শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ মে, ২০২০ ১৪:৩২
প্রিন্ট করুন printer

করোনা চিকিৎসায় আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল চীনের ভ্যাকসিন

অনলাইন ডেস্ক

করোনা চিকিৎসায় আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল চীনের ভ্যাকসিন

করোনাভাইরাসের চিকিৎসায়আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল চীনের ভ্যাকসিন। সম্প্রতি নতুন এক গবেষণায় বলা হয়েছে যে, করোনার জন্য তৈরি চীনের একটি ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগের কাজ আরও এগিয়ে গেছে।

বিজ্ঞানীরা ১০৮ জন সুস্থ স্বেচ্ছাসেবীর দেহে ওই ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগে ভালো ফল দেখতে পেয়েছেন। ওই স্বেচ্ছাসেবীদের দেহে এই ভ্যাকসিন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছে।

করোনা রোগীদের দেহে এন্টিবডি উৎপাদন হওয়াটা একটি ভালো লক্ষণ যা তাদেরকে সংক্রমণ থেকে রক্ষা করতে পারে। তবে এখনই এ নিয়ে একেবারে নিশ্চয়তা দিতে রাজি নন বিজ্ঞানীরা। তারা এ বিষয়টি নিয়ে আরও গবেষণা করতে চান।

ভ্যাকসিন তৈরি কাজ এগিয়ে নিতে এসব বিষয় খুবই গুরুত্বপূর্ণ। চীনা প্রতিষ্ঠান ক্যানসিনো এই ভ্যাকসিনটি তৈরি করেছে। চলতি বছরের শুরুর দিকে এর ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু হয়।

যেসব স্বেচ্ছাসেবীর দেহে এই ভ্যাকসিন পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করা হয়েছে তাদের মধ্যে বেশিরভাগের দেহেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি হয়েছে। যদিও তাদের শরীরে তৈরি হওয়া অ্যান্ডিবডির মাত্রা ছিল কিছুটা কম।

মেডিক্যাল জার্নাল ল্যানচেটে ওই গবেষণা প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, স্বেচ্ছাসেবীদের দেহে তাদের ভ্যাকসিন সহনীয় হয়ে উঠেছে এবং নভেল করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছে।

চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে ১৮ থেকে ৬০ বছর বয়সী ১০৮ জনের ওপর পরীক্ষামূলকভাবে এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়। 

অংশগ্রহণকারীদের দেহে নিম্ন, মধ্যম ও উচ্চ মাত্রায় ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কারো দেহেই এই ভ্যাকসিন প্রয়োগের পর গুরুতর কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি।


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৮:০৩
প্রিন্ট করুন printer

গাজীপুরে নতুন করোনা আক্রান্ত ১৪

গাজীপুর প্রতিনিধি

গাজীপুরে নতুন করোনা আক্রান্ত ১৪

গাজীপুরে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ জন। এ নিয়ে গাজীপুরে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো সাত হাজার ৪৮ জনে। মঙ্গলবার গাজীপুর সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। 

সূত্র জানায়, গত ২৪ ঘন্টায় গাজীপুরে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ১৪ জনের মধ্যে গাজীপুর সদরে ১২ জন, কালীগঞ্জে ১ জন, শ্রীপুরে ১ জন। জেলার কালিয়াকৈর ও কাপাসিয়া উপজেলায় এ সময়ের মধ্যে কেউ করোনায় আক্রান্ত হননি। 

সূত্র আরো জানায়, এ পর্যন্ত জেলায় সুস্থ হয়েছেন ছয় হাজার ৭৩৯ জন। জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত মারা গেছেন ১০৬ জন। সর্বশেষ ৫৭ হাজার ১২৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৫৯ জনের।

বিডি প্রতিদিন/আল আমীন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:১১
প্রিন্ট করুন printer

গবেষণার ফলাফল

দেশের ৫২ শতাংশ মানুষ দেখে শুনে দেরিতে ভ্যাকসিন নিতে চান

অনলাইন ডেস্ক

দেশের ৫২ শতাংশ মানুষ দেখে শুনে দেরিতে ভ্যাকসিন নিতে চান
ফাইল ছবি

বিনামূল্যে দেয়া হলে ৮৪ শতাংশ মানুষ টিকা নিতে আগ্রহী। আর ১৬ শতাংশ আগ্রহী না। কোভিড-১৯ টিকার প্রতি জনগণের দৃষ্টিভঙ্গি প্রেক্ষিত বাংলাদেশ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) স্বাস্থ্য অর্থনীতি ইনস্টিটিউটের গবেষণায় এ তথ্য উঠে এসেছে। আজ মঙ্গলবার এ গবেষণার ফলাফল প্রকাশ করে ইনস্টিটিউটটি। জরিপে অংশ নেন ৩ হাজার ৫৬০ জন।

জরিপের তথ্য অনুযায়ী, দেশের ৮৪ শতাংশ মানুষ করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন নিতে আগ্রহী। তবে তারা এই মুহূর্তে ভ্যাকসিন নিতে চান না। আর ৩২ শতাংশ লোক এই মুহূর্তে ভ্যাকসিন নিতে আগ্রহী। আর বাকি ৫২ শতাংশ মানুষ এই মুহূর্তে নয়, দেখে শুনে দেরিতে ভ্যাকসিন নিতে চান।

অন্যদিকে, ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা নিয়ে এই মুহূর্তে সন্দেহ আছে ৫৫ শতাংশ মানুষের। আর পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া নিয়ে সন্দেহ আছে ৩৪ শতাংশ জনগণের। বিনামূল্যে দিলে নিম্নবিত্তরা ভ্যাকসিন নিতে চান। তবে উচ্চবিত্তদের মধ্যে টাকা দিয়ে ভ্যাকসিন নেয়ার আগ্রহ বেশি বলে গবেষণায় দেখা গেছে।

বি ডি প্রতিদিন/আরাফাত


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৫:৩৪
আপডেট : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৬:২৫
প্রিন্ট করুন printer

২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ও শনাক্তের সর্বশেষ তথ্য

অনলাইন ডেস্ক

২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ও শনাক্তের সর্বশেষ তথ্য
প্রতীকী ছবি

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৮ হাজার ৫৫ জনে। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৫১৫ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। এ নিয়ে দেশে মোট করোনা রোগী শনাক্ত হলো ৫ লাখ ৩২ হাজার ৯১৬ জন।

আজ মঙ্গলবার বিকালে করোনাভাইরাস নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও উল্লেখ করা হয়, এদিন সুস্থ হয়েছেন ৪৪৭ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ৪ লাখ ৭৭ হাজার ৪২৬ জন।

বিডি প্রতিদিন/আরাফাত


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৩:১৬
আপডেট : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৩:১৭
প্রিন্ট করুন printer

ফাইজারকে সতর্ক করে ইতালির চিঠি, উত্তেজনা

অনলাইন ডেস্ক

ফাইজারকে সতর্ক করে ইতালির চিঠি, উত্তেজনা
প্রতীকী ছবি

মার্কিন টিকা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ফাইজারকে সতর্ক করে আনুষ্ঠানিকভাবে চিঠি পাঠিয়েছে ইতালি। 

ওই চিঠিতে ফাইজারকে টিকা সরবরাহের বিষয়ে চুক্তিভিত্তিক প্রতিশ্রুতি রক্ষার আহ্বান জানিয়েছে ইউরোপের দেশটি।

সরকারের বিশেষ কমিশনার এই তথ্য জানিয়েছেন। খবর রয়টার্সের।

এরই মধ্যে চিঠিটি ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং মার্কিন ড্রাগ প্রস্তুতকারকের মধ্যে উত্তেজনা বাড়িয়েছে। গত সপ্তাহে টিকা সরবরাহে সাময়িক মন্দার ঘোষণা দিয়েছিল ফাইজার।


ইতালির বিশেষ কমিশনার অফিসের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, স্টেট অ্যাটর্নি জেনারেলের অফিস ফাইজারকে টিকা সরবরাহে চুক্তিগত বাধ্যবাধকতা মেনে চলার জন্য আনুষ্ঠানিক নোটিশ পাঠিয়েছে।

