শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২৩:১৩

চূড়ান্ত পর্বে খেলতে চান মারিয়ারা

ক্রীড়া প্রতিবেদক

চূড়ান্ত পর্বে খেলতে চান মারিয়ারা
সংবাদ সম্মেলনে মারিয়া ও আঁখি

এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ ওমেন্স চ্যাম্পিয়নশিপ বাছাই পর্বের দ্বিতীয় রাউন্ড খেলতে মিয়ানমার যাচ্ছে বাংলাদেশের মেয়েরা। এ উপলক্ষে গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে দলের প্রস্তুতি এবং লক্ষ্য নিয়ে নানান কথা বললেন দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন, অধিনায়ক মারিয়া মান্ডা এবং সহঅধিনায়ক আঁখি খাতুন। ‘আমরা থাইল্যান্ডের মূল পর্ব খেলতে চাই আবার। এ লক্ষ্য নিয়েই মিয়ানমার যাচ্ছি।’ কোচ ছোটনের কণ্ঠে দৃঢ় অঙ্গীকার। আগেরবারও এ টুর্নামেন্টের চূড়ান্ত পর্ব খেলেছিল মেয়েরা। কিন্তু এবার বাছাইপর্বের দ্বিতীয় রাউন্ড বেশ কঠিনই হতে যাচ্ছে। স্বাগতিক মিয়ানমার ছাড়াও গ্রুপে আছে শক্তিশালী চীন ও ফিলিপাইন। ছোটন বলছেন, ‘আমাদের মেয়েরা দেড় বছরের বেশি সময়ে অনুশীলনে রয়েছে। আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছে অনেক। চীনের সঙ্গে খেলা নিয়ে পরে ভাবা যাবে। আমরা প্রথম দুই ম্যাচের জয় নিয়েই ভাবছি আগে।’ ফিলিপাইন ও মিয়ানমারের বিপক্ষে জিতলেই সেরা দুয়ে থাকাটা নিশ্চিত হবে বাংলাদেশের মেয়েদের। অধিনায়ক মারিয়া মান্ডা বললেন, ‘আমরা আবার থাইল্যান্ডে খেলতে চাই। মূল পর্বে খেলার জন্য আমরা প্রস্তুত।’ কয়েক মাস আগে বাংলাদেশ জাতীয় দল অলিম্পিকের বাছাইপর্ব খেলতে মিয়ানমার গিয়েছিল। সেই সফরে ভালো করতে পারেনি আঁখি-মারিয়ারা। এবার সেই ব্যর্থতা ঘুচাতে চান আঁখি। তিনি বলেন, ‘আগেরবারের লড়াইটা ছিল জাতীয় দলের। আর এটা বয়সভিত্তিক। আমরা এই আসরে ভালো করতে পারব আশা করি। মিয়ানমারে খেলার অভিজ্ঞতা আমাদের কিছুটা এগিয়ে রাখবে।’ ২৭ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হওয়া এ বাছাই পর্বে অনূর্ধ্ব-১৬ দলের অন্যতম ফুটবলার সাজেদা সফরসঙ্গী হতে পারছেন না মাধ্যমিক পরীক্ষার জন্য। তবে ২০১৭ সালে থাইল্যান্ডে মূল পর্বে খেলা ১১ জন ফুটবলার আছেন এবারের দলে। এই দলের সঙ্গে সিনিয়র ফুটবলাররাও মিয়ানমার যাচ্ছেন।


আপনার মন্তব্য