শিরোনাম
প্রকাশ : ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১৮:২১
প্রিন্ট করুন printer

এমসি কলেজের পর হবিগঞ্জেও গণধর্ষণে ছাত্রলীগ কর্মী

সিলেট ব্যুরো

এমসি কলেজের পর হবিগঞ্জেও গণধর্ষণে ছাত্রলীগ কর্মী
সোলায়মান রনি
Google News

হাওরে নৌকা ভ্রমণে যাওয়া নারীকে গণধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতারকৃত হবিগঞ্জের লাখাই উপজেলা ছাত্রলীগের সদস্য সোলায়মান রনিকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

শনিবার হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাইদুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক মহিবুর রহমান মাহী স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, সংগঠনের শৃঙ্খলা পরিপন্থী কাজের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে রনিকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

গত ২৫ আগস্ট এক সদ্য বিবাহিত স্বামী-স্ত্রী ও স্বামীর বন্ধুর সঙ্গে স্থানীয় টিক্কাপুর হাওরে নৌকায় করে বেড়াতে যান ওই নারী। এ সময় সঙ্গে থাকা স্বামীসহ দু’জনকে বেঁধে ওই নারীকে পালাক্রমে ধর্ষণের অভিযোগে বৃহস্পতিবার ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন ওই নারীর স্বামী।

মামলার আগের রাতেই র‍্যাব ও পুলিশ লাখাই উপজেলার মোড়াকরি গ্রামের ইকবাল হোসেন ছোট্ট মিয়ার ছেলে ও উপজেলা ছাত্রলীগের সদস্য সোলায়মান রনি (২২), একই এলাকার ইব্রাহিম মিয়ার ছেলে মিঠু মিয়া (২১) এবং রুকু মিয়ার ছেলে শুভ মিয়াকে (১৯) গ্রেফতার করে।

মামলার বাকি পাঁচ আসামি হলেন, মোড়াকড়ি গ্রামের খোকন মিয়ার ছেলে মুছা মিয়া (২৬), পাতা মিয়ার ছেলে হৃদয় মিয়া (২২), বকুল মিয়ার ছেলে সুজাত মিয়া (২৩), মিজান মিয়ার ছেলে জুয়েল মিয়া (২৫) ও ওয়াহাব আলীর ছেলে মুছা মিয়া (২০)।

উল্লেখ্য, গেল বছর সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসেও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের হাতে এক নারী গণধর্ষণের শিকার হন। সেই সময়ে এ ঘটনা সারাদেশের মধ্যে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করে।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন

এই বিভাগের আরও খবর