তবে এ বিষয়ে তাৎক্ষণিক কোনো মন্তব্য করেনি ফাইজার। সম্প্রতি সংস্থাটি জানিয়েছে, উৎপাদন সংক্রান্ত পরিবর্তনের কারণে টিকা সরবরাহে প্রভাব ফেলেছে।

সূত্রের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে, যদি ফাইজার চুক্তিগত বাধ্যবাধকতা পূরণ না করে তাহলে চুক্তি লঙ্ঘনের দায়ে সংস্থাটিকে অভিযুক্ত করতে পারে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। এ বিষয়ে সঠিক জবাব দেওয়ার জন্য সংস্থাটিকে কমপক্ষে এক সপ্তাহ সময় দেওয়া হবে।

শনিবার ইতালির প্রধানমন্ত্রী জিউসেপ্পে কন্তে বলেন, টিকা সরবরাহ চুক্তির গুরুতর লঙ্ঘন হলে ইতালি তাদের বিরুদ্ধে সমস্ত আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৩:১০
প্রিন্ট করুন printer

ভ্যাকসিন নিয়ে ধনী-দরিদ্রের বিভাজন খারাপের দিকে যাচ্ছে: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

অনলাইন ডেস্ক

ভ্যাকসিন নিয়ে ধনী-দরিদ্রের বিভাজন খারাপের দিকে যাচ্ছে: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা
তেদ্রোস আধানম গেব্রিয়েসুস

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন নিয়ে ধনী ও দরিদ্র দেশগুলোর মধ্যে বিভাজন বাড়ছে। এই বিভাজন দিন দিন খারাপের দিকে যাচ্ছে বলে সতর্ক করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

সংস্থাটির প্রধান তেদ্রোস আধানম গেব্রিয়েসুস সোমবার জোর দিয়ে বলেছেন, টিকার ডোজ সমভাবে বিতরণে ব্যর্থ হলে বিশ্বকে কোটি কোটি ডলার অর্থনৈতিক খরচ মোকাবিলা করতে হবে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, করোনা মহামারী মোকাবিলায় টিকা তৈরি, উৎপাদন ও সরবরাহ এবং করোনার চিকিৎসা ও পরীক্ষার জন্য সংস্থাটির ২ হাজার ৬শ’ কোটি ডলার প্রয়োজন।

সংস্থাটির প্রধান বলছেন, ধনী দেশগুলো ভ্যাকসিন দেওয়ার কাজ শুরু করেছে। কিন্তু বিশ্বের স্বল্পোন্নত দেশগুলো দেখছে এবং অপেক্ষা করছে।

এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন, দিন চলে যাচ্ছে। করোনার টিকা পাওয়া এবং না পাওয়ার মধ্যে ব্যবধান ব্যাপক হচ্ছে।

তেদ্রোস আধানম বলেন, টিকা জাতীয়তাবাদের মাধ্যমে স্বল্প সময়ের রাজনৈতিক লক্ষ্য অর্জিত হতে পারে। কিন্তু প্রত্যেক দেশের স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি অর্থনৈতিক স্বার্থের জন্য টিকার সমবণ্টনকে সমর্থন করতে হবে।

ইন্টারন্যাশনাল চেম্বার অব কমার্স এর রিসার্চ ফাউন্ডেশনের এক গবেষণা উদ্ধৃত করে তিনি বলেন, টিকা জাতীয়তাবাদের কারণে বিশ্ব অর্থনীতির ৯ দশমিক ২ ট্রিলিয়ন ক্ষতি হবে।

ডব্লিউএইচও প্রধান বলেন, টিকা আমাদের আশা দিচ্ছে। এ কারণে আমরা এখন যে জীবন হারাচ্ছি তা আরও মর্মান্তিক হয়ে যাচ্ছে। আমাদের অবশ্যই আশা রাখতে হবে; পদক্ষেপও নিতে হবে।

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর