৌরসভাকে মাদক, দুর্নীতি ও সন্ত্রাস মুক্ত করে পৌর উন্নয়নে নিরলস ভাবে কাজ করবেন। 

বিএনপি-জামায়াত ২ বার ভোট বর্জন করায় জাতীয় পাটির প্রার্থী মামদুদুর রহমান চৌধুরী ও জাসদ নেতা তানসেন ছাড়া স্বাধীনতার পর হতে বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) এলাকা থেকে প্রকৃত ভোটে সব সময় বিএনপি দলীয় প্রার্থীই বিজয়ী হয়েছেন। তারই ধারাবাহিকতায় এবারেরও নির্বাচিত হয়েছেন বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দ্রীগ্রাম) এলাকার সংসদ সদস্য বিএনপি নেতা আলহাজ্ব মোশারফ হোসেন।

এদিকে প্রতিদ্বন্দ্বী সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর ও সাধারণ কাউন্সিলরাও প্রচার প্রচারণায় মাঠে সরব। পোষ্টারে পোস্টারের ছেয়ে গেছে পৌর এলাকার অলি-গলি। পাড়ায় মহল্লায় চলছে ক্যাম্পিং ও নির্বাচনী মহড়া। তবে এবার স্থানীয় প্রশাসন এখন পর্যন্ত  রয়েছেন শক্ত ও নিরপেক্ষ অবস্থানে ফলে এ পর্যন্ত নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কোন অপ্রীতিকর ঘটনার সংবাদ পাওয়া যায়নি।

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর