Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৬ মে, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ মে, ২০১৯ ২২:৪৯

আবু জায়েদের ৫ উইকেট

৯ ওভারে ৫৮ রান দিয়ে ৫ উইকেট নিয়েছেন আবু জায়েদ। বাংলাদেশ ৬ উইকেটে ম্যাচ জিতে।

ক্রীড়া প্রতিবেদক

আবু জায়েদের ৫ উইকেট

বিশ্বকাপে বাংলাদেশের চূড়ান্ত স্কোয়াডে পঞ্চম পেসার হিসেবে কি সুযোগ পাচ্ছেন তাসকিন আহমেদ, নাকি আবু জায়েদ রাহী-ই থাকছেন? ত্রিদেশীয় সিরিজে পারফরম্যান্সের ওপর দুই পেসারের ভাগ্য নির্ধারিত হওয়ার কথা! আগের ম্যাচে ৯ ওভার বোলিং করে কোনো উইকেট না পাওয়ায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে খানিকটা দূরেই সরে গিয়েছিলেন রাহী। তবে গতকাল আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৫ উইকেট নিয়ে দলে নিজের অবস্থান শক্ত করলেন সিলেটের এই পেসার। আবু জায়েদের দুর্দান্ত বোলিংয়ের দিনে হেসে খেলে আয়ারল্যান্ডকে হারিয়েছে বাংলাদেশ। প্রথমে ব্যাট করে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৯২ রান করেছিল আয়ারল্যান্ড। লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ৬ উইকেট হাতে রেখেই জিতে যায় টাইগাররা। হাফ সেঞ্চুরি করেছেন তামিম ইকবাল, লিটন দাস ও সাকিব আল হাসান। লিটন ৬৭ বলে খেলেছেন ৭৬ রান। তামিমের ব্যাট থেকে এসেছে ৫৭। হাফ সেঞ্চুরি করার রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে ফিরেছেন সাকিব। রান নেওয়ার জন্য একটুখানি চোট পেয়েছিলেন।  আয়ারল্যান্ডের ওপেনার পল স্টারলিং খেলেছেন ১৩০ রানের দারুণ ইনিংস। আইরিশ তারকার ওয়ানডে ক্যারিয়ারে প্রথম সেঞ্চুরি এটি। ৯৪ রান করেছেন উইলিয়াম পোটারফিল্ড। তাদের ১৭৪ রানের জুটিতেই তিনশর কাছাকাছি স্কোর করে আইরিশরা। ৯ ওভারে ৫৮ রান দিয়ে ৫ উইকেট নিয়েছেন আবু জায়েদ রাহী। দুটি উইকেট নিয়েছেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। এক উইকেট নিয়েছেন রুবেল হোসেন। মাত্র একটি উইকেট পেলেই মাইলফলক স্পর্শ করতেন সাকিব আল হাসান। কিন্তু বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার গতকাল কোনো উইকেটই নিতে পারেননি। তাই সাকিবের অপেক্ষা বাড়ল।

অ্যান্ডি ব্যালবিরনিকে ফিরিয়ে দিয়ে প্রথম উইকেট শিকার করেন আবু জায়েদ। এরপর দুই ভয়ঙ্কর ব্যাটসম্যান পল স্টারলিং ও উইলিয়াম পোটারফিল্ডকে বিদায় করে দেন। দুই ব্যাটসম্যান মিলেই করেছেন ১৭৪ রানের জুটি। ও’ব্রেইন ও উইলসনকেও বিদায় করে দিয়েছেন রাহী।

টানা তিন ওভারে তিন মিস :

ইনিংসের ২১তম ওভারের শেষ বলে লং অফে পল স্টারলিংয়ের ক্যাচ ফেলে দেন সাব্বির রহমান। উইকেট বঞ্চিত হন মোসাদ্দেক।

ঠিক পরের ওভারের প্রথম বলে পয়েন্টে সহজ ক্যাচ লুফে নিতে ব্যর্থ হন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। বোলার ছিলেন সাকিব। ব্যাটসম্যান সেই স্টারলিং। ২৩তম ওভারে আবারও মোসাদ্দেকের বলে ক্যাচ মিস করেন তামিম। টানা তিন ওভারে তিনটি ক্যাচ মিস।


আপনার মন্তব্য