শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ৯ জুন, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৯ জুন, ২০১৯ ০১:৫৯

সবার ওপরে সাকিব

আসিফ ইকবাল

সবার ওপরে সাকিব

‘সাকিব ভালো ব্যাটিং করেন। ভালো বোলিং করেন এবং ভালো ফিল্ডিংও করেন।’ সাকিবের সেঞ্চুরির পর ধারাভাষ্যকার সৌরভ গাঙ্গুলীর মন্তব্য। ভারতের সাবেক অধিনায়ক মন্তব্য করেন কঠিন প্রতিকূলতায় বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের সেঞ্চুরির প্রশংসায়। সাকিব সেঞ্চুরি করলেও সতীর্থদের ব্যর্থতায় বাংলাদেশ হেরেছে ১০৬ রানের বড় ব্যবধানে। 

বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় ‘বিজ্ঞাপন’ সাকিব আল হাসান। দেশের ক্রিকেটের আস্থার প্রতীক সাকিব। তিনি কেন বিশ্বসেরা এবং দেশের ক্রিকেটের প্রাণভোমরা, প্রমাণ দিলেন সৌভাগ্যের ভেন্যু কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেনে। ইংল্যান্ডের ৩৮৬ রান তাড়া করতে নেমে সৌম্য, তামিম, মুশফিক, মিথুনরা যখন গতি, সুইং ও বাউন্সে বিপর্যস্ত, তখন ওয়ান ডাউনে খেলতে নেমে হিমালয়সম দৃঢ়তায় পাল্টা প্রতিরোধ গড়ে তোলেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। শুধু প্রতিরোধেই থেমে ছিলেন না, পাল্টা আক্রমণে ছিন্ন ভিন্ন করেন প্রতিপক্ষের সাঁড়াশি আক্রমণ। একই সঙ্গে চলতি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে খেলেন তিন অঙ্কের জাদুকরী ইনিংস। বিশ্বকাপে সেঞ্চুরি হাঁকানো দ্বিতীয় টাইগার ক্রিকেটার। মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ২০১৫ সালের বিশ্বকাপে দু-দুটি সেঞ্চুরি করে ইতিহাসের সোনালি পাতায় চিরস্থায়ী হয়েছেন আগেই। সাকিব কাল ব্যাটিংয়ে নামেন তৃতীয় ওভারে। ৪০ নম্বর ওভারে সাজঘরে ফেরার আগে খেলেন ১১৯ বলে ১২১ রানের নান্দনিক এক ইনিংস। যা তার ২০১ ওয়ানডে ক্যারিয়ারে অষ্টম সেঞ্চুরি। সেঞ্চুরিটি করেছেন ৯৫ বলে এবং হাফসেঞ্চুরি করেন ৫৩ বলে। 

সাকিবের সেঞ্চুরিটি চলতি বিশ্বকাপে পাঁচ নম্বর। সেঞ্চুরি করেছেন ইংল্যান্ডের জেসন রয়, জো রুট, জশ বাটলার ও রোহিত শর্মা। তিন ম্যাচে সাকিবের রান ২৬০। গড় ৮৬.৬৬। স্ট্রাইক রেট ৯৫.৯৪। প্রথম দুই ম্যাচে হাফসেঞ্চুরিও রয়েছে দুটি।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৭৫ এবং নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে খেলেন ৬৪ রানের ইনিংস। তিন ম্যাচে বাউন্ডারি ২৭টি এবং ছক্কা ২টি। ইংলিশ ওপেনার জেশন রয়ের ৩ ম্যাচে রান ২১৫। বাটলারের রান ৩ ম্যাচে ১৮৫ ও রুটের রান ১৭৯।


আপনার মন্তব্